cuttack india vs srilanka t20

ভারত ১৮০-৩ (রাহুল ৬১, ধোনি অপরাজিত ৩৯, অ্যাঞ্জেলো ১-১৯)

শ্রীলঙ্কা ৮৭ (থরঙ্গা ২৩, কুশল ১৯, চহ্বল ৪-২৩)

কটক: কোনো অঘটন ঘটল না। প্রথম টি২০-তে শ্রীলঙ্কাকে গুঁড়িয়ে দিয়ে সিরিজের অভিযান শুরু করল ভারত। টি২০-তে ভারতের সব থেকে বড়ো জয় এল। ম্যাচের প্রথম ভাগ যদি ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের হয়, তা হলে পরের ভাগ হবে ভারতের দুই লেগ স্পিনারের নামে।

বুধবার কটকে টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিং-এর সিদ্ধান্ত নেয় শ্রীলঙ্কা। শিশিরের কারণেই যে এই সিদ্ধান্ত, তা আন্দাজ করার জন্য বিশেষ ক্রিকেটবোদ্ধা হওয়ার প্রয়োজন নেই। শুরুটা ভালোই করেছিল ভারত। অনেক দিন পর সীমিত ওভারের ক্রিকেটে প্রত্যাবর্তন করে টেস্টের ফর্মের ঝলকই দেখাচ্ছিলেন রাহুল।

রাহুল এবং রোহিতের জুটি প্রথম পাঁচ ওভার নির্বিঘ্নে কাটিয়ে দেওয়ার পর পঞ্চম ওভারের শেষ বলে আউট হয়ে যান রোহিত। তিন নম্বরে নামেন একদিনের সিরিজে দুর্দান্ত খেলা শ্রেয়স আয়ার। শ্রেয়স এবং রাহুলের জুটিতে ৬৩ রান উঠলেও সেখানেও বেশি আক্রমণাত্মক ছিলেন রাহুলই। ইতিমধ্যে অর্ধশতরান করে ফেলেন তিনি।

টি২০-তে একটা শতরান রয়েছে রাহুলের। ঠিক যখন মনে হচ্ছিল আরও একটা শতরানের দিকে রাহুল এগোচ্ছেন তখনই তিনি আউট হয়ে যান। পর পর রাহুল এবং শ্রেয়সের উইকেট পড়ে যাওয়ায় ভারতের রানের গতিতে যেন ব্রেক লেগে যায়। চার নম্বরে নামা ধোনি এবং পাঁচ নম্বরে মনীশ, কেউই রান করতে পারছিলেন না। ঠিক যখন মনে হচ্ছিল এ বারও ব্যর্থ হবেন ধোনি, ঠিক তখনই জ্বলে ওঠে তাঁর ব্যাট। ধোনি এবং মনীশের জুটিতে শেষ চার ওভারে ৬১ রান তোলে ভারত। একটা সময়ে মনে হচ্ছিল কোনোক্রমে দেড়শো রানে শেষ করবে ভারত। কিন্তু ধোনি-মনীশের জুটিতে ১৮০-এর মতো সম্মানজনক স্কোরে পৌঁছে যায় ভারত।

১৮১ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে শুরুটা খারাপ করেনি শ্রীলঙ্কা। প্রথমেই ডিকওয়েলার উইকেট হারালেও পালটা একটা লড়াইয়ের চেষ্টা করেছিলেন থরঙ্গা এবং কুশল পেরেরা। কিন্তু শ্রীলঙ্কার লড়াই বলতে প্রথম পাঁচটা ওভার। পঞ্চম ওভারে চহ্বলের বলে থরঙ্গা আউট হতেই শ্রীলঙ্কার যাবতীয় জারিজুরি শেষ হয়ে যায়। ম্যাচে ক্রমশ প্রভাব বিস্তার করেন চহ্বল। তাঁকে যোগ্য সহায়তা দেন কুলদীপও। চহ্বল এবং কুলদীপের জুটিতে এক সময় সাত উইকেটে ৭০ রান ছিল শ্রীলঙ্কার। বাকি তিনটে উইকেট তুলে নেন হার্দিক পাণ্ড্য।

টি২০-তে ফলে অন্য রকম হবে, এ রকম আশঙ্কা কারও ছিল না। কিন্তু শ্রীলঙ্কা যে ভাবে অসহায় আত্মসমর্পণ করল সেটা ভাবা যায়নি। শুক্রবারের সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here