ওয়েবডেস্ক: পাকিস্তানের হাতে বন্দি, মৃত্যদণ্ডের সাজা প্রাপ্ত কুলভূষণ যাদবের মা এবং স্ত্রী আগামী কাল সে দেশে যাওয়ার অনুমতি পেলেন। পাকিস্তানের বিদেশমন্ত্রক থেকে এ কথা জানিয়ে বলা হয়েছে, গত ২০ ডিসেম্বর ইসলামাবাদ তাঁদের ভিসার অনুমতি দেয়। একটি বাণিজ্যিক বিমানে সোমবার কুলভূষণের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে ওই দিনই তাঁদের ফিরে আসতে হবে ভারতে। পাকিস্তানে তাঁদের সঙ্গে থাকবেন সে দেশে নিযুক্ত ভারতীয় ডেপুটি হাইকমিশনার।

পাকিস্তানের বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র মহম্মদ ফয়জল টুইট করে এই সংবাদের সত্যতা প্রকাশ করেছেন। বেশ কয়েক দিন ধরেই কুলভূষণের পরিবারকে তাঁর সঙ্গে সাক্ষাতের অনুমতি দেওয়া নিয়ে পাকিস্তান গড়িমসি করছিল। কিন্তু পাকিস্তানি মিলিটারি কোর্টে কুলভূষণের মৃত্যুদণ্ড ঘোষিত হলেও আন্তর্জাতিক আদালত আইসিজে তা থামিয়ে দেয়। এখনও পর্যন্ত কোনো স্থায়ী সমাধান সূত্রও বের করতে পারেনি দুই দেশ। স্বাভাবিক ভাবে কুলভূষণের পরিবারের পক্ষ থেকে থাঁর সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার আবেদন জানানো হয়ে আসছে বেশ কয়েক মাস ধরেই। দীর্ঘ টালবাহানা চলার পর গত সপ্তাহে তাঁর পরিবার ভিসার জন্য পাকিস্তানের কাছে আবেদন করে এবং তা মঞ্জুরও হয়।

৪৭ বছর বয়স্ক যাদবকে গুপ্তচরবৃত্তি এবং সন্ত্রাসের মিথ্য়া অভিযোগে গত এপ্রিল মাসে মৃত্যদণ্ডের সাজা দেয় পাকিস্তান মিলিটারি কোর্ট। এই ঘটনা ভারতের নজরে আসার পর দেশের পক্ষ থেকে আইসিজে-তে আবেদন জানানো হয়। কিন্তু পাকিস্তান একাধিক বার কনসুলার অ্যাক্সেস অমান্য করেছে। তাদের যুক্তি গুপ্তচর বৃত্তির অভিযুক্ত বন্দির ক্ষেত্রে তারা এই নীতিকে মান্যতা দেয় না। তাদের দাবি, গত ৩ মার্চ কুলভূষণ যাদব ওরফে হুসেন মোবারক পটেলকে তারা বালুচিস্তান থেকে গ্রেফতার করে বেআইনি ভাবে ইরান থেকে ঢোকার সময়।

যদিও ভারতের দাবি, বালুচিস্তান নয়, কুলভূষণকে ইরান থেকেই গ্রেফতার করা হয়েছে। যাদব ভারতীয় নৌ-সেনার প্রাক্তন কর্মী। তিনি নিজের ব্যবসা সংক্রান্ত কাজেই ইরানে ছিলেন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here