মুম্বই: ২ এপ্রিল ২০১১। মুম্বইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামের মায়াবী সন্ধ্যা। শ্রীলঙ্কার নুয়ান কুলশেখরকে ছক্কা মেরে ভারতের জয় এনে দিলেন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিংহ ধোনি।

ছ’ বছর আগের সেই স্মরণীয় স্মৃতির রোমন্থনে ডুব দিলেন বিশ্বজয়ী দলের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সদস্য তথা বিস্ফোরক প্রাক্তন ওপেনার বীরেন্দ্র সহবাগ। রবিবার নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে সহবাগ লেখেন, “ছ’ বছর আগে, আজকের দিনে দুর্দান্ত ভাবে ম্যাচ শেষ করেছিল ধোনি। আমরা বিশ্বকাপ জিতলাম। এই প্রজন্মের সেরা স্মৃতি।” টুইট করেছেন মহম্মদ কঈফও। তিনি লেখেন, “কী স্মরণীয় রাতটাই না ছিল! গৌতম গম্ভীর এবং ধোনির ব্যাটিং-এ আমরা বিশ্বকাপ জিতলাম।” টুইটারে সেই ম্যাচের স্মৃতি রোমন্থন করেছেন আকাশ চোপড়াও।

প্রথমে ব্যাট করে মাহেলা জয়বর্ধনের শতরানের সৌজন্যে ৫০ ওভারে ২৭৪ রান তোলে শ্রীলঙ্কা। জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই সহবাগ এবং সচিনকে হারিয়ে বিপাকে পড়ে ভারতীয় ব্যাটিং। কিন্তু একুশ বছর বয়সি বিরাট কোহলিকে সঙ্গে নিয়ে প্রাথমিক ধাক্কা সামলে দেন গম্ভীর। ম্যাচে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ মোড় আসে, যখন কোহলি আউট হতে, গোটা টুর্নামেন্টে ভালো খেলা যুবরাজকে না নামিয়ে নিজে নামেন ধোনি। গোটা বিশ্বকাপ জুড়ে তিনি ফর্মের ধারেকাছে ছিলেন না। কিন্তু এই ম্যাচে সম্পূর্ণ ভিন্ন ধোনি। তাঁর এবং গম্ভীরের পার্টনারশিপই ম্যাচ থেকে শ্রীলঙ্কাকে বার করে দেয়। মাত্র তিন রানের জন্য শতরান হাতছাড়া করেন গম্ভীর। পঞ্চম উইকেটে যুবরাজকে সঙ্গে নিয়ে ভারতের বৈতরণী পার করেন ধোনি। নিজে অপরাজিত থাকেন ৯১ রানে। দেখুন সেই স্মরণীয় ম্যাচের ভিডিও।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here