papiya mitra
পাপিয়া মিত্র

শীতকালভর খুব ব্যস্ত ওরা। কোথাও আঁকার জন্য আবার কোথাও বা দৌড় প্রতিযোগিতা। কোথাও বা পিকনিক। তাও তার আগেপিছে আছে জানুয়ারি মাসের নানা দিনের উৎসব পালন। ঋতু পরিবর্তনের আনন্দ-বেদনায় ওদের অনুভূতি সাড়া দেয় না। পরিবার শীতপোশাক পরিয়ে দিলে তবেই বোঝে শীত এসেছে। আর এই শীতেই ওরা সাদা পাতায় ফুটিয়ে তুলেছে নানা ছবি। আয়োজক ‘ডিভাইন স্মাইল’।

বেহালা জনকল্যাণ ও জেমস্‌ লং সরণির সংযোগস্থলে ‘সব পেয়েছির আসর’-এ অনুষ্ঠিত হল সম্প্রতি বসে আঁকো প্রতিযোগিতা। ৬৯ জন প্রতিযোগী যোগ দিয়েছিল। ভবানীপুর, চড়কতলা, নিউ আলিপুর, তারাতলা, কবরডাঙা ও বেহালা থেকে মোট ন’টি সংস্থার শিক্ষার্থীরা যোগ দিয়েছিল। সঙ্গে ছিলেন শিক্ষিক ও অভিভাবকেরাও। বিশেষ মানুষগুলোকে সমাজের মুল স্রোতে আনার এক নিরন্তর লড়াই চালিয়ে চলেছে বিভিন্ন সংস্থা।

an initiative of divine smile দীর্ঘ ৩২ বছর ধরে ডিভাইন স্মাইল-এর কর্ণধার মায়া বিশ্বাস এগিয়ে নিয়ে চলেছেন তাঁর সংস্থাকে। মায়াদেবীর কথায়, এখানে প্রতিযোগিতা বলে কিছু নেই। সবাইকে পুরস্কার ও খাদ্যসামগ্রী দেওয়া হয়েছে। তিনি মনে করেন, নানা অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে বিভিন্ন সংস্থার বাচ্চাদের মিলিত করা একটা ‘পুনর্মিলন উৎসবের’ মতো। এখানে এক পরিবার অন্য পরিবারের সঙ্গে মেশার সুযোগও পায়। প্রতি দিনের চার ঘণ্টার স্কুলে নানা কাজ শেখানোর জন্য ছ’জন শিক্ষক রয়েছেন মায়াদির সংস্থায়। বিশেষ মানুষগুলোর জন্য তাদের মতো করে পড়াশোনা, শরীরচর্চা, নাচ-গান-আঁকা ও হাতের কাজ শেখানো হয়।

differently abled persons took part in sit and drawমানসিক প্রতিবন্ধকতার বিরুদ্ধে মায়াদেবীর সংগ্রাম নিজের বাড়ি থেকেই। তিন পুত্রের শেষ মধ্যম ও ছোটো দুই পুত্র জড়বুদ্ধিসম্পন্ন। নানা চড়াই-উতরাইয়ের পরে আজ একটি নিজস্ব ছাদ হয়েছে ‘ডিভাইন স্মাইলের’। স্থায়ী আশ্রয়ের ঠিকানা ১৪, ব্রজমণি দেব্যা রোড, কলকাতা-৬১। এই দানটি পাওয়া গিয়েছে ব্যারাকপুরের সন্দীপ দাসের কাছ থেকে। কথা বলতে গিয়ে বারবার কৃতজ্ঞতা জানান সন্দীপবাবুকে, রোটারি ক্লাব ও নানা সংস্থাকে। প্রতিটি অনুষ্ঠানে কেউ না কেউ এগিয়ে এসেছেন নানা উপহারের ডালি নিয়ে। যে ন’টি সংস্থা এ বারে অঙ্কন প্রতিযোগিতায় নাম দিয়েছিল তারা হল বেহালা বিকাশন, নির্মল নিকেতন, ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিটিউট অফ সেরিব্রাল পালসি, নিউ আলিপুর মনোবিকাশ কেন্দ্র, ইনস্টিটিউট অফ হ্যান্ডিক্যাপড অ্যান্ড ব্যাকওয়ারড পিপল, সাউথ ক্যালকাটা আনন্দনিকেতন হোম, জয়শ্রী পার্ক উদ্ভাস স্প্যাস্টিক ওয়েলফেয়ার সোসাইটি, মম্‌স কেয়ার ও ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ মাদার অ্যান্ড চাইল্ড ওয়েলফেয়ার।

ছবি তাপস রায়

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন