বাড়ির যত্নে মখমলি চুল পান এই পদ্ধতিতে

0

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিজের মাথার যত্ন নিজেই নিন। আর পেয়ে যান মখমলের মতো সুন্দর চুল। তার জন্য বিশেষ কিছু নয়, অনুসরণ করতে হবে মাত্র ৫টি ধাপ। পার্লারে যাওয়ার ঝক্কি ও খরচ দু’টি থেকেই মুক্তি।

তেল মালিশ

প্রাকৃতিক ও সব রকম রাসায়নিকমুক্ত ভৃঙ্গরাজ ও আমলকীর গুণে সমৃদ্ধ নারকেল তেল ঈষদুষ্ণ গরম করে ধীরে ধীরে মাথায় মালিশ করুন। ৫ – ৭ মিনিট। এর অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের প্রভাবে চুল পড়া কমে, ক্ষয়ক্ষতি কমে, আর্দ্রতা ও রক্ত চলাচল বাড়ে৷

Loading videos...

গরম তোয়ালে

তোয়ালেটি গরম জলে ভিজিয়ে চুলে জড়িয়ে নিন৷ এতে চুলের গোড়া ও ফলিকল পর্যন্ত তেল প্রবেশ করবে, ড্যামেজ ও রুক্ষতা কমবে৷ তোয়ালেটা গরম থাকা পর্যন্ত এ ভাবেই মাথায় লাগিয়ে রাখুন৷

ফলের মাস্ক

ফলের মাস্কের সাহায্যে ডিপ কন্ডিশনিং হয় চুল। দু’ টেবিলচামচ প্রাকৃতিক মধুর সঙ্গে চুল রুক্ষ হলে চুলের লম্বা অনুযায়ী পেঁপে, কলা বা অ্যাভোকাডোর পরিমাণ মেশান ও তৈলাক্ত চুল হলে স্ট্রবেরি, কিউয়ি আর অ্যালোভেরা নিন। প্যাক তৈরি করে সুন্দর ভাবে গোটা মাথায় লাগান। ২০ মিনিট রাখুন।

শ্যাম্পু করুন

সালফেট ও প্যারাবেন মুক্ত প্রাকৃতিক গুণসম্পন্ন শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে নিন। যে কোনো ক্ষেত্রে শ্যাম্পু কেনার আগেই দেখে নিন সালফেট ও প্যারাবেন আছে কিনা। এইগুলিই চুলের স্বাস্থ্য খারাপের জন্য যথেষ্ট।

কন্ডিশনার নিজে বানান

একেবারে শেষে স্প্রে কন্ডিশনার৷ কন্ডিশনার সরাসরি লাগালে চুল বেশি ভারী হয়ে যায়। তাই স্প্রে বোতলে এক কাপ জল, এক চা চামচ নারকেল তেল, আধ কাপ নারকেলের দুধ আর আধ কাপ অ্যালোভেরা জেল দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন৷ এটি চুলে স্প্রে করুন৷ এটি লাগানোর পর চুল ধোয়ার দরকার নেই৷ এটি বানিয়ে ঘরের তাপমাত্রায় ২ সপ্তাহ রেখে দেওয়া যাবে। ব্যবহারের আগে ভালো করে ঝাঁকিয়ে নিতে হবে৷

আরও – শীতকালে চুল সিল্কি রাখতে সহজ ২টি ঘরোয়া উপায়

পড়ুন শীতকালে গ্লিসারিন ব্যবহার করবেন কী ভাবে? ৪টি অতি সহজ পদ্ধতি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.