indian roofed turtle

নিজস্ব সংবাদদাতা, জলপাইগুড়ি: ছোট্টো একটি প্রাণী। সেটাই যেন অনেকটা প্রাণ এনে দিল বন দফতর এবং পরিবেশপ্রেমীদের মনে। ‘ইন্ডিয়ান রুফড টার্টল’, সাইজ মেরে কেটে ইঞ্চি চারেক হবে। বিলুপ্তপ্রায় প্রজাতির এই কচ্ছপটি উদ্ধার হয়েছে জলপাইগুড়ির প্রত্যন্ত এলাকা থেকে।

সোমবার রাতে ধুপগুড়ির জলঢাকা নদী সংলগ্ন একটি জলা জায়গায় এটিকে দেখতে পান কিছু মৎস্যজীবী। অন্য প্রাণী এর ক্ষতি করতে পারে ভেবে সেটিকে উদ্ধার করে নিয়ে আসেন তাঁরা। খবর দেন গরুমারা বন বিভাগের মরাঘাট রেঞ্জে। সেখানকার বনকর্মীরা এসে কচ্ছপটি নিয়ে যান।

মরাঘাট রেঞ্জের রেঞ্জ অফিসার অজয় ঘোষ জানিয়েছেন, এই প্রজাতির কচ্ছপ তিনি এই প্রথম চাক্ষুষ করলেন।

তথ্য বলছে এর পোশাকি নাম ‘ইন্ডিয়ান রুফড টার্টল’। খোলসের ওপর দিকে একটি ‘দাঁড়া’ বা ‘খড়্গ’-এর মতো উঁচু শক্ত বস্তু রয়েছে। তাই এই নাম। বিজ্ঞানসম্মত নাম পাংশুরা টেক্টা (Pangshura Tecta)। মূলত দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলিতে এর বসবাস। ভারতে গঙ্গা বা ব্রহ্মপুত্রের যে সব শাখানদী বা উপনদী রয়েছে, তার সংলগ্ন এলাকায় এদের দেখা মেলে।

পরিবেশ বিজ্ঞানীদের মতে, এই প্রজাতির কচ্ছপ ধীরে ধীরে লুপ্ত হয়ে যাচ্ছে। কারণ তাদের বসবাসের জন্য যে ধরনের পরিবেশ প্রয়োজন তা-ও প্রায় বিলুপ্ত।

জলপাইগুড়ির বিভিন্ন এলাকায় মাঝেমধ্যেই কচ্ছপের দেখা মেলে। তবে স্মরণাতীত কালে এই প্রজাতির কচ্ছপ দেখেছেন বলে মনে করতে পারছেন না বনাধিকারিক বা পশু ও পরিবেশকর্মীরা। জলপাইগুড়ি বন বিভাগের বনাধিকারিক বিদ্যুৎ সরকার জানিয়েছেন, এই প্রজাতির কচ্ছপের দেখা মেলায় তাঁরা আশান্বিত যে এটি বিলুপ্ত হয়ে যায়নি। উদ্ধার হওয়া কচ্ছপটিকে গরুমারার জঙ্গলে সঠিক পরিবেশে সংরক্ষণ করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

ঘটনাটা যে অনেকটাই স্বস্তিদায়ক তা জানিয়েছেন প্রাণীবিদ্যার অধ্যাপক রাজা রাউত। তিনি জলপাইগুড়ি তথা উত্তরবঙ্গের অন্যতম পরিবেশকর্মীও। তাঁর মতে, জীববৈচিত্র্যের ভারসাম্য রক্ষায় এই ধরনের বিরল প্রজাতির প্রাণীদের অবদান অনস্বীকার্য। তাঁর ধারণা, এই অঞ্চলে বিলুপ্তপ্রায় প্রজাতির এই কচ্ছপ আরও আছে। বন দফতরের কাছে তিনি আরও বিশদ ভাবে এই অঞ্চলে সমীক্ষা করে এই ধরনের প্রাণী সংরক্ষণের দাবি জানিয়েছেন।

বন্যপ্রাণ সংরক্ষণ আইন অনুযায়ী ‘ইন্ডিয়ান রুফড টার্টেল’ তফশিল ২-এর অন্তর্ভুক্ত। এটিকে তফশিলে ১-এ এনে সংরক্ষণের ব্যবস্থা করলে আখেরে লাভ পরিবেশ এবং অবশ্যই মানুষের, বলছেন পরিবেশকর্মীরা।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here