নয়াদিল্লি: শাড়ি নয়, অমরনাথ যাত্রায় পরুন শালোয়ার-কামিজ অথবা প্যান্ট-শার্ট কিংবা ট্র্যাক স্যুট। মহিলা তীর্থযাত্রীদের এমনই পরামর্শ দিয়েছে অমরনাথ শ্রাইন বোর্ড। বোর্ড জানিয়ে দিয়েছে, ১৩ বছরের নীচে এবং ৭৫ বছরের উপরে কাউকে অমরনাথ যাত্রায় যোগ দিতে দেওয়া হবে না। শুধু তা-ই নয়, মহিলারা ৬ সপ্তাহের বেশি সময় ধরে গর্ভবতী হলে যাত্রার অনুমতি পাবেন না।

অমরনাথ যাত্রা শুরু হবে ২৯ জুন, চলবে ৭ আগস্ট পর্যন্ত। বালতাল ও চন্দনবাড়ি  দু’ দিক থেকেই যাত্রা চলবে। যাত্রার রেজিস্ট্রেশন শুরু হয়েছে বুধবার থেকে। সারা দেশ জুড়ে পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক, জে অ্যান্ড কে ব্যাঙ্ক এবং ইয়েস ব্যাঙ্কের ৪৩৩টি শাখায় রেজিস্ট্রেশন করা যাবে। রেজিস্ট্রেশন পদ্ধতি বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে অমরনাথ শ্রাইন বোর্ডের ওয়েবসাইট www.shriamarnathjishrine.com –এ। এতে আবেদনপত্র রয়েছে এবং বিভিন্ন রাজ্যের ওই তিনটি ব্যাঙ্কের যে শাখাগুলির মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন করা যাবে তার তালিকা দেওয়া হয়েছে বলে বোর্ডের চিফ একজিকিউটিভ অফিসার পি কে ত্রিপাঠী জানিয়েছেন। ব্যাঙ্কের প্রতিটি শাখা দিনে কতগুলি রেজিস্ট্রেশন করতে পারে তার কোটা নির্ধারিত আছে। ‘আগে এলে, আগে পাবেন’ ভিত্তিতে যাত্রীদের রেজিস্ট্রেশন করা হচ্ছে।   

caveযাত্রা পারমিট পেতে হলে রেজিস্ট্রেশনের সময় কম্পালসারি হেলথ সার্টিফিকেট (সিএইচসি) জমা দিতে হবে। সিএইচসি-র ফরম্যাট ওয়েবসাইটে দেওয়া আছে।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের প্রচারিত এক বিবৃতিতে বোর্ড বলেছে, জম্মু-কাশ্মীরের ওই অঞ্চলে যাঁরা ওই কঠিন যাত্রায় যোগ দিতে চান তাঁদের যেন যথেষ্ট গরম জামাকাপড় থাকে, কারণ তাপমাত্রা কখনও কখনও ৫ ডিগ্রির সেলসিয়াসের নীচেও নেমে যেতে পারে।

বোর্ড বলেছে, “যাত্রা অঞ্চলের আবহাওয়া অনিশ্চিত। তাই ছাতা, উইন্ডচিটার, রেনকোট, ওয়াটারপ্রুফ জুতো সঙ্গে নিয়ে চলুন। যাতে ভিজে না যায়, তার জন্য খাবারদাবার আর পোশাকআশাক ওয়াটারপ্রুফ ব্যাগে বহন করুন।

আইডেন্টিটি কার্ড, ড্রাইভিং লাইসেন্স, যাত্রা পারমিট যাত্রীদের কাছে রাখার পরামর্শ দিয়েছে বোর্ড। বোর্ড বলেছে, “পোর্টারদের কাছে মালপত্র দিয়ে বা ঘোড়ায় মাল চাপিয়ে এক সঙ্গে দল বেঁধে চলুন। সবাই দৃষ্টিসীমানার মধ্যে থাকুন। কেউ যেন বিচ্ছিন্ন হয়ে না যান।”

lingamআরও কিছু পরামর্শ দিয়েছে বোর্ড –

১। নির্ধারিত পথ দিয়ে চলুন। যেখানে সতর্কীকরণ নোটিশ দেওয়া থাকবে, সেখানে দাঁড়াবেন না।

২। খালি পায়ে হাঁটবেন না বা চটি পরবেন না। শুধুমাত্র লেস দেওয়া ট্রেকিং জুতো পরুন।

৩। শর্ট কাট করবেন না, বিপদ হতে পারে।

৪। খালি পেটে হাঁটা শুরু করবেন না, শরীর খারাপ হতে পারে।

৫। গুহায় দর্শনের সময় শিবলিঙ্গের উদ্দেশে পয়সা, নোট, চুন্নি, পিতলের লোটা বা অন্য কোনো জিনিস ছুড়বেন না।

৬। গুহায় রাত কাটাবেন না।

৭। বিকেল ৩টের পরে পতঞ্জলি শিবির থেকে লিঙ্গ দর্শনের জন্য রওনা হবেন না। কারণ সন্ধে ৬টার পর দর্শন বন্ধ হয়ে যায়।

৮। একটা কাগজে নিজের নাম, ঠিকানা ও মোবাইল নম্বর লিখে জামার পকেটে রেখে দিন।

৯। গোটা যাত্রাপথে লঙ্গরে বিনা মুল্যে খাবার পাওয়া যাবে। বোর্ডের ওয়েবসাইটে যে খাদ্যতালিকা দেওয়া আছে, সেই অনুযায়ী খাদ্য গ্রহণ করুন।

১০। জম্মু-কাশ্মীরে অন্য রাজ্যের প্রি-পেড সিম কার্ড চলে না। যাত্রীরা ইচ্ছা করলে বালতাল ও নুনয়ানের বেস ক্যাম্পে প্রি-অ্যাক্টিভেটেড সিম কার্ড কিনে নিতে পারেন।    

কোনো রকম পলিথিন পণ্য আনার ব্যাপারে যাত্রীদের সতর্ক করে দিয়েছে বোর্ড। কারণ গোটা জম্মু-কাশ্মীরে পলিথিনের ব্যবহার নিষিদ্ধ এবং আইনত দণ্ডনীয়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here