relationship
আপনার প্রিয় মানুষটা যদি একই কাজগুলো নিয়মিত করতে শুরু করে তা হলে বুঝবেন খুব সম্ভবত সে ব্রেকআপ করতে চায়।

ওয়েবডেস্ক: সম্পর্ক সবসময় একই ভাবে যায় না। ঝগড়াঝাটি, মনোমালিন্য প্রতিটি সম্পর্কে টুকটাক লেগেই থাকে। কিন্তু কিছু কিছু আচরণ যখন নিয়মিত হয়ে দাঁড়ায়, তখন বুঝতে হবে ভাবনার সময় এসেছে। আপনার প্রিয় মানুষটা যদি একই কাজগুলো নিয়মিত করতে শুরু করে, তা হলে বুঝবেন খুব সম্ভবত সে ব্রেকআপ করতে চায়।

১। মোবাইলে আরেকজনের সঙ্গে সময় কাটানো-

মোবাইলে বন্ধুদের সাথে মাঝে মধ্যে কথা বলা বা আড্ডা দেওয়া কোনো দোষের নয়। কিন্তু তা যদি মাত্রা ছাড়ানো পর্যায়ে পৌঁছায় তা হলে কিন্তু আর ছেড়ে দেওয়া যায় না। মিলিয়ে দেখুন সে আগে কতটুকু সময় ফোনে ব্যয় করত, এখন কতটুকু করে। পার্থক্যটা যদি খুব বেশি হয়, তা হলে তো উত্তর পেয়েই গেলেন।

২। শেয়ারিং কমিয়ে দেওয়া-

একসাথে জীবন কাটানোর অঙ্গীকার কিন্তু ভালোবাসার অপরিহার্য শর্ত। তাই অনেক কিছুই প্রিয় মানুষটির সাথে শেয়ার করা অত্যন্ত স্বাভাবিক। যদি দেখেন, হঠাৎ করেই সে তার প্রতিদিনের জীবনের সব কথাবার্তা বলা বন্ধ করে দিয়েছে তখন আপনাকে বুঝতে হবে সময় হয়েছে ব্যাপারটা নিয়ে ভাবনাচিন্তা করার।

৩। হঠাৎ করেই খুব ব্যস্ততা দেখানো-

বিভিন্ন কাজে ব্যস্ত থাকাটা অস্বাভাবিক কিছু নয়। কিন্তু সেটা যদি একটা নিয়মিত ঘটনা হয়ে দাঁড়ায়, তা হলে কিন্তু সমস্যা! কারণ, ব্যস্ততা যতই থাকুক, প্রিয় মানুষটির জন্য সময় বের করতে অসুবিধা হবার কথা না। যদি লক্ষ্য করেন, ইদানীং প্রায়ই সে চলে যায় ব্যস্ততার অজুহাতে, দশ মিনিটও আর অপেক্ষা করতে চায় না। তা হলে আপনাকেই বুঝে নিতে হবে সে আর এই সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে চায় না।

৪। সময়ে-অসময়ে ঝগড়া করা-

যখন দেখবেন, কোনো কারণ ছাড়াই সে দিনারাত ঝগড়া বাঁধিয়ে বসছে, একটা কথা শুরু করার আগে আপনাকে দশবার ভাবতে হচ্ছে কী ভাবে বললে ঝগড়া বাঁধবে না, তখন বুঝবেন এটা স্বাভাবিক না। সম্পর্ক থেকে মন উঠে গেলেই চলে যাওয়ার অজুহাত খুঁজতে আপনার সঙ্গী এই কাজটি করছে।

৫। আপনার নানা বিষয় নিয়ে কটাক্ষ করা-

যদি দেখেন, আগে কোনো ভাবেই আপনাকে কোনো বিষয় নিয়ে ছোট-বড়ো কথা বলা, কটাক্ষ এমন করত না কিন্তু এখন হঠাৎ করেই শুরু করেছে, তা হলে সেটা আরও বিপজ্জনক। ব্রেকআপ করতে চায় বলেই শুরু হতে পারে এমন আচরণ। তা হলে বুঝে নিতে হবে, সম্পর্ক সুন্দরভাবে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার কোনো ইচ্ছাই আর তার নেই।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here