indianpremierleague-players

ওয়েবডেস্ক: বিশ্বের সবথেকে ধনী ক্রিকেট লিগ আইপিএল। প্রতি বছরই নিলামে অনেক খেলোয়াড় শিরোনামে উঠে আসেন। কিন্তু দেখা যায় শেষমেশ তাদের মধ্যে অনেকেই নিজেদের নামের প্রতি সুবিচার করতে ব্যর্থ হয়। দশ বছর পার করে একাদশ আইপিএল শুরু হয়ে গেছে। অনেক নজরকাড়া খেলোয়াড় ইতিমধ্যেই ক্রিকেটপ্রেমীদের মন কেড়েছেন। তবে এই দশ বছরে এমনও কিছু খেলোয়াড় রয়েছেন যারা নিলামে নজর কাড়লেও, খেলতে নেমে তেমন দাগ কাটতে পারেননি।

জেনে নিন এমনই পাঁচ খেলোয়াড়দের যারা এখন আইপিএল থেকে দূরে:

১। টাইমাল মিলস

ইংল্যান্ডের এই বোলারটি ২০১৭ সালে নিলামে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ খেলোয়াড় ছিলেন। ১২ কোটি টাকায় তাঁকে দলে নেয় রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু। তবে চোট পাওয়ার কারণে মাত্র পাঁচটি ম্যাচ খেলার সুযোগ পান তিনি। আন্তর্জাতিক স্তরেও সেভাবে দাগ কাটতে না পাড়ার ফলে, এবারের লিগে অবিক্রীত থেকে যান তিনি।

tymalfinal

 

২। কেসি কারিয়াপ্পা

অষ্টম আইপিএলের অন্যতম আশ্চর্য বোলার হিসাবে ধরা হচ্ছিল তাঁকে। ২০১৫ সালে প্রায় আড়াই কোটি টাকায় তাঁকে দলে নেয় কলকাতা নাইট রাইডার্স। তবে মাত্র একটি ম্যাচ খেলার সুযোগ পান তিনি। এরপর তাঁকে ছেড়ে দেয় কলকাতা। ২০১৬ সালে তাঁকে ৮০ লাখ টাকায় দলে নেয় কিংস ইলেভেন পঞ্জাব। তবে সেখানেও দাগ কাটতে ব্যর্থ হন তিনি। এই মরশুমে অবিক্রীত।

cariappafinal

 

৩। নাথু সিং

গত বছর প্রায় সাড়ে তিন কোটি টাকায় তাঁকে দলে নেয় মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। তবে টুর্নামেন্ট শুরু হওয়ার আগে চোট পাওয়ার ফলে একটিও ম্যাচ খেলতে পারেননি তিনি। ঘরোয়া ক্রিকেটেও তেমন কোনো দাগ কাটতে না পারার ফলে তাঁকে ছেড়ে দেয় মুম্বই।

nathufinal

 

৪। অনিকেত চৌধুরী

গত আইপিএলের অন্যতম চর্চিত নাম ছিলেন তিনি। ২ কোটি টাকায় তাকে ঘরে তোলে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স। তবে মাঠে নিজের নামের হয়ে সুবিচার করতে পারেননি তিনি। পাঁচ ম্যাচে পাঁচ উইকেট তাঁর। ইকনমি ৮.৫৫। যার ফলে দল থেকে বাদ পড়েন। ঘরোয়া লিগে তেমন কিছু না করতে পারলেও, সৈয়দ মুস্তাক আলি টুর্নামেন্টে নিজের দল রাজস্থানকে ফাইনালে তোলার ফলে, তিরিশ লাখ টাকায় ফের তাঁকে দলে নেয় বেঙ্গালুরু। এখন দেখার নিজের পারফর্মেন্সে কেমন ছাপ তিনি রাখতে পারেন।

aniketfinal

 

৫। একলব্য দ্বিবেদি

২০১৬ সালে উত্তর প্রদেশের হয়ে সৈয়দ মুস্তাক আলি টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ রান তাঁর। যার ফলে তাঁকে এক কোটি টাকায় দলে নেয় আইপিএলের প্রাক্তন দল গুজরাত লায়ন্স। তবে সুযোগ পেলেও দাগ কাটতে ব্যর্থ হন তিনি। যার ফলে তাঁকে দলে রাখেনি গুজরাত। এই মরশুমে নিলামে অবিক্রীত থেকে যান তিনি।

eklavyafinal

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here