jorasanko thakurbari

কলকাতা জোড়াসাঁকোর ঠাকুরবাড়িতে শুরু হতে চলেছে ‘লাইট অ্যান্ড সাউন্ড শো’। ভারতের সাংস্কৃতিক ইতিহাসে অনবদ্য ভূমিকার জন্য ঠাকুরবাড়ি বিখ্যাত। সেই ঠাকুরবাড়ির সন্তানদের কীর্তিকাহিনি দেখানোর জন্য এই উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।

এই শীতেই শুরু হবে এই শো। বর্ষাকাল ছাড়া সারা বছর ধরেই চলবে ওই শো। দিনে দু’টি করে শো হবে। প্রথমটি শুরু হবে সন্ধে ৭টায়। প্রতি শো-এ ১০০ জন বসার ব্যবস্থা থাকবে। প্রথমে বাংলা ভাষায় ওই শো চালু হবে। পরে হিন্দি এবং ইংরেজি ভাষাতেও ওই শো দেখানো হবে।

শো-এ জীবন্ত মানুষের মতো থ্রি ডি ইমেজ দেখানো হবে। শো-এর আখ্যানভাগে মাঝে মাঝে রবীন্দ্রনাথের কণ্ঠস্বর ব্যবহার করা হবে। এ ছাড়া ভাষ্যপাঠ করবেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় এবং ব্রততী বন্দ্যোপাধ্যায়।

রাজ্যের পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব জানান, প্রকল্পটি রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের মস্তিষ্কপ্রসূত। ঠাকুরবাড়ির চত্বরেই রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যামপাস। এই প্রকল্পে কারিগরি ও আর্থিক সহায়তা দিচ্ছে পর্যটন দফতর। রবীন্দ্রনাথের পৈতৃকবাড়ির একটা স্বাভাবিক আকর্ষণ আছে পর্যটকদের মধ্যে। ‘লাইট অ্যান্ড সাউন্ড শো’ আয়োজন করা হলে ওই আকর্ষণ আরও বাড়বে।

রবীন্দ্রনাথ ছাড়াও ঠাকুর পরিবারে জন্মেছিলেন বহু কৃতী সন্তান। অসামান্য গুণের অধিকারী ছিলেন এঁরা। নানা ক্ষেত্রে এঁরা তাঁদের পারদর্শিতার পরিচয় দিয়ে গিয়েছেন।  এঁদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য দ্বারকানাথ ঠাকুর (বাংলার প্রথম উদ্যোগপতি), মহর্ষি দেবেন্দ্রনাথ ঠাকুর (ব্রাহ্মসমাজের অন্যতম অগ্রণী ব্যক্তিত্ব), সত্যেন্দ্রনাথ ঠাকুর (প্রথম ভারতীয় আইসিএস), জ্যোতিরিন্দ্রনাথ ঠাকুর (শিল্পী, সংগীত সুরসাধক, নাট্য ব্যক্তিত্ব), অবনীন্দ্রনাথ ঠাকুর (বেঙ্গল স্কুল অব আর্টের প্রতিষ্ঠাতা), গগনেন্দ্রনাথ ঠাকুর (প্রখ্যাত চিত্রকর ও কার্টুনিস্ট) প্রমুখ।

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here