হায়দরাবাদ: পুরোপুরি পালটি খেয়ে গেলেন তিনি। নিজেই জানিয়েছিলেন সংবাদমাধ্যমকে, সরকারের বিমুদ্রাকরণ নীতি গ্রহণের পেছনে রয়েছে তাঁর অবদান। এ বার উলটো সুরে গাইলেন বিজেপির সহযোগী তেলেগু দেশম দলের নেতা চন্দ্রবাবু নাইডু। অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী মঙ্গলবার বিজয়ওয়াড়ায় দলের এক অনুষ্ঠানে বলেন, নোট বাতিলের ফলে সাধারণ মানুষের যে পরিমাণ হয়রানি হচ্ছে, তা অবসানের কোনো চিহ্নই তিনি দেখতে পাচ্ছেন না।

চন্দ্রবাবু বলেন, “বিমুদ্রাকরণ আমরা স্বেচ্ছায় করিনি, এটা হয়ে গেছে। নীতি ঘোষণার পর ৪০ দিন কেটে গেলেও আমাদের আপ্রাণ চেষ্টা সত্ত্বেও সংকটজনক পরিস্থিতি থেকে বেরোনোর কোনো সমাধান আমরা খুঁজে পাচ্ছি না।”

সম্প্রতি দেশকে নগদহীন অর্থনীতির পথে ‘এগিয়ে’ নিয়ে যাওয়ার জন্য দেশের মুখ্যমন্ত্রীদের নিয়ে গড়া কমিটির প্রধান হিসেবে নিয়োগ করা হয়েছে অন্ধ্র প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীকেই। অথচ সেই চন্দ্রবাবু দেশের বর্তমান পরিস্থিতির সঙ্গে তুলনা করেছেন ১৯৮৪-এর রাজনৈতিক সঙ্কটের। তিনি আরও বলেছেন, সেই সময় ৩০ দিনের মধ্যে সামলানো গিয়েছিল পরিস্থিতি, এ বারের সমস্যা আরও গভীর।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here