ওয়েবডেস্ক: ভারত ও মায়ানমারের নাম উঠে এল ইসালমিক সন্ত্রাসবাদী সংগঠন আল-কায়দার নতুন হিটলিস্টে। আগামী কয়েক মাসের মধ্যে ঠিক কী কী পরিকল্পনা নিতে চলেছে ওই সংগঠন, সে বিষয়ে একটি পুস্তিকা প্রকাশ করা হয়েছে। যেখানে বলা হয়েছে, ভারতের নির্দিষ্ট কয়েকটি স্থানে খুব শীঘ্রই তারা আঘাত হানতে চলেছে। টেররমনিটর.ওআরজি-র করা ট্যুইটে এ খবর নজরে আসতেই নড়েচড়ে বসেছে গোয়েন্দা সংস্থাগুলিও। যদিও এধরনের পুস্তিকা নিয়ে এখনও কোনও উপযুক্ত তথ্য জোগাড় করা সম্ভব হয়নি। কিন্তু টেররমনিটরের ট্যুইট থেকেই স্পষ্ট ভারত সম্পর্কে আল-কায়দার একের পর এক হুমকির সুর ধরেই এ ধরনের পরিকল্পনাকে তারা বাস্তবায়িত করার আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যেতে পারে।

হাতে গোণা কয়েক দিন আগেই আল-কায়দার ভারতীয় শাখা ‘স্যাফরন টেরর’ নামে ভিডিওটির প্রথম পর্ব রিলিজ করেছে। ওই ভিডিও এবং সাম্প্রতিক প্রকাশিত পুস্তিকার সূত্র ধরেই গোয়ান্দারা উৎসে পৌঁছতে চাইছেন। তাঁদের কাছে খবর রয়েছে, সাধারণত বাছাই করা কয়েকটি বিশেষ ধর্মীয় স্থানে ওই সন্ত্রাসবাদী সংগঠন আঘাত হানতে পারে।এই কাজে সফল হতে স্থানীয় স্তরে ধর্মীয় ভাবাবেগকে হাতিয়ার করার পরিকল্পনার কথাও জানানো হয়েছে।

বেশ কিছু দিন শীতঘুমে কাটানোর পর আচমকা কেন ভারতের বিরুদ্ধে এতটা সক্রিয় হয়ে উঠল আল-কায়দা ?

গোয়েন্দাদের দাবি, সাম্প্রতিক কালের বিশ্বরাজনীতি যে অক্ষে আবর্তিত হচ্ছে তাতে যথেষ্ট উদ্বিগ্ন এই ধরনের সন্ত্রাসবাদী গোষ্ঠীগুলি।  আমেরিকার সঙ্গে ভারতের সুসম্পর্ক যে হারে গতিময়তা পেয়ে চলেছে তা দেখে এই সমস্ত সংগঠনগুলি বিচলিত বোধ করছে। এই দুই রাষ্ট্র বিশ্বজুড়ে সন্ত্রাসবাদের শিকড় উপড়ে ফেলার প্রকাশ্য হুঁশিয়ারি দেওয়ার পর স্বস্তির নি:শ্বাস ফেলতে পারছে না তারা। সব মিলিয়ে যে ভাবে হোক, ভারতের উপর আঘাত হেনে নিজেদের অস্তিত্ব জাহির করার পথ নিতে চাইছে আল-কায়দা।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here