kkrdineshsrh

ওয়েবডেস্ক: আইপিএলের জয় অব্যাহত কলকাতা নাইট রাইডার্সের। শনিবার গ্রুপের শেষ ম্যাচে তারা হারাল লিগের শীর্ষে থাকা সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে। ফলে ১৪ ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে, তৃতীয় দল হিসাবে প্লে-অফে নিজেদের স্থান নিশ্চিত করল দীনেশ কার্তিকরা। অর্থাৎ ঘরের মাঠে এলিমিনেটর এবং তার সঙ্গে দ্বিতীয় প্লে-অফ খেলারও সুযোগ পাবে কলকাতা নাইট রাইডার্স।

এ দিন অবশ্য টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন হায়দরাবাদ অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। শুরুটা ভালোই করে তারা সৌজন্যে শিখর ধাওয়ান এবং শ্রীবৎস গোস্বামী। যত সময় যায় রান করতে থাকে এই জুটি। প্রথম উইকেটে পঞ্চাশ রানের পার্টনারশিপ এই জুটির। তবে নাইটদের স্পিন বোলিংকে লিগের কেন সেরা ধরা হয় ফের তা প্রমানিত। গত ম্যাচের নায়ক কুলদীপের বলে আউট হন গোস্বামী। উইকেট হারিয়েও পিছিয়ে পড়েনি তারা। ধাওয়ানের সঙ্গে ভালোই এগোতে থাকেন নতুন আসা অধিনায়ক উইলিয়ামসন। এদিনও নিজের নামের প্রতি সুবিচার করলেন তিনি। অবশ্য সিয়াসেলের বলে ফিরে যেতে হয় তাঁকে। এরই মাঝে নিজের অর্ধশতক পূর্ণ করেন ধাওয়ান। সেট হয়ে যাওয়া ধাওয়ানকে ফিরিয়ে দিয়ে নাইটদের ম্যাচে ফিরিয়ে আনেন নাইটদের তরুণ তুর্কি প্রসিদ কৃষ্ণ। এরপর অবশ্য আর ফিরে তাকাতে হয়নি কলকাতাকে। ক্রমাগত উইকেটে হারাতে থাকে হায়দরাবাদ। একসময় মনে হচ্ছিল দুশো পার করে যাবে তারা। কিন্তু কৃষ্ণর বোলিংয়ের সৌজন্যে ১৭২/৯ শেষ করে হায়দরাবাদ।

বড়ো টার্গেটকে মাথায় রেখে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক কলকাতা। সৌজন্যে ক্রিস লিন এবং সুনীল নারিন। ক্রমাগত ঝড় তুলতে থাকে এই জুটি। তাঁদের পঞ্চাশ রানের পার্টনারশিপে অনেকটাই চাপ মুক্ত হয়ে যায় নাইটবাহিনী। অবশ্য চতুর্থ ওভারে নারিনকে ফিরিয়ে দেন কলকাতা দলে তাঁর প্রাক্তনী শাকিবুল হাসান। উইকেট হারিয়েও পিছিয়ে থাকেনি কেকেআর। লিনের বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ে ভর করে এগোতে থাকেন তাঁরা। তাঁকে যোগ্য সঙ্গ দেন রবিন উত্থাপাও। দ্বিতীয় উইকেটেও পঞ্চাশ রানের পার্টনারশিপ জুটির। এরপর যত সময় যায় ম্যাচ নিজেদের আধিপত্য রাখতে শুরু করে নাইটরা। অর্ধশতক করেন লিনও। শেষ দিকে এই দু’জন আউট হয়ে গেলেও, অধিনায়ক দীনেশ কার্তিকের বিশ্বস্ত ব্যাটিংয়ে জয়ের গন্ধ পেয়ে যায় কলকাতা।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here