বেঙ্গালুরু: ন্যাথান নিয়ন পারলেন কিন্তু রবিচন্দ্রন অশ্বিন পারলেন না। অন্য দিকে অস্ট্রেলীয় ব্যাটসম্যানরা যেটা করলেন, সেটা করতে ব্যর্থ ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা। নিট ফল, টেস্টের দ্বিতীয় দিন সিরিজে ২-০-তে পিছিয়ে যাওয়ার ভয় এখন বিরাটবাহিনীর সামনে।

নিঃসন্দেহে টেস্ট অধিনায়ক হওয়ার সব থেকে খারাপ সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন অধিনায়ক কোহলি। এমন দিন দেখতে হবে, তা-ও অপেক্ষাকৃত দুর্বল অস্ট্রেলীয় লাইন-আপের সামনে, সেটা দুঃস্বপ্নে ভাবতে পারেননি তিনি। মাত্র ১৪০ রান পিছিয়ে থাকলেও ঘূর্ণি পিচে খেল দেখাবেন অশ্বিন, এই আশা নিয়েই টিভির সামনে বসেছিলেন ভারতের ক্রিকেটপ্রেমীরা। শুরুটা মন্দও হয়নি। ওয়ার্নারকে ফিরিয়ে বিপক্ষ শিবিরে প্রথম ধাক্কা দেন অশ্বিন। আরও একটু স্বস্তির হাওয়া নিয়ে আসেন জাদেজা, প্রথম টেস্টে শতরানকারী স্মিথকে ফিরিয়ে। কিন্তু এর পরই একটা ভালো পার্টনারশিপ তৈরি হয়ে যায় রেনশ এবং শন মার্শের মধ্যে। ভারত সফরে আসার আগে দুবাইতে দিন কয়েকের ট্রেনিং যে কতটা কাজে দিয়েছে সেটা প্রমাণ দেন এই দুই ব্যাটসম্যান।

পিচ কামড়ে পড়ে থেকে সন্তর্পণে ভারতীয় বোলারদের সামলে অস্ট্রেলিয়ার স্কোর এগিয়ে নিয়ে যান এই দুই ব্যাটসম্যান। ফের এক বার স্বস্তি দেন জাদেজা, রেনশকে ফিরিয়ে। হ্যান্ডস্কোম্ব এবং মিচেল মার্শ দ্রুত ফিরে যেতে কিছুটা চাপে পড়লেও, সে চাপ থেকে দ্রুত বেরোয় অজিরা। সৌজন্যে শন মার্শ এবং মাথ্যু ওয়েড। দিনের একেবারে শেষ লগ্নে যাদবের বলে মার্শ ফিরলেও ততক্ষণে ভারতের স্কোর পেরিয়ে গিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। দিনের শেষে অস্ট্রেলিয়ার স্কোর ছ’উইকেটে ২৩৭। এখনই ৪৮ রানে এগিয়ে। প্রথম ইনিংসে একশো রানে এগিয়ে গেলেই বিশাল চাপে পড়বে ভারত।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন