মহেশতলায় নাবালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগ, ধৃত দুই ব্যক্তি পুলিশ হেফাজতে

0

নিজস্ব সংবাদদাতা, কলকাতা : ফের এক নাবালিকা ধর্ষণের অভিযোগ উঠল। ওই নাবালিকা দশম শ্রেণির ছাত্রী। মহেশতলার ওই ঘটনায় অভিযুক্ত তিন জন৷ এর মধ্যে দু’ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ৷ বাকি একজনের খোঁজে তল্লাশি চলছে৷ বৃহস্পতিবার অভিযুক্তদের আলিপুরে বিশেষ পক্সো আদালতে তোলা হলে দু’দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক৷ এই ঘটনায় অভিযুক্তদের জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ৷

সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার সময় মহেশতলার বাসিন্দা ওই ছাত্রীকে জোর করে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়৷ তার নাক ও মুখ জোর করে রুমাল দিয়ে চাপা দেওয়া হয়৷ এই ঘটনায় বেহুঁশ হয়ে যায় সে৷ তার পর তাকে একটি পরিত্যক্ত ঘরে নিয়ে গিয়ে জোর করে ধর্ষণ করা হয়৷ শুধু তা-ই নয় ধর্ষণের দৄশ্য মোবাইলে তুলে রাখা হয়৷ নির্যাতিতার জ্ঞান ফিরলে সে দেখে পরিত্যক্ত ঘরে পড়ে রয়েছে সে, পরণে কোনো পোশাক নেই। সেই অবস্থায় অভিযুক্তরা তার ছবি তুলছে৷ সঙ্গে সঙ্গেই চিৎকার করে ওঠে সে৷ তখনই ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায় অভিযুক্তরা৷

সেপ্টেম্বর মাসে এই ঘটনা ঘটে৷ তার নিরাবরণ অবস্থার ছবি সোশ্যাল মিডিযায় আপলোড করে দেওয়া হবে বলে নির্যাতিতাকে ভয় দেখানো হয়৷ পুলিশে যাতে কোনো অভিযোগ না করা হয় তার জন্য হুমকিও দেওয়া হয় তাকে৷ শেষ পর্যন্ত নির্যাতিতা পুলিশে অভিযোগ দায়ের করলে শেখ ওয়াকিল ওরফে জামির ও শেখ সেলিম নামে দুই যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ৷ এই ঘটনায় পলাতক পিকে নামে আরও এক ব্যাক্তি ৷

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.