কলকাতা: পশ্চিমবঙ্গের সমস্ত সরকারি হাসপাতালে চালু হচ্ছে ডিজিটাল ইনফরমেশন ব্যাঙ্ক অর্থাৎ তথ্য ব্যাঙ্ক। এই প্রকল্পের জন্য রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতর ইতিমধ্যেই লিখিত নির্দেশিকা জারি করেছে। পরিষেবাটি চালু হলে ডাক্তাররা রোগীর ব্যাপারে খুবই দ্রুত বিস্তারিত তথ্য পাবেন। এর ফলে সংশ্লিষ্ট ওই রোগীর কাছে দ্রুত চিকিৎসা পরিষেবা পৌঁছে দেওয়া যাবে। ইন্ডোর এবং আউটডোর দুই বিভাগেই এই পরিষেবা চালু করা হবে।

ইন্ডোর ও আউটডোরে ডাক্তার দেখানোর জন্য এ বার থেকে নিজের মোবাইল ফোনের নম্বর দিয়েই কাউন্টারে টিকিট কাটতে হবে রোগীদের। টিকিটের মাধ্যমে হাসপাতালে সেই রোগীর নাম, ঠিকানা নথিভুক্ত হয়ে যাবে, সেই সঙ্গে নথিভুক্ত হবে রোগীর রোগও। ডাক্তাররা কম্পিউটারের মাধ্যেমে খুব সহজে রোগীর সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য পেয়ে যাবেন। এই ধরনের পরিষেবা রাজ্যের বেশ কিছু বড়ো বেসরকারি হাসপাতালে আগে থেকেই ছিল। সেই পরিষেবাই এ বার সরকারি হাসপাতালেও চালু হতে চলেছে, সরকারি হাসপাতালগুলিকে আরও স্মার্ট করার উদ্দেশ্যে। পরিষেবাটি প্রথম চালু করা হবে কলকাতার দু’টি সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল এসএসকেএম আর কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে, এমনই জানা গিয়েছে স্বাস্থ্য দফতরের তরফ থেকে। ইতিমধ্যেই এসএসকেএম হাসপাতালের মানসিক বিভাগে এটি পরীক্ষামূলক ভাবে চালু করা হয়েছে।

কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের শিশুরোগ বিভাগের প্রধান ডঃ সুকান্ত দাস বলেন, “রোগীদের  তথ্য ব্যাঙ্ক চালু হলে খুব উপকার হবে। এক দিকে যেমন চিকিৎসা পরিষেবায় গতি আসবে, অন্য দিকে রোগী সংক্রান্ত তথ্যও থাকবে হাসপাতালে কাছে। অনেক সময় রোগীরা তাঁদের হাসপাতালে ভর্তি সংক্রান্ত কাগজপত্র হারিয়ে ফেলেন। এই ব্যাঙ্কের ফলে সেই তথ্য আবার ফিরে পাবেন রোগীরা। পাশাপাশি নার্সদের নির্দেশ দিতেও অনেক সুবিধা হবে।”

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here