Lalu prasad yadav

রাঁচি: সময়টা খুবই খারাপ যাচ্ছে আরজেডি সুপ্রিমো লালুপ্রসাদ যাদবের। পশুখাদ্য কেলেঙ্কারির অন্য একটি মামলায় বুধবার তাঁর পাঁচ বছরের সাজা হল। সব মিলিয়ে এখনও পর্যন্ত তিনটে পশুখাদ্য মামলায় দোষী সাব্যস্ত হলেন লালু। এই তিনটে মামলায় মিলিয়ে মোট জরিমানা এবং সাজার পরিমাণ কত জানেন?

বুধবার বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীকে পাঁচ বছরের সাজা শুনিয়েছে সিবিআইয়ের বিশেষ আদালত। সেই সঙ্গে পাঁচ লক্ষ টাকার জরিমানাও করেছে আদালত। এটাই প্রথম নয়, এর আগে আরও দু’টি পশুখাদ্য মামলায় সাজা হয়েছে লালুর। ২০১৩ সালে চাইবাসা ট্রেজারির মামলায় পাঁচ বছরের জেল হয় তাঁর। সেই সঙ্গে ২৫ লক্ষ টাকার জরিমানা করে আদালত। তার পরে আসে দেওঘর ট্রেজারির মামলা। এই বছরের শুরুতে এই মামলায় সাজা শোনায় আদালত। সাড়ে তিন বছরের জেলের পাশাপাশি দশ লক্ষ টাকা জরিমানা হয় তাঁর। তারপর এই মামলাটি। সুতরাং মোট চল্লিশ লক্ষ টাকার জরিমানা এবং সাড়ে তেরো বছরের জেল হয়েছে লালুর। তবে প্রথম মামলাটির ক্ষেত্রে তিনি এখন জামিনে থাকলেও, দ্বিতীয় মামলাটির এই মুহূর্তে লালু জেলবন্দি।

বুধবার রাঁচিতে সিবিআইয়ের বিশেষ আদালত লালু ছাড়াও বিহারের আরও এক প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জগন্নাথ মিশ্রকে দোষী সাব্যস্ত করে। তার কিছুক্ষণের মধ্যেই সাজা ঘোষণা করে দেওয়া হয়। সিবিআই আদালতের বিশেষ বিচারক এই মামলায় মোট ৫৬ জন অভিযুক্তের মধ্যে লালু-সহ ৫০ জনকে দোষী সাব্যস্ত করেন।

তবে এখানেই শেষ নয়। আরও আছে। লালুর বিরুদ্ধে ঝাড়খণ্ডে পশুখাদ্য কেলেঙ্কারির দু’টি মামলা ঝুলছে। আগামী কয়েক মাসের মধ্যেই তার রায় ঘোষণা হবে বলে জানা গিয়েছে। ওই দু’টি মামলার শুনানিই অন্তিম পর্যায়ে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here