rajkumar roy and family

নিজস্ব প্রতিনিধি: রেল বলছে ট্রেনের ধাক্কায় মৃত্যু, পুলিশের অনুমান আত্মহত্যা, পরিবার বলছে খুন। ক্রমশই ঘনীভূত হচ্ছে প্রিসাইডিং অফিসার রাজকুমার রায়ের মৃত্যুরহস্য। এই নিয়ে উত্তাল হয়ে উঠল উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জ। রাজকুমারের মৃত্যুতে জড়িত দুষ্কৃতীদের গ্রেফতার এবং গণনার দিন নিরাপত্তার দাবিতে বুধবার দফায় দফায় অবরোধ চলে শহরের বিভিন্ন জায়গায়। হেনস্থা হন রায়গঞ্জের মহকুমা শাসক। রাতেও অবরোধ চলে। ইতিমধ্যে জেলাশাসক জানিয়েছেন, প্রিসাইডিং অফিসারের মৃত্যু নিয়ে সিআইডি তদন্ত হবে।

করণদিঘির এক স্কুলশিক্ষক রাজকুমার দুই সন্তানের জনক। পরিবার সূত্রে জানা যায়, রবিবার রাতেই ভোটের কাজে তিনি ইটাহার যান। প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, সোমবার ইটাহারের সোনাপুর জুনিয়র বেসিক স্কুলে ৮৪ নম্বর বুথে প্রিসাইডিং অফিসার হিসাবে ডিউটি পড়েছিল তাঁর। ওই বুথে ভোট চলে সন্ধে ৭টা পর্যন্ত। কিন্তু ভোটের কাজ শেষ হয়ে যাওয়ার পরেও বাড়ি না ফেরায় মঙ্গলবার থানায় নিখোঁজ ডায়েরি করেন ইটাহারের বিডিও।

রাজকুমারের পরিবারের অভিযোগ, ভোটের দিন দুপুর দু’টো পর্যন্ত তাঁর সঙ্গে পরিবারের যোগাযোগ ছিল। এর পর থেকে তাঁর সঙ্গে আর কোনো যোগাযোগ না থাকায় পরিবারের পক্ষ থেকে বিডিও রাজু লামার সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। বিডিও প্রথমে জানিয়েছিলেন, প্রিসাইডিং অফিসার রাত ৮টা পর্যন্ত বুথে ছিলেন। পরে চাপের মুখে মঙ্গলবার দুপুরে তিনি রাজকুমারের নিখোঁজ নিয়ে ডায়েরি করেন। রাজকুমারের পরিবারের অভিযোগ, তাঁকে বুথ থেকে অপহরণ করে নিয়ে গিয়ে খুন করা হয়েছে। এক জন ভোটকর্মীর নিঁখোজ হওয়া, তার পরে খুন হওয়া — এ সব প্রশ্ন তুলে প্রশাসনের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ এনেছেন তাঁরা।

কলকাতাগামী রাধিকাপুর এক্সপ্রেসের চালক রায়গঞ্জ স্টেশনে নকডাউন মেমো দিয়ে বুধবার সকালে জানান, বাঙালবাড়ি ও রায়গঞ্জের মধ্যে এক ব্যক্তির সঙ্গে ট্রেনের ধাক্কা লাগে। পরে পরিচয়পত্র দেখে নিখোঁজ প্রিসাইডিং অফিসারের মৃতদেহ শনাক্ত করা হয়। রাজকুমারের মৃতদেহের পাশেই পড়েছিল তাঁর মোবাইল।

বৃহস্পতিবার পঞ্চায়েতের ভোটগণনা।  রাজকুমারের মৃত্যুর পরিপ্রেক্ষিতে গণনার দিন নিরাপত্তার দাবিতে সরব হয়ে ওঠেন ভোটকর্মীরা। সেই সঙ্গে রাজকুমারের মৃত্যুর সঙ্গে জড়িত দুষ্কৃতীদের গ্রেফতার দাবি করেন। রায়গঞ্জের ঘড়ি মোড়ে শুরু হয় অবরোধ। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসডিও টি এন শেরপা। তাঁকে সেখানে নিগ্রহ করা হয়। কয়েক ঘণ্টা পর ঘড়ি মোড় স্বাভাবিক হয়ে গেলে অবরোধ ছড়ায় শিলিগুড়ি মোড়ে। বন্ধ হয়ে যায় রায়গঞ্জ-বালুরঘাট সড়ক। রাতেও শহরের বিভিন্ন জায়গায় অবরোধ চলে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here