rain wb

ওয়েবডেস্ক: রেকর্ড বইয়ে ঢুকে গেল বাঁকুড়া। গত ২৪ ঘণ্টায় সাড়ে তিনশো মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে সেখানে। বৃষ্টির ফলে জল বাড়তে শুরু করেছে শহরের পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া গন্ধেশ্বরী এবং দারকেশ্বর নদীতে। প্রবল বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে ঝাড়গ্রামও।

তবে এক দিকে যখন পশ্চিমের শহরগুলির বানভাসি অবস্থা, তখন সোমবার সকাল থেকে কলকাতায় ছড়ি ঘোরাতে শুরু করেছে আর্দ্রতা। বেলা বাড়ার পর অবশ্য সামান্য বৃষ্টি হয়েছে।

সোমবার দুপুরে প্রকাশিত পূর্বাভাসে আলিপুর আবহাওয়া দফতর থেকে জানানো হয়েছে, আগামী ২৪ ঘণ্টায় দক্ষিণবঙ্গের বিস্তীর্ণ অঞ্চলে ভারী এবং কোথাও কোথাও অতি ভারী বৃষ্টি হতে পারে। অন্য দিকে বেসরকারি আবহাওয়া সংস্থা ওয়েদার আল্টিমার তরফ থেকে জানানো হয়েছে, আগামী ৪৮ ঘণ্টাতেই বিক্ষিপ্ত ভাবে ভারী বৃষ্টি চলতে থাকবে গোটা দক্ষিণবঙ্গে।

যে নিম্নচাপটি তৈরি হয়েছে তার মতিগতি কী? ওয়েদার আল্টিমার কর্ণধার রবীন্দ্র গোয়েঙ্কা বলেন, “দিঘার কাছ দিয়ে এই নিম্নচাপটি স্থলভাগে ঢুকবে। তার পর ওড়িশা হয়ে ঝাড়খণ্ডের পথ ধরবে সে।”

https://www.khaboronline.com/news/state/%E0%A6%B0%E0%A7%87%E0%A6%95%E0%A6%B0%E0%A7%8D%E0%A6%A1-%E0%A6%AC%E0%A7%83%E0%A6%B7%E0%A7%8D%E0%A6%9F%E0%A6%BF%E0%A6%A4%E0%A7%87-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%B2%E0%A6%BE%E0%A6%AC%E0%A6%BF%E0%A6%A4/

কলকাতাতেও আগামী ৪৮ ঘণ্টায় বিক্ষিপ্ত ভাবে ভারী বৃষ্টি হতে পারে। তবে ৪৮ ঘণ্টা পরে দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির দাপট কমতে পারে বলে জানানো হয়েছে। 

তবে বৃষ্টি কমলেও চিন্তা রয়েছে অন্য জায়গায়। সেটা হচ্ছে ঝাড়খণ্ডের বৃষ্টি। ঝাড়খণ্ডে ভারী বৃষ্টি হলে দক্ষিণবঙ্গে বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়, ডিভিসির জলাধারগুলি ভোরে যাওয়ার ফলে। এ বারও কিন্তু পরিস্থিতি সেই দিকেই যেতে পারে। কারণ ইতিমধ্যে ঝাড়খণ্ডে প্রবল বৃষ্টি হচ্ছে। আগামী দুই থেকে তিন দিন সেখানে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সতর্কতা জারি হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন