পটনা: রেলে যাত্রী সুরক্ষার হাল কোথায় গিয়ে ঠেকেছে তার সাক্ষ্য দিল নয়াদিল্লি-রাজেন্দ্রনগর (পটনা) রাজধানী এক্সপ্রেস। সাধারণ ট্রেনে তো যাত্রী সুরক্ষা নামক কোনো কিছুর অস্তিত্বই নেই, কিন্তু দেশের প্রিমিয়ার ট্রেনে দাম দিয়ে টিকিট কেটে নিশ্চিন্তে যে ভ্রমণ করবেন তারও নিশ্চয়তা নেই। শনিবার শেষ রাতে ১২৩১০ ডাউন পটনা রাজধানী এক্সপ্রেসের তিনটি কোচে ডাকাতিই চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল যাত্রী সুরক্ষার কী হাল।

ডাকাতি হয় রাত আড়াইটে নাগাদ, উত্তর প্রদেশের মোগলসরাই স্টেশনের আউটার সিগন্যাল ও গামার স্টেশনের মাঝে। ডাকাতরা এ-৪, বি-৭ ও বি-৮ কোচের যাত্রীদের দামি সব কিছু লুঠ করে। যাত্রীদের সূত্রে জানা নায়, ট্রেনটি গামার স্টেশনের আউটার সিগন্যালে ২৫ মিনিট দাঁড়িয়েছিল। তখনই ডাকাতরা পালায়। সন্দেহ করা হচ্ছে, এরা মোগলসরাই স্টেশন থেকে উঠেছিল। ঘটনারই পরই যাত্রীরা টিটিই-কে সব কিছু জানান।

সকালে ট্রেনটি পটনা স্টেশনে পৌঁছোতেই যাত্রীরা ক্ষোভে ফেটে পড়েন। তাঁদের কোচ অ্যাটেন্ডেন্ট এবং ট্রেনে থাকা অন্য রেলকর্মীদের যোগসাজশেই এই ডাকাতি হয়েছে। রেল সুত্রে জানা গিয়েছে, ট্রেনে যাত্রী সুরক্ষার জন্য ১ জন সাব ইনস্পেকটর এবং ৬ জন আরপিএফ কর্মী ছিলেন। ঘটনার পর সবাইকেই সাসপেন্ড করা হয়েছে।

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here