narine2-ipl

ওয়েবডেস্ক: কলকাতার সমর্থকদের ভেঙে পড়া মন তাজা করে দিল আইপিএল। তাঁরা পরের দিন আবার মহা উৎসাহে প্রিয় দলের খেলা দেখবেন।

আইপিএলে জয়ে ফিরল কলকাতা নাইট রাইডার্স। শনিবার ইন্দোরে ডু অর ডাই ম্যাচে তারা হারাল কিংস ইলেভেন পঞ্জাবকে। টসে জিতে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় পঞ্জাব। ব্যাট করতে নেমে অবশ্য ধীরে চল নীতিতে এগানোর চেষ্টা করে নারিনরা। তবে যত সময় যায় ভয়ঙ্কর হতে থাকেন নারিন এবং ক্রিস লিন। ক্রমাগত আক্রমণে গতি বাড়াতে থানে তারা। বাংলায় একটা কথা প্রচলিত আছে সকালটা দেখলে বোঝা যায় দিনটা কেমন যাবে। সেটাই প্রমাণিত হল শেষ পর্যন্ত।

প্রথম উইকেটে পঞ্চাশ রানের পার্টনারশিপ করেন এই জুটি। অবশ্য শেষমেশ আউট হয়ে যান লিন। ষষ্ঠ ওভারের তাঁকে ফিরিয়ে দেন টায়। উইকেট হারিয়েও ক্রমাগত রান করতে থাকে কেকেআর। সৌজন্যে দলের অন্যতম তারকা খেলোয়াড় সুনীল নারিন। ২৬ বলে দুর্ধর্ষ অর্ধশতক করেন তিনি। দ্বিতীয় উইকেটেও উত্থাপাকে সঙ্গী করে পঞ্চাশ পার্টনারশিপ নারিনের। যত সময় নারিন ঝড় অব্যাহত থাকে। তবে শেষমেশ সেই টায়ের কাছেই আটকে যান নারিন। ৭৫ রানের তাঁর এই ইনিংস অনেকদিন মনে রাখবে কেকেআর সমর্থকরা। টায়ের তৃতীয় উইকেটে ফিরে যান উত্থাপাও। এদিনও ব্যর্থ হলেন তিনি। অবশ্য উইকেট হারিয়েও রানের ঝড় কমেনি কেকেআরের। আন্দ্রে রাসেলকে সঙ্গী করে এগোতে থাকেন অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক। চলতি আইপিএলে প্রথম অর্ধশতক করেন তিনি। শেষ দিকে এই দু’জন আউট হয়ে গেলেও, রানা এবং গিলের ব্যাটিংয়ে ২৪৫/৬ শেষ করে নাইটরা।

narinelynn

আরও পড়ুন: ২৪৫, আইপিএলে কত নম্বরে কেকেআরের ইনিংস?

ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই আক্রমণ শানাতে থাকে পঞ্জাব। সৌজন্যে কেএল রাহুল এবং ক্রিস গেল। ক্রমাগত বিপদজনক হতে থাকে এই জুটি। তবে শেষমেশ ষষ্ঠ ওভারে রাসেলের বলে আউট হন ক্রিস গেল। এর রেশ কাটতে না কাটতে ফের উইকেট হারায় পঞ্জাব। রাসেলের বলে ফিরে যান নতুন আসা আগ্রবাল। ক্রমাগত উইকেট হারাতে থাকে পঞ্জাব। তৃতীয় উইকেট রাসেলের। আউট হন নায়ার। তবে উইকেট হারিয়েও এগোতে থাকে পঞ্জাব। সৌজন্যে অধিনায়ক কেএল রাহুল। রান-রেটকে মাথায় রেখে এগোতে থাকেন তিনি। কিন্তু বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি তাঁর এই মারমুখী ইনিংস। নারিনের কাছে বোল্ড হয়ে যান তিনি। নতুন আসা অক্ষর প্যাটেল কিছুটা চেষ্টা করলেও, টিকে থাকতে পারেননি। কুলদীপ যাদবের বলে আউট হন। তবে যখন মনে হচ্ছিল ম্যাচ প্রায় কেকেআরের পকেটে, তখনও লড়াই বাকি ছিল। শেষদিকে ফিঞ্চ, অশ্বিন এবং টায়ের লড়াইকে কিন্তু কুর্নিশ জানাতেই হবে। ৩১ রানে ম্যাচ জিতে আপাতত লিগ টেবিলে চতুর্থ স্থানে উঠে এলো নাইটবাহিনী।

প্রশ্ন একটাই, আগের দিন মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে কেন যে এদিনের পঞ্জাবের মতো লড়ে হারলো না কেকেআর! আত্মসমর্পণ কি করতেই হত!

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here