kkr-ipl

ওয়েবডেস্ক: আইপিএলে জয় অব্যাহত রাখল কলকাতা নাইট রাইডার্স। বুধবার অ্যাওয়ে ম্যাচে তারা হারাল রাজস্থান রয়্যালসকে।  এদিন টসে জিতে প্রথমে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় কেকেআর। রয়্যালসকে চাপে রেখে বোলিংয়ে শুরুটা ভালোই করে দীনেশ কার্তিকরা। তবে ধীরে ধীরে আক্রমণে ফিরতে থাকে রাজস্থানও। সৌজন্যে রাহানে এবং ডি শর্টের জুটি। যত সময় যায়, আক্রমণ বাড়াতে থাকে এই জুটি। সপ্তম ওভারে রাহানেকে স্টাম্প আউট করে এই জুটি ভেঙ্গে দেন, কেকেআর অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক। নতুন আসা সঞ্জু স্যামসনও বেশিক্ষণ টিকে থাকতে পারেননি। তাঁকে ফিরিয়ে দেন কেকেআরের অন্যতম প্রতিভাবান খেলোয়াড় শিবম মাভি। দু’উইকেট হারিয়েও, রান রেটকে মাথায় রেখে এগোতে থাকে রাজস্থান। সৌজন্যে ক্রিজে সেট হয়ে যাওয়া ব্যাটসম্যান ডি শর্ট। তাঁকে ফিরিয়ে দিয়ে কেকেআরে স্বস্তি ফেরান নীতীশ রানা। এদিন অবশ্য বোলিংয়ে তেমন দাগ কাটতে পারলেন না কেকেআরের নয়নের মণি, সুনীল নারিন। তবে তাঁর অভাব কিন্তু পুষিয়ে দিলেন চাওলা, যাদবরা। শেষ দিকে কুরানের ভালো বোলিংয়ের সৌজন্যে, ১৬০/৮ আটকে যায় রাজস্থান রয়্যালসের ইনিংস।

ব্যাট করতে নেমে অবশ্য শুরুতেই ধাক্কা খায় নাইটরা। শূন্য রানে আউট হন নাইটদের ওপেনের অন্যতম ভরসা ক্রিস লিন। উইকেট হারিয়ে এবং রাজস্থানের ভালো বোলিংয়ের ফলে কিছুটা চাপে পড়ে যায় কলকাতা। তবে ধীরে ধীরে ম্যাচে ফেরার ইঙ্গিত দেয় কেকেআর। সৌজন্যে সুনীল নারিন। বোলিংয়ে না হলেও ব্যাটিংয়ে নিজের ঝড় দেখাতে থাকেন তিনি। তাঁকে যোগ্য সঙ্গ দেন রবিন উত্থাপা। যত সময় এগোতে থাকে, আক্রমণের গতি বাড়াতে থাকে এই জুটি। অবশ্য নিজেদের ভুল বোঝাবুঝির কারণে, ভেঙ্গে যায় এই পার্টনারশিপ। আউট হন নারিন। উইকেট হারিয়েও কেকেআরের আক্রমণ একই ভাবে চলতে থাকে। রান রেটকে মাথায় রেখে আক্রমণ করে যান উত্থাপা। কিন্তু অর্ধশতক করার আগেই তাঁকে ফিরিয়ে দেন গথাম। অনবদ্য ক্যাচ নেন রাজস্থানের অলরাউন্ডার বেন স্টোকস। তবে তিন উইকেট হারিয়ে আর পিছন ফিরে তাকাতে হয়নি কলকাতাকে। অধিনায়ক কার্তিক এবং নীতীশ রানার পার্টনারশিপে ভর করে জয়ের লক্ষ্যমাত্রায় পৌঁছে যায় তারা। ম্যাচের সেরা রানা।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here