বার্সেলোনা: রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস এবং নিষেধাজ্ঞা অবজ্ঞা করে মাসখানেক আগে গণভোটে অংশ নিয়েছিলেন কাতালোনিয়ার মানুষ। স্বাধীনতার সমর্থনে সেই নির্বাচনে ভোট পড়েছিল ৯০ শতাংশ। তখনই কাতালোনিয়ার নেতারা বলে দিয়েছিলেন কিছু দিনের মধ্যেই কাতালোনিয়াকে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণা করা হবে। সেই দিন এসে গেল।

শুক্রবারই কাতালানকে স্বাধীন ঘোষণা করে প্রস্তাব পাশ করেছে কাতালোনিয়ার আঞ্চলিক সংসদ। এই ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গেই তাকে বেআইনি আখ্যা দিয়েছে স্পেন সরকার। কাতালোনিয়ার স্বশাসন কেড়ে নিয়ে এখন সরাসরি শাসন ঘোষণা করার অপেক্ষায় স্পেন।

এমনিতে কাতালোনিয়া অঞ্চলকে স্বায়ত্বশাসন দিয়ে রেখেছে স্পেন সরকার। সেই স্বায়ত্বশাসন তুলে দেওয়ার ব্যাপারে চর্চা করার জন্য প্রস্তাব পাশ করেছে মাদ্রিদের সেনেট। এ দিন কাতালান সংসদ স্বাধীনতা ঘোষণা করার পরেই টুইটারে স্পেনের প্রধানমন্ত্রী মারিয়ানো রাখোয় বলেন, “সমস্ত স্পেনবাসীর কাছে আমি শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রাখার আবেদন করছি। কাতালোনিয়ায় আইনের শাসনের প্রতিষ্ঠা হবেই।”

যে প্রস্তাব এ দিন কাতালোনিয়ার আঞ্চলিক সংসদে পেশ করা হয়, সেখানে মূল দাবি ছিল নতুন ভাবে কাতালোনিয়ার আইন তৈরি করা এবং স্বাধীনতার ব্যাপারে যুদ্ধকালীন পরিস্থিতিতে স্পেন সরকারের সঙ্গে আলোচনা শুরু করা। এই প্রস্তাবের পক্ষে এ দিন ভোট দেন ৭০ জন সাংসদ, বিপক্ষে ভোট পড়ে মাত্র দশটি।

তবে স্বাধীনতা আদায় করা যে আদৌ সহজ হবে না এবং তার অন্য এখনও অনেক লড়াই করতে হবে তা বিলক্ষণ জানেন কাতালান নেতারা। অন্য দিকে রাখোয় বলেন, কাতালানের নেতারা আইনকে অবজ্ঞা করছে, তাই কাতালোনিয়ায় দেওয়া স্বশাসন তুলে নেওয়া হবে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here