shibaprashad nandi majumder

শিলচর: উৎসবটা যে কিছুটা বিজেপি প্রভাবিক সে ব্যাপারে কোনো প্রশ্নই ছিল না। তবুও বকলমে নিরপেক্ষতা বজায় রাখতে চেয়েছিলেন উদ্যোক্তারা। কিন্তু সেই নিরপেক্ষতার মুখোশ খুলে গেল যখন উৎসবের থিম সং থেকে বাদ পড়ে গেল এক বাম-ঘনিষ্ঠ গায়কের অংশ।

গত বছর নমামি ব্রহ্মপুত্রের মতোই আগামী শনিবার থেকে তিনদিন ব্যাপী নমামি বরাক উৎসব আয়োজন করছে অসম সরকার। সেই উৎসবের থিম সং তৈরি করে অসম সরকার। ২০০৬-এর সারেগামাপা জয়ী দেবজিৎ সাহার নির্দেশনায় তৈরি সেই গানে একটি অংশ গেয়েছিলেন বাম ঘনিষ্ঠ এবং সংঘ পরিবারের সমালোচক হিসেবে পরিচিত শিবপ্রসাদ নন্দী মজুমদার।

গানটি প্রকাশ করার আগেই সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করা হয়, সেখানে শিবপ্রসাদবাবুকে দেখা গেলেও সোমবার সরকারি ভাবে প্রকাশ পাওয়া গানটির ভিডিওয়ে তাঁর অংশটি মুছে দেওয়া হয়। ওই অংশে শিবপ্রসাদবাবুর বদলে জুবিন গর্গকে দেখা যাচ্ছে।

শিবপ্রসাদবাবুর অংশটি বাদ পড়ার প্রতিবাদে নমামি বরাক সমন্বয় কমিটির সচিব পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন সাংস্কৃতিক কর্মী অজয়কুমার পাল। তিনি বলেন, “রাজনৈতিক মনোভাবের জন্য কারওকে বাদ দেওয়া বরাক উপত্যকার সংস্কৃতি নয়। আমি এ রকম অনুষ্ঠানের সঙ্গে জড়িত থাকতে চাই না। তাই ইস্তফা দিয়েছি।”

এ দিকে বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক শিবপ্রসাদবাবু জানান, অনুষ্ঠানটি বিজেপি প্রভাবিত নয়, এই আশ্বাস পেয়েই থিম সং-এ নিজের উপস্থিতির কথা জানিয়ে দেন। এই ঘটনায় ক্ষুব্ধ শিবপ্রসাদবাবু জানান, “সবাই জানে আমার রাজনৈতিক মনোভাব কী। নরেন্দ্র মোদীর বিমুদ্রাকরণ থেকে শুরু করে নিরপেক্ষতায় আঘাত, আমি সবার বিরোধিতা করেছি। আমি এটাই বলতে চাই যে আবার অসহিষ্ণুতার জয় হল।”

শিবপ্রসাদবাবুকে বাদ দেওয়ার ব্যাপারে কোনো রাখঢাক করেননি প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা কবীন্দ্র পুরকায়েস্থ। তিনি বলেন, “অধ্যাপক হওয়ায় যে কোনো মোট পোষণ করার অধিকার শিবপ্রসাদবাবুর রয়েছে। কিন্তু উনি যেভাবে বিজেপির সমালোচনা করেন সেটা স্থানীয় সংস্কৃতিবিরুদ্ধ। থিম সং থেকে তাঁকে বাদ দিয়ে কোনো ভুল করা হয়নি।”

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here