তেহরান: পালটা দিল ইরান। জানিয়ে দিল তারাও মার্কিন নাগরিকদের ইরানে ঢোকা বন্ধ করে দেবে। তবে কবে থেকে তা কার্যকর হবে তা স্পষ্ট করে বলেনি। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যে সাতটি মুসলিম-প্রধান দেশের মানুষদের মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ নিষিদ্ধ করে দিয়েছে, ইরান তাদের অন্যতম।

ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্দেশের পরিপ্রেক্ষিতে ইরানের বিদেশ মন্ত্রক একটি বিবৃতি প্রকাশ করেছে। তাতে বলা হয়েছে, “যতদিন ইরানের মানুষের ওপর এই মার্কিন নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে, তত দিন ইরানও পারস্পরিকতার নীতি অনুসরণ করে চলবে।” ওই বিবৃতিতে ইরান পালটা আইনি, রাজনৈতিক ও বাণিজ্যিক ব্যবস্থা নেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। তবে সেই ব্যবস্থাগুলো কী হবে তা বলেনি।

ইরানি বিদেশ মন্ত্রকের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “তিন মাসের জন্য অস্থায়ী ভাবে হলেও, মুসলিমদের মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়া ঠেকাতে সে দেশের সরকার যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তা মুসলিম বিশ্বের কাছে অপমানজনক, বিশেষ করে ইরানের মতো মহান রাষ্ট্রের কাছে তো বটেই।”

ট্রাম্পের নিষেধাজ্ঞা জারির খবর পাওয়ার পর ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রৌহানি বলেছে, “বিশ্বের বিভিন্ন রাষ্ট্রের মধ্যে দেওয়াল তোলার সময় এটা নয়। তারা ভুলে গিয়েছে, বার্লিনের দেওয়ালও এক দিন ভেঙে পড়েছিল।”

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here