young-woman-with-voter-card india

ওয়েবডেস্ক: ভোটার তালিকায় নাম তোলার প্রচারকে আরও জনপ্রিয় করে তুলতে এই প্রথম বার ফেসবুকের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধল নির্বাচন কমিশন। এই যৌথ উদ্যোগের প্রারম্ভিক পর্বে আঠারো-ছুঁইছুঁই যুবক-যুবতীদের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে ভোটার তালিকায় নাম তোলার জন্য রিমাইন্ডার পাঠানো হচ্ছে।

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ একটি বিবৃতিতে জানিয়েছেন, ২৮ নভেম্বর থেকে ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে যে সব ফেসবুক ব্যবহারকারীর জন্মদিন তাঁদের ওই বিশেষ দিনটিতে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানানো হচ্ছে। পাশাপাশি যাঁরা এ মাসের মধ্যেই ১৮ বছর পার করছেন তাঁদেরও ভোটার তালিকায় নাম নথিভুক্তিকরণের বার্তা পাঠানো হচ্ছে।

মোট ১৩টি ভাষায় এই বার্তা পাঠানো হচ্ছে। বাংলা-সহ ইংরাজি, হিন্দি, মরাঠী, কন্নড়, পঞ্জাবি, অসমীয়া, উর্দু, মালায়ালাম, তেলুগু, তামিল, গুজরাতি ও ওড়িয়া ভাষায় পাঠানো ওই বার্তার সঙ্গে থাকছে ‘রেজিস্টার নাও’ লিঙ্ক। যাতে ক্লিক করলেই সরাসরি পৌঁছোনো যাবে জাতীয় ভোটার সার্ভিস পোর্টালে। নাম নথিভুক্তিকরণের পরবর্তী ধাপগুলি সেখান থেকেই পাওয়া যাবে।

গত বছর কয়েকটি রাজ্যে এই ধরনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল। তবে জাতীয় স্তরে গত জুন মাসেই প্রথম বার সরকারি ভাবে ফেসবুক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগের কথা জানায় নির্বাচন কমিশন। কমিশন কর্তাদের কথায়, ফেসবুকের মতো সোশ্যাল  নেটওয়ার্কিং সাইট পাশে থাকায় আশানুরূপ ফল মিলবে বলেই মনে করা হচ্ছে। এ দেশে ১৮ কোটি বেশি মানুষ ফেসবুক ব্যবহার করে থাকেন। যাঁদের মধ্যে আবার কিশোর-কিশোরীদের সংখ্যাটাও নেহাতই কম নয়। ফলে ফেসবুক মারফত তাঁদের কাছে পৌঁছে যাওয়াটাও অনেক সহজ হবে।