পুজোর আগে নারকেল তেল ব্যবহার করেই দেখুন

ওয়েবডেস্ক: পুজো তো প্রায় চলেই এল। পুজোর আগে নিজের ত্বকের, চুলের কিংবা ঠোঁটের সৌন্দর্য বাড়াতে বেছে নিতে পারেন নারকেল তেল।

একটা সময় ছিল যখন দিদিমা-ঠাকুমারা প্রতিদিন নারকেল তেল দিয়ে চুল ম্যাসাজ করতেন। মুখেও নারকেল তেলই লাগাতেন। কিন্তু সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ত্বকের পরিচর্যাতে এসেছে পরিবর্তন। উপকারী নারকেল তেলের পরিবর্তে এসেছে নানা রকমের ক্রিম এবং লোশন। ফলে স্কিনের সৌন্দর্য আদৌ কতটা বাড়ছে জানা নেই।

কিন্তু একাধিক গবেষণায় বলছে, অত্যধিক মাত্রায় প্রসাধনী ব্যবহারের কারণে ত্বকের বারোটা বেজে যাচ্ছে। তাই পুজোর আগে অপরূপ সুন্দরী হয়ে ওঠার পাশাপাশি যদি ত্বকের সৌন্দর্য বাড়াতে চান, তা হলে আজ থেকেই নারকেল তেলের ব্যবহার শুরু করুন।

১। ঠোঁটের সৌন্দর্য বাড়ায়

সারাদিন ধুলো-বালি ত্বকের ও ঠোঁটের মধ্যে জমছে। কিংবা অফিসে এসিতে বসে থাকার কারণে ঠোঁটের অবস্থা খারাপ, তা হলে ব্যবহার করতে পারেন নারকেল তেল। খুব বেশি সময় লাগে না। সামনে পুজো! তাই আর দেরি না করে  নারকেল তেল ব্যবহার করা শুরু করে দিন।

ঠোঁটকে নরম, মসৃণ এবং ঠোঁট ফেঁটে যাওয়ার মতো সমস্যা কমাতেও বিশেষ ভূমিকা পালন করে।

২। চুলের সৌন্দর্য বাড়ায়

চুল পড়া কমাতে, চুলের সৌন্দর্য বাড়াতে এবং চুলের গ্রোথ বাড়াতে নারকেল তেলের যে কোনও বিকল্প নেই, তা না বললেই চলে। তাই পুজোর আগে নিজের চুলকে যদি সুন্দর করতে চান তা হলে নিয়ম করে ব্যবহার করুন নারকেল তেল।

৩। ডার্ক সার্কেল

মাত্রাতিরিক্ত পরিশ্রম, রাত জেগে কাজ করা এবং আরও নানা কারণে বেশিরভাগ মহিলারই চোখের তলায় কালি পড়ে। ফলে সৌন্দর্য কমতে সময় লাগে না। তাই ডার্ক সার্কেলের কারণে যদি আপনারও সৌন্দর্য কমতে থাকে, তা হলে আজ থেকেই চোখের তলায় নারকেল তেল লাগাতে শুরু করুন।

মাথায় রাখবেন, পুজো আসতে কিন্তু আর খুব বেশি দিন বাকি নেই। তাই রাতে শুতে যাওয়ার আগে অল্প করে নারকেল তেল নিয়ে চোখের তলায় লাগিয়ে ভাল করে ম্যাসাজ করতে হবে। নিয়মিত করলে ডার্ক সার্কেল তো কমবেই। সেই সঙ্গে সৌন্দর্যও বৃদ্ধি পাবে চোখে পড়ার মতো।

আরও পড়ুন: খুব বেশি দিন তো বাকি নেই পুজোর! ত্বকের জেল্লা বাড়াতে এই ৪টি পদ্ধতি জেনে নিন

৪। মৃত কোষ দূর করে

অল্প পরিমাণে নারকেল তেল নিয়ে গরম করে নিন। তা রপর তাতে পরিমাণ মতো নুন ফেলে ভালো করে মিশিয়ে নেওয়ার পর মিশ্রণটি মুখে লাগিয়ে ভালো করে ম্যাসাজ করুন। নিয়ম করে যদি করতে পারেন দেখবেন ত্বকের উপরের অংশে জমতে থাকা মৃত কোষের স্তর সরে যাবে। ফলে ত্বক উজ্জ্বল এবং সুন্দর হয়ে উঠতে বেশি সময় লাগবে না।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন