খরগোন (মধ্যপ্রদেশ) : ছাপার ভুল এত দিন দেখা যেত সংবাদপত্রে, পাঠ্যবইয়ে কিংবা ম্যাগাজিনে। এ বার সে দলে নাম লেখাল ভারতের নতুন নোট। দিন কয়েক আগেই মধ্যপ্রদেশের ব্যাঙ্কে মিলেছিল গান্ধীজির ছবি ছাড়া ২০০০ টাকার নোট। এ বার মিলল ৫০০ টাকার নোট, যার এক পিঠে ছাপা নেই কিছুই। সম্প্রতি পার্লামেন্টে চিঠি দিয়ে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক স্বীকার করেছে, নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত হয়েছে কেন্দ্রের ইচ্ছেতেই। কিন্তু সাত পৃষ্ঠার একটা চিঠি দিয়েই কি সব দায় এড়ানো যায়? দেশের যাবতীয় নোট ছাপানোর একচ্ছত্র অধিকার তাদের হাতেই। অথচ তাদের দায়িত্বজ্ঞানহীনতার খেসারত দিতে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে।

মঙ্গলবার রাতে মধ্যপ্রদেশের খরগোন জেলার বাসিন্দা হেমন্ত সোনি তার গ্রামের এক এটিএম থেকে ১৫০০ টাকা তোলেন। রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের এটিএম। টাকা তোলার পর হেমন্তবাবু দেখেন ৩টি ৫০০ টাকার নোটের মধ্যে ২টির-ই এক পিঠে কিছু ছাপা নেই। সংশ্লিষ্ট ব্যাঙ্কে অভিযোগ জানান হেমন্তবাবু। নোট বদলে দেওয়া হলেও ব্যাঙ্কের আধিকারিকরা জানিয়েছেন, রিজার্ভ ব্যাঙ্ক থেকেই টাকা আসে তাঁদের ব্যাঙ্কে, অতএব গাফিলতি তাদেরই। এর পর থেকে টাকা নেওয়ার আগে দেখে নেবেন, এই আশ্বাস দেন ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ।

গত সপ্তাহে মধ্যপ্রদেশের এক চাষি ব্যাঙ্ক থেকে ২০০০ টাকা তুলে পরে খেয়াল করেন নোটে নেই গান্ধীজির ছবি। এ ক্ষেত্রেও ব্যাঙ্ক থেকে বদলে দেওয়া হয় নোট। গান্ধীজির ছবি না থাকার কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে ব্যাঙ্ক ম্যানেজার বলেন, কোনো কারণে ছাপার ভুল হয়ে থাকতে পারে। 

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here