ইসলামাবাদ:  ভারতের পর এ বার প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তান। বিমুদ্রাকরণের পথে নওয়াজ শরিফের দেশ। দেশে কালো টাকার রমরমা রুখতে বাতিল হতে চলেছে ৫০০০ টাকার নোট। পাক সংবাদপত্র ‘ডন’-এ প্রকাশিত হওয়া খবর অনুযায়ী ইতিমধ্যে নোট বাতিলের প্রস্তাব পাশ হয়েছে পার্লামেন্টের উচ্চ কক্ষে। পাকিস্তান মুসলিম লিগের সদস্য উসমান সয়িফউল্লাহ খান গত সোমবার প্রথম বিমুদ্রাকরণের প্রস্তাব তোলেন উচ্চ কক্ষ সেনেটে। পরে সেনেটের একাধিক সদস্য এই প্রস্তাব সমর্থন করেন।

সেনেট সদস্যরা মনে করছেন, পুরোনো ৫০০০ টাকার নোট বাতিল করলে বহু নতুন অ্যাকাউন্ট খোলা হবে সারা দেশ জুড়ে। তিন থেকে পাঁচ বছরের মধ্যে বিভিন্ন খেপে বাজার থেকে উচ্চ মূল্যের নোট তুলে নেওয়ার  উল্লেখ রয়েছে প্রস্তাবে। পাকিস্তানের আইনমন্ত্রী জাহিদ হামিদ অবশ্য নোট বাতিলের সিদ্ধান্তকে সমালোচনা করে বলেছেন, সরকারের এই সিদ্ধান্তের ফলে দেশের নাগরিকরা বিদেশি মুদ্রায় লেনদেন করতে বাধ্য হবেন।

ভারতে নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে নোট বাতিলের ঘোষণা করার ৪ ঘণ্টার মধ্যেই কার্যকর হয় তা। সে ক্ষেত্রেও কালো টাকা ধরারই যুক্তি দিয়েছিল কেন্দ্র।  অন্য দিকে গত সপ্তাহে ভেনিজুয়েলার প্রেসিডেন্ট বিমুদ্রাকরণের ঘোষণা করার পর দেশ জুড়ে বিক্ষোভ হওয়ায় সাময়িক ভাবে স্থগিত রয়েছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here