jos buttler

ইংল্যান্ড: ৩০২-৬ (বাটলার ১০০ নট আউট, ওকস ৫৩ নট আউট, হ্যাজেলউড ২-৫৬)

অস্ট্রেলিয়া: ২৮৬-৬ (ফিঞ্চ ৬২, স্টয়নিস ৫৬, মার্শ ৫৫, উড ২-৪৬) 

সিডনি: টসে জিতে ফিল্ডিং নেওয়ার সময় স্টিভ স্মিথ নিশ্চয়ই বুঝতে পারেননি, এই ম্যাচেই সিরিজের ফয়সালা হয়ে যাবে। শেষ পর্যন্ত দুই ম্যাচ বাকি থাকতেই একদিনের সিরিজ পকেটে পুরে ফেলল ইয়ন মরগ্যানের দল। আপাতত তিন ম্যাচে তিন জয় ইংল্যান্ডের। অ্যাসেজ হারের মধুর প্রতিশোধ বলা যায়। অ্যাসেজ সিরিজে ইংল্যান্ড কার্যত হোয়াইটওয়াশ হয়েছিল। অস্ট্রেলিয়ার অনুকূলে ফল হয়েছিল ৪-০। একদিনের সিরিজে তারই বদলা নিচ্ছে ইংল্যান্ড। রবিবারের ম্যাচে ইংল্যান্ড জিতে গেল ১৬ রানে।

ইংল্যান্ডের এই জয়ের পিছনে মূল অবদান জোস বাটলারের। অস্ট্রেলিয়া টসে জিতে ব্যাট করতে পাঠায় ইংল্যান্ডকে। নিয়মিত ব্যবধানে উইকেট পড়তে থাকে তাদের। ১০৭ রানে ৪ উইকেট হারানোর পরে নামেন বাটলার। বাটলার শুরু করেছিলেন ধীরস্থির ভাবে। ১৮৯ রানে ইংল্যান্ডের ষষ্ঠ উইকেট পতনের পর বাটলারের সঙ্গী হন কেকেআরের খেলোয়াড় ক্রিস ওকস। দু’ জনে মিলে অস্ট্রেলিয়ার পেসারদের দুরমুশ করে রান অবিচ্ছিন্ন অবস্থায় দলের রান তুলে দেন ৩০২-এ।

অস্ট্রেলিয়া ৩০৩-এর টার্গেট নিয়ে খেলতে নামে। কিন্তু কখনোই মনে হয়নি তারা জয় ছিনিয়ে নিতে পারবে। ইংল্যান্ডের বোলারদের সম্মিলিত উদ্যোগের কাছে হার মানে অস্ট্রেলিয়া। ফিঞ্চ, স্টয়নিস আর মার্শ কিছুটা চেষ্টা করলেও তা শেষ পর্যন্ত কাজে আসেনি। ৬ উইকেটে ২৮৬ রানে তাদের ইনিংস থেমে যায়।

 

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন