নয়াদিল্লি: কপাল ভালো থাকলে আপনি মেল/এক্সপ্রেসের ভাড়ায় রাজধানী বা শতাব্দীর মতো প্রিমিয়ার ট্রেনে ভ্রমণ করতে পারবেন। আগামী ১ এপ্রিল থেকে রেল মন্ত্রক এই স্কিম চালু করছে। এর নাম দেওয়া হয়েছে ‘বিকল্প’।

এই স্কিম অনুসারে সাধারণ মেল/এক্সপ্রেস ট্রেনের ওয়েটিং লিস্টের যাত্রীরা চাইলে রাজধানী, শতাব্দী, দুরন্ত বা সুবিধা-র মতো বিশেষ ট্রেনে কনফার্মড্‌ বার্থে ভ্রমণ করতে পারবেন যদি ট্রেনের টিকিট কাটার সময় তাঁরা সেই অপশন দেন। এর জন্য সংশ্লিষ্ট যাত্রীকে কোনো অতিরিক্ত ভাড়া দিতে হবে না বা ভাড়ার তারতম্যের জন্য কোনো রিফান্ডও দেওয়া হবে না। বিভিন্ন কারণে টিকিট বাতিল করার জন্য রেলকে বছরে ৭৫০০ কোটি টাকা রিফান্ড করতে হয়।

রেল মন্ত্রকের এক কর্মকর্তা বলেন, “বিকল্প স্কিম চালু করার উদ্দেশ্য দু’টি। এক, ওয়েটলিস্টেড যাত্রীদের কনফার্মড্‌ বার্থ দেওয়া। দুই, রেলে বার্থের যথাযথ সদ্ব্যবহার করা।

জানা গিয়েছে, রাজধানী, শতাব্দীর মতো প্রিমিয়ার ট্রেনে ‘ফ্লেক্সি-ফেয়ার’ অর্থাৎ চাহিদা অনুযায়ী ভাড়া বেড়ে যাওয়ার ব্যবস্থা চালু হওয়ার পর থেকে এই ট্রেনগুলিতে বেশ কিছু বার্থ খালি যাচ্ছে এবং সাধারণ মেল/এক্সপ্রেস ট্রেনে বার্থের চাহিদা প্রচণ্ড বেড়ে গিয়েছে। ওই কর্মকর্তা বলেন, “ওই ট্রেনগুলিতে বার্থ খালি পড়ে থাকছে। সুতরাং ওয়েটলিস্টেড যাত্রীদের টাকা ফেরত না দিয়ে যদি ওই খালি বার্থগুলিতে নিয়ে যাওয়া যায়, তা হলে রেলের বাড়তি কোনো খরচ নেই, উপরন্তু রিফান্ডের টাকাটা বাঁচানো যাবে। টাকা বাঁচানো মানেই টাকা আয়।”

এই ‘বিকল্প’ স্কিম পরীক্ষামূলক ভাবে দিল্লি-লখনউ, দিল্লি-মুম্বই এবং দিল্লি-জম্মু শাখায় চলছে। ১ এপ্রিল থেকে তা সব রুটেই চালু হবে। প্রথম অনলাইনে টিকিট কাটলে এই সুবিধা পাওয়া যাবে। কাউন্টার থেকে টিকিট কিনলেও যাতে এই সুবিধা মেলে তারও ব্যবস্থা হবে পরে।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন