filing of IT return

ওয়েবডেস্ক: আর সপ্তাহ দুয়েক পরেই আসছে সেই দিন। ৩১ মার্চ ২০১৮। যে দিনের মধ্যে জমা দিয়ে দিতে হবে আপনার আয়কর রিটার্ন। যদি ওই দিনের মধ্যে দিতে না পারেন, তা হলে কিছু জরিমানাও দিতে হতে পারে।

এই মুহূর্তে নিশ্চয়ই আপনি আপনার আয়কর রিটার্নের হিসেব করতে ব্যস্ত। সেই হিসেবের সঙ্গেই জেনে নিতে পারেন ৫টি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য-

১) বাকি থাকা আয়কর রিটার্ন জমা দিন-

যদি মনে করেন অর্থবর্ষ ২০১৬-১৭ এবং ২০১৭-১৮-এর আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়ার শেষ দিন মিস করতে পারেন, তা হলে বিলম্বিত রিটার্ন জমা দিন। আয়কর দায় (লায়াবিলিটি) কতটা রয়েছে আপনার সেটা সঠিক হিসেব করে নিন। সঠিক সুদ সমেত রিটার্ন জমা দিন।

আপনি যদি ইতিমধ্যেই ওই দুই অর্থবর্ষের আয়কর রিটার্ন জমা দিয়ে থাকেন এবং মনে করেন সেখানে কিছু সংশোধন করা প্রয়োজন (হয়তো কোনো আয় জানাতে ভুলে গিয়েছেন, সেটা জানাতে চান বা কোনো খরচ দেখাতে চান বা টিডিএস ক্রেডিট দাবি করতে চান) সেটাও করতে পারেন। আয়কর রিটার্ন সংশোধন করার অপশনও রয়েছে। তবে খেয়াল রাখতে হবে ৩১ মার্চ ২০১৮-এর পর আর সংশোধন করতে পারবেন না।

২) আয়কর কমানোর জন্য কথায় টাকা রাখবেন

করের ভার যদি কমাতে চান সে সুযোগও আপনার কাছে রয়েছে। আয়কর আইনের ৮০সি ধারা অনুযায়ী কিছু বিশেষ জায়গায় টাকা রাখলে বছরে দেড় লক্ষ টাকা পর্যন্ত কর ছাড় পাওয়া যাবে। এলআইসি, কর বাঁচানো এফডি, কর বাঁচানো মিউচুয়াল ফান্ড, পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ড এবং ন্যাশনাল সেভিংস সার্টিফিকেট।

নিজের, স্ত্রী এবং নির্ভরশীল সন্তানের মেডিক্লেমের ওপরে ২৫,০০০ টাকা পর্যন্ত কর ছাড় এবং করদাতার বাবা-মায়ের মেডিক্লেমের ওপরে আরও ২৫,০০০ টাকা ছাড় পাওয়া যায়। প্রবীণ নাগরিকদের ক্ষেত্রে ৩০,০০০ টাকা কর ছাড় পাওয়া যায়। তবে একটাই শর্ত, মার্চের মধ্যে ওই টাকা জমা করতে হবে।

৩) ৫০,০০০-এর ওপরে বাড়ি ভাড়া হলে টিডিএস কেটে নিন

আপনি যদি ভাড়াটিয়া হন এবং আপনার বাড়ি ভাড়া যদি মাসিক ৫০,০০০ বা তার বেশি হয় তা হলে আগেই বার্ষিক ভাড়ার ওপরে ৫ শতাংশ টিডিএস কেটে নিন। ভাড়াটিয়াকে বাড়ির মালিকের প্যানকার্ড দেখানো প্রয়োজন, অন্যথা ২০ শতাংশ কর দিতে হবে।

৩১ মার্চের মধ্যে এই টিডিএস কেটে নিতে হবে এবং ৭ এপ্রিলের মধ্যে তা সরকারের কাছে জমা করে দিতে হবে।

৪) আধার সংযুক্তি করে নিন

৩১ মার্চের মধ্যে প্যান, ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট, মোবাইল নম্বর, বিমা, গ্যাস, মিউচুয়াল ফান্ডের সঙ্গে আপনার আধার সংযুক্তিকরণ করিয়ে নিন। প্যানের সঙ্গে আধার সংযুক্তিকরণ না করা হলে আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়া নাও হতে পারে।

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here