কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং

3
604

গৌতমকুমার পাল

(অধ্যাপক, ক্রিপ্টোলজি অ্যান্ড সিকিউরিটি রিসার্চ ইউনিট,কম্পিউটার অ্যান্ড কমিউনিকেশন সায়েন্সেস ডিভিশন,ইন্ডিয়ান স্ট্যাটিস্টিক্যাল ইনস্টিটিউট, কলকাতা; প্রাক্তন অধ্যাপক, কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্ট, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়)

কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং পড়লে জীবনজীবিকা নিয়ে আর চিন্তার কারণ নেই। এ সত্য আমাদের সমাজে এখন সকলেই কমবেশি জানে। হেন ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ নেই, যেখানে কম্পিউটার সায়েন্স পড়ানো হয় না। কারণটা সহজবোধ্য। এর চাহিদা অসীম। জয়েন্ট এন্ট্রান্সের মেধা তালিকায় ৭২ হাজারে স্থান পেলেও পড়ুয়াটি চায় কম্পিউটার সায়েন্স পড়তে। অতএব বাণিজ্যের দারুণ সুযোগ।

ইদানীং অবশ্য কম্পিউটার সায়েন্সের তত্ত্ব ও প্রায়োগিক দিকটিকে আলাদা করে কোথাও কোথাও কম্পিউটার সায়েন্সের পাশাপাশি তথ্যপ্রযুক্তি বা আইটি বিভাগও চালু হয়েছে। যাদবপুরের মতো প্রথম শ্রেণির বিশ্ববিদ্যালয়েও চালু হয়েছে এই বিভাগ।

কাজের সুযোগ 

যদিও সম্প্রতি এআইসিটিই বলেছে, দেশে প্রতি বছর যত জন ইঞ্জিনিয়ারিং পাস করেন, তাঁদের মাত্র ৪০ শতাংশ চাকরি পান, কিন্তু কম্পিউটার সায়েন্স পড়লে তেমন কোনো সম্ভাবনা নেই। এই ক্ষেত্রে চাকরি পর্যাপ্ত।

দেখে নেওয়া যাক কম্পিউটার সায়েন্স নিয়ে পড়লে কোথায় কোথায় চাকরির সুযোগ রয়েছে।

১) টিসিএস, কগনিজ্যান্ট, আইবিএম, উইপ্রো, পিডব্লিউসি-র মতো বিখ্যাত তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থাগুলিতে প্রচুর চাকরির সুযোগ। এ প্রসঙ্গে বলে নেওয়া দরকার, এই সংস্থাগুলিতে যে ধরনের কাজ হয় এবং আগামী দিনেও হবে, সেই কাজ করার জন্য কম্পিউটার সায়েন্সে ডিগ্রির কোনো প্রয়োজন নেই। অষ্টম থেকে দশম শ্রেণি উত্তীর্ণ যে কোনো পড়ুয়াকেই প্রশিক্ষণ দিলে তাঁরা এ কাজ করতে পারবেন। কিন্তু যে হেতু ডিগ্রিধারী কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার অঢেল, তাই ওই সংস্থাগুলি ইঞ্জিনিয়ারিং স্নাতকদেরই নিয়োগ করে এবং করবে। এই ধরনের চাকরির জন্য কম্পিউটার সায়েন্সে স্নাতক হওয়াই যথেষ্ট। উচ্চতর শিক্ষার প্রয়োজন নেই।


কলেজ বাছার সময় দেখে নেবে, আগের বছরগুলিতে সেই কলেজগুলি থেকে প্লেসমেন্ট বা নিয়োগ কতটা হয়েছে। তবে সাধারণ ভাবে বলে রাখছি, রাজ্য জুড়ে অনেক কলেজ থাকলেও, কলকাতা বা তার আশেপাশের কলেজে ভর্তি হওয়াই বুদ্ধিমানের কাজ।


২) এই ধরনের তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থাগুলির (টিসিএস, মাইক্রোসফ্‌ট, আইবিএম প্রভৃতি) ইন্ডাস্ট্রিয়াল রিসার্চ ল্যাবরেটরিতে কম্পিউটার সায়েন্সের পড়ুয়াদের নিয়োগ করা হয়। তবে ওই ধরনের চাকরির জন্য স্নাতকোত্তর বা মাস্টার্স ডিগ্রি প্রয়োজন।

৩) কেন্দ্রীয় সরকারের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের গবেষণাগারেও চাকরির সুযোগ রয়েছে। ডিআরডিও, ইসরো, ভাবা অ্যাটমিক রিসার্চ সেন্টারের মতো প্রতিষ্ঠানগুলিতে গবেষক নিয়োগ করা হয়। এ ক্ষেত্রে অবশ্য স্নাতক ডিগ্রিই যথেষ্ট। মনে রেখো, এই প্রতিষ্ঠানগুলিতে আসন সংখ্যা অনেক। ফলে, চাকরির সুযোগও যথেষ্ট।

৪) যারা পড়ানো বা গবেষণার কাজ করে জীবন কাটাতে চাও, তাদের জন্য বিশেষ কিছু বলার নেই। স্নাতক, স্নাতকোত্তর, পিএইচডি — এই পথ ধরেই এগোতে হবে তোমাদের।

কোথায় পড়বে

বলাই বাহুল্য, যারা মেধাবী বা জয়েন্ট এন্ট্রান্সে মেধা তালিকায় প্রথম দিকে থাকে, তাদের কোনো সমস্যা নেই। কারণ তারা সহজেই রাজ্যের বা দেশের প্রথম সারির প্রতিষ্ঠানগুলোয় সুযোগ পেয়ে যায়।

পরামর্শ প্রয়োজন হয় তাদেরই, যারা তালিকায় কিছুটা পেছনে থাকে। তারা কলেজ বাছার সময় দেখে নেবে, আগের বছরগুলিতে সেই কলেজগুলি থেকে প্লেসমেন্ট বা নিয়োগ কতটা হয়েছে। তবে সাধারণ ভাবে বলে রাখছি, রাজ্য জুড়ে অনেক কলেজ থাকলেও, কলকাতা বা তার আশেপাশের কলেজে ভর্তি হওয়াই বুদ্ধিমানের কাজ। বেঙ্গালুরু বা দক্ষিণ ভারতের বেশ কিছু বেসরকারি কলেজও এ ক্ষেত্রে ভালো কাজ করছে।

আরও পড়ুন: নিউট্রিশন এবং ডায়াটেটিক্স-এ কেরিয়ার গড়তে

আর যারা তালিকায় অনেক পেছনে থাকবে বা ততটা মেধাবী নয়, তাঁদের কম্পিউটার সায়েন্স পড়া উচিত নয়। কোনো অনামী কলেজে পড়ে কোনো মতে ডিগ্রি অর্জন করলেও চাকরি পাওয়া যাবে না। কারণ, তোমার চেয়ে অনেক বেশি যোগ্য প্রার্থী আশেপাশেই থাকায়, সংস্থাগুলি তাদেরই নিয়োগ করবে। তেমন হলে অন্য শাখার ইঞ্জিনিয়ারদেরও তারা নিয়োগ করবে তোমায় না নিয়ে। কারণ আগেই বলেছি, যে কাজগুলো করতে হবে, সেগুলোর জন্য দশম শ্রেণি উত্তীর্ণ হওয়াই যথেষ্ট। সেখানে কোনো মতে পাস করা এক জন কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারের থেকে অন্য অনেকেই (তার যদি ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রি থাকে) বেশি যোগ্য হিসেবে প্রতিপন্ন হবে কাজের বাজারে। আর আজকের দিনে, যেখানে নানা রকম কাজের সুযোগ তৈরি হচ্ছে প্রতিনিয়ত, সেখানে তোমার দক্ষতার উপযোগী কেরিয়ার তুমি নিশ্চয় খুঁজে পাবে একটু চোখকান খোলা রাখলে। জোর করে কম্পিউটার সায়েন্স পড়ার কোনো দরকার নেই। তাতে শুধুই তোমার সময় নষ্ট। 

(সাক্ষাৎকারের ভিত্তিতে লিখিত)

3 COMMENTS

  1. Guys, all jobs in industry are not same. So, it is an incorrect statement that class 8-10 pass students can perform the jobs done in industry. I think people need more insight of what work is done in industry. I would say knowledge gained in Engineering degrees are very basic but they are not at all sufficient to perform many of technical work done in industry. I would agree that some industry jobs do not need much technical knowledge, on the other hand I would say the successful outcomes of researches are the inputs to the Industry. They get applied by industry in multiple business area to ease the day-to-day life of us. I would rather say researchers job is to innovate and Industry finds the right field to apply the innovation. Do you guys think that it’s so easy to apply what researchers innovate? I don’t think so.
    Let’s see some examples.
    1. When we do online banking, we go to the secure https protocol to do netbanking which uses RSA algorithm, invented by Rivest, Shamir and Adleman. So, invented by researchers. But, who developed the secured websites like Bank of America, Chase, Discover, Capital One, State Bank of India etc.? Who resolves when a high threatening security vulnerability issue is found in a website? Some employees from companies like TCS, Wipro, Cognizant, IBM etc. Do you guys think it’s a job of class 10 pass students?
    2. When you have the mobile app (of some renowned shop in US) installed in your mobile, and you actually pass through some aisle in a shop you get notifications of the offer which is going on in that store. Let’s see how it is done. It uses Beacon/BLE (or other Geo Fencing) technology to sense location of your mobile and your mobile app reacts to it, makes series of service calls and gets the offer to save some of your money. Technologies are invented by researchers. But who developed these advanced mobile apps to combine numerous technologies to ease the human life?

    There are numerous such examples and none of them are job of class 10 students. And if you disagree with me then I would say go and get all these developed by class 10 pass students, develop a community with class 10 pass students who can develop all these with class 10 knowledge. Also, I would suggest you guys to reach out to the CEO’s of IBM, TCS, Infosys, Cognizant, Wipro to propose to get 8-10 pass students in half price and double the profit.

    Likewise, all Ph.D scholars(only few of them are having very high merits, many of them are having very low merits as well) are not real inventors. Many of them just get their degrees just for the sake of getting degrees and not inventing anything in their lifetime that brings real value to mankind.

    I thought of not spending time putting this comment, but I couldn’t resist myself as I seriously thought people need to correct their understanding and thought process.

  2. To Mr. Chandan:

    Since you wrote in English, I am also responding in English:

    1. My actual statement in the interview was about “most of the projects” in IT industry that are executed by B.Tech.’s. Needless to say these projects invariably have some front-end GUI and some back-end database access (with ever-changing tools and technologies and domains).

    2. The examples you mention are very specific and they are not so common. I also mentioned that the same IT companies may have their research wings focusing on specific advanced projects (this is mentioned in point 2 of the section “কাজের সুযোগ” in the article).

    3. Few random examples of software expertise of school students are here:

    a) https://qz.com/941399/indian-engineers-are-so-bad-that-hcl-technologies-wants-to-hire-high-school-graduates/

    b) https://ieeexplore.ieee.org/document/6229631/

    c) https://dl.acm.org/citation.cfm?id=2889180

  3. To both Mr Goutam and Mr Chandan,
    I am inclined to support Goutam’s views here. The explanation given by Mr Chandan has good insight and several examples but the point is lost. We are talking about the majority of work being performed by IT industries and mostly at their offshore centers. With my 20 years of experience in IT industry, I am fairly inclined to say that it indeed does not need an engineer. 8-10 pass might be symbolic but the essence, as I understood is the level of education it needs.
    To substantiate my views —
    there are people (not many though for the same reason that computer engineers are abundant) recruited and working very good – none ever pointing out in any appraisal or interim report that because of non-IT or non-computer degree the person XYZ did not perform well. The reason behind that is again simple – majority work is extremely stereotype, routine Managed services work. Even non-IT employees (say a person who did BTech in Chemical Engg and got trained from NIIT) are performing as usual. Fundamental research, truly innovative or patent work are very very rare.
    I got feedback from a large number of people all working in IT industries at offshore for at least 10+ years supporting my view. In fact given the market situation te trend is becoming either highly innovative or doing more than regular work (may be night shift, more work by restructuring of internal units etc)
    Having supported Goutam’s view, again this is the average picture. Exceptions are of course there and there are talented and lucky to get opportunities.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here