padmavat karni sena

ওয়েবডেস্ক: কয়েকশো বছরের পুরোনো যে জহরব্রতকে মহিমান্বিত করার জন্য অনেকেই ‘পদ্মাবত’-এর সমালোচনা করছে, সেই জহরব্রতের মধ্যেই রাজপুত ‘মূল্যবোধ’ খুঁজে পেল কর্নি সেনা। চলচ্চিত্র না দেখে এত দিন ধরে হিংসাত্মক বিক্ষোভ চালিয়ে গেল তারা। এ বার চলচ্চিত্রটি দেখে তাদের বোধোদয় হল। ‘পদ্মাবত’-এর বিরুদ্ধে সব ধরনের বিক্ষোভ প্রত্যাহার করে নিল তারা। কর্নি সেনার তরফ থেকে বলা হয়েছে, এই সিনেমায় রাজপুত ‘মূল্যবোধ’কে তুলে ধরা হয়েছে। তাই দেশব্যাপী সমস্ত বিক্ষোভ প্রত্যাহার করে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা।

কর্নি সেনার মুম্বই শাখার নেতা যোগেন্দ্র সিংহ জানিয়েছেন, তাদের জাতীয় সভাপতির নির্দেশে শুক্রবার মুম্বইয়ে এই সিনেমাটি দেখেন কর্নি সেনার কয়েকজন সদস্য। পুরো সিনেমাটি দেখে তারা সিদ্ধান্তে এসেছেন যে ‘পদ্মাবত’-এ ধর্মীয় কোনো ভাবাবেগে আঘাত তো দেওয়াই হয়নি, বরং রাজপুত মূল্যবোধকে দারুণ ভাবে দেখানো হয়েছে।

আরও পড়ুন: রক্ষণশীল রাজপুত-গরিমার জঘন্য চিত্রায়নের পয়সা তুলতে কর্নি সেনাই ভরসা বনসলির

সব বিক্ষোভ প্রত্যাহারের কথা জানিয়ে সিংহ বলেন, আলাউদ্দিন খলজি এবং রানি পদ্মাবতীর মধ্যে এমন কিছু দেখানো হয়নি যাতে রাজপুতদের ভাবাবেগে আঘাত লাগতে পারে। শুধু বিক্ষোভ প্রত্যাহার করাই নয়, যে সব রাজ্যে ‘পদ্মাবত’ নিষিদ্ধ, সেই গুজরাত, রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশেও সিনেমাটির মুক্তি পাওয়ার ব্যাপারে প্রশাসনকে সব রকম সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছে কর্নি সেনা।

উল্লেখ্য ২৫ জনুয়ারি পদ্মাবতের মুক্তি পাওয়ার পর থেকেই দেশের বিভিন্ন জায়গায় তাণ্ডব চালিয়েছে কর্নি সেনা। বাদ যায়নি স্কুলের শিশুরাও। কিন্তু ঠিক কী কারণে তারা পদ্মাবতের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখাচ্ছে সে ব্যাপারে প্রশ্ন উঠছিল বিভিন্ন মহল থেকে। কারণ রাজপুতদের গর্বের ‘জহরবত’কেই তো এই সিনেমায় তুলে ধরা হয়েছে।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন