Connect with us

রূপচর্চা

নিজেকে ফর্সা দেখতে চান? তা হলে একবার মেখেই দেখুন বাদামের প্যাক

ওয়েবডেস্ক: ফর্সা ত্বক পেতে কে না চায়! মনে মনে অনেকেই ভাবে ইস! গায়ের রংটা যদি আর একটু ফর্সা হতো। এই ধারণা প্রায় বেশির ভাগের মধ্যেই থাকে।

তবে আপনি চাইলে ১ সপ্তাহের মধ্যে ত্বকের রং বদলে দিতেই পারেন। কী ভাবে এমনটা সম্ভব, তাই ভাবছেন নিশ্চই?

সবই সম্ভব! নিয়মিত যদি মুখে বাদামের প্যাক লাগাতে পারেন তা হলে দেখবেন ত্বকের উজ্জ্বলতা যেমন বেড়েছে। সেই সঙ্গে মুখের মধ্যে থাকা কালো দাগ বা ব্রণ সমস্যা ও মুখে খুব তাড়াতাড়ি বার্ধক্যের ছাপ চলে আসা ইত্যাদি যাবতীয় সমস্যার সমাধান খুব সহজেই হয়ে যাবে।

তা হলে একবার জেনে নেওয়া যাক বাদামের গুণাগুণ সম্পর্কে-

১।  রুক্ষ ও শুষ্ক ত্বক

যাদের ত্বক খুব রুক্ষ ও শুষ্ক তাঁরা প্রতিদিন নিয়ম করে ঘুম থেকে উঠে সকালে খালি পেটে ৫-৬টি কাঁচা বাদাম খান। বাদাম শুধু খেলেই হবে না, সেই সঙ্গে মুখে বাদামের প্যাক মাখতে হবে।

উপকরণ 

গুঁড়ো করে নেওয়া চিনা বাদাম, দুধ, ওটস

পদ্ধতি 

গুঁড়ো করে নেওয়া চিনা বাদামের সঙ্গে ৪-৫ চামচ দুধ, ২ চামচ ওটস মিশিয়ে প্যাকটি বানিয়ে নিন। ১৫-২০ মিনিট মুখে লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে গেলে জল দিয়ে ধুয়ে নিন।

২। তৈলাক্ত ত্বক 

অনেকের ত্বকের মধ্যে তৈলাক্ত ভাব দেখা যায়। যেটা ত্বকের জন্য মোটেই ভালো নয়। প্রথমত, রাস্তায় বেরোলে ত্বক তৈলাক্ত হওয়ার কারণে মুখের মধ্যে ধুলো-বালি জমে মুখ কালো হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা তো থেকেই যায়।  আরও বড়ো সমস্যার কারণ হল মুখের মধ্যে ব্রণতে ভরে যায়। কিন্তু এই সমস্যা নিয়ে বেশি দিন বসে থাকা তো একেবারেই ঠিক হবে না।

উপকরণ 

৮-১০টি বাদাম, চন্দন, মুলতানি মাটি

পদ্ধতি 

বাদামটি আগে বেটে নিতে হবে। তারপরে বাদামের পেস্টের সঙ্গে ২ চামচ চন্দন গুঁড়ো, ৩ চামচ মুলতানি মাটি মিশিয়ে প্যাকটি বানিয়ে নিন। ২০-২৫ মিনিট মুখে লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে গেলে হালকা উষ্ণ জলে ধুয়ে ফেলুন।

৩। ত্বকের দাগ মেটাতে 

মুখের মধ্যে কোন ছোট ফুসকুড়ি হোক বা ব্রণর দাগ হোক। মুখ থেকে যেন সহজে মেলাতেই চায় না। কিন্তু মুখের মধ্যে দাগ-ছোপ নিয়ে ঘুরে বেড়াতে কারই বা ভালো লাগে। কিন্তু নিয়ম করে যদি বাদামের প্যাক মুখে লাগাতে পারেন তা হলে মুখ থেকে সমস্ত দাগ চলে যাবে।

উপকরণ 

৬-৭টি চিনা বাদাম, গোলাপ জল

পদ্ধতি 

চিনা বাদামগুলি আগে একটু বেটে নিতে হবে। বেটে রাখা বাদামটির মধ্যে ৪-৫ চামচ গোলাপ জল দিয়ে প্যাকটি বানিয়ে নিন। ১০-১৫ মিনিট মুখে লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে গেলে জল দিয়ে ধুয়ে নিন।

৪। ত্বকের রং ফর্সা করতে 

ত্বকের রং ফর্সা করতে বাজার চলতি অনেকেই অনেক কিছু মেখে থাকেন। কিন্তু এটা কী জানেন, বাদামের প্যাক যদি মুখে মাখেন তা হলে ত্বকের রং অনেকটাই ফর্সা হয়।

উপকরণ 

৫-৬টি চিনা বাদাম, চন্দন, দুধ

পদ্ধতি 

চিনা বাদামটাকে বেটে নিতে হবে। বেটে রাখা বাদামের মধ্যে ৩-৪ চামচ চন্দন গুঁড়ো, ২ চামচ দুধ মিশিয়ে প্যাকটি বানিয়ে নিতে হবে। ১৫-২০ মিনিট মুখে লাগিয়ে রাখার পর শুকিয়ে গেলে জল দিয়ে ধুয়ে নিন।

৫। ত্বকের বয়স কমাতে 

কে না চায় নিজের বয়স ধরে রাখতে! তবে, খাতায়-কলমে বয়স ৩০-এর কোটা পেরোলেও ত্বকের বয়স ২০-তেই আটকে থাকুক এমনটা যদি চান, তা হলে ত্বকের পরিচর্যায় ব্যবহার করুন বাদাম।

উপকরণ 

৬-৭টি চিনা বাদাম, অলিভ অয়েল, দই

পদ্ধতি 

চিনা বাদামটা প্রথমে গুঁড়ো করে নিন। তার পরে গুঁড়ো বাদামের সঙ্গে অলিভ অয়েল ও দই মিশিয়ে প্যাকটি বানিয়ে নিন। ১৫-২০ মিনিট মুখে লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে গেলে জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

জীবন যেমন

মুখের দুর্গন্ধ? দূর করার মোক্ষম ওষুধ বেকিং সোডার এই মিশ্রণ

bad-breath

খবরঅনলাইন ডেস্ক : অনেকেরই মুখে সাংঘাতিক গন্ধ থাকে। ফলে তারা হীনমন্যতায় ভোগে। লোকজনের সঙ্গে ঠিকভাবে মিশতেও ভয় পায়। এটি ভুক্তভোগীকে যেমন বিব্রত করে তেমন আত্মবিশ্বাস কমিয়ে দেওয়ার পক্ষেও যথেষ্ট। মুখে দুর্গন্ধ হয় অনেকগুলি কারণে। কোনোটি সাময়িক কোনোটি দীর্ঘস্থায়ী।

যেমন অনেকক্ষণ জল না খাওয়া, শুকনো মুখ, ভালো করে ব্রাশ না করা এবং পেঁয়াজ বা রসুন বেশি বা কাঁচা খাওয়া এই সব কারণে মুখে দুর্গন্ধ সৃষ্টি হয়। সমস্যার দ্রুত সমাধানও হয়। জল খেলে, ঠিকমতো দাঁত মাজলে এই গন্ধ চলে যায়। কিন্তু কিছু কারণ আছে যার জন্য গন্ধ যেতে চায় না। সেগুলি অভ্যন্তরীণ কারণ, যেমন মুখের ব্যাকটেরিয়া, টনসিলের সংক্রমণ, পাচনতন্ত্রের সমস্যার কারণে মুখে দুর্গন্ধ হতে পারে। আবার ধূমপানের জন্যও মুখ থেকে বদ গন্ধ ছাড়ে।

মুখের দুর্গন্ধে ভুগলে কী হবে সমাধান?

এর সমাধান আছে রান্নাঘরেই। এই সমস্যায় মোক্ষম বেকিং সোডা। দুর্গন্ধের প্রধান কারণ উচ্চ অ্যাসিড স্তরকে কমিয়ে দেয় বেকিং সোডা। বেকিং সোডা হল অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল, ফলে মুখের ব্যাকটেরিয়া মেরে ফেলে। আবার অ্যাসিড নয় বলে দাঁত, মাড়ি বা হাড়ের কোনো ক্ষতিও করে না।

কী ভাবে ব্যবহার করতে হবে?

বেকিং সোডা এবং টুথপেস্ট
টুথপেস্টের সঙ্গে আধ চা চামচ বেকিং সোডা মিশিয়ে তা ব্রাশে নিয়ে দাঁত ব্রাশ করুন। টানা এক সপ্তাহ ব্যবহার করলেই সুফল মিলবে।

বেকিং সোডা এবং জল

গরম জলে বেকিং সোডা গুলে একটি মাউথওয়াশ তৈরি করুন। জল হালকা ঠান্ডা হলে ৩০ সেকেন্ড থেকে এক মিনিট মুখে রেখে গার্গল করুন। এমন ভাবে কয়েক বার করতে পারলে ভালো হবে। টানা কয়েক দিন এই ভাবে গার্গল করলে খারাপ ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস হবে।

দাঁতে হলদে ছোপ পড়ছে? দূর করতে ১০টি ঘরোয়া উপায়

বেকিং এবং নুন

বেকিং সোডার মতো উপকার নুনেও। পিএইচ মাত্রা হ্রাস করে, অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল নুন। এক গ্লাস জলে ১ চা চামচ বেকিং সোডা, ১ চামচ নুন দিয়ে মিশ্রণ তৈরি করে নিয়মিত এক থেকে দুই মিনিট গার্গল করুন। দুর্গন্ধ দূর না হওয়া পর্যন্ত এটি করে যান।

এই সমস্যা সমাধানে পরের পর্বে থাকবে আরও কিছু টিপ।

পড়ুন – ডাক্তারের চেম্বার থেকে: মুখের দুর্গন্ধের সমস্যা

Continue Reading

রূপচর্চা

দীর্ঘ সময় মাস্ক পরে ত্বকের ক্ষতি হচ্ছে না তো?

face

খবরঅনলাইন ডেস্ক : প্রতি দিন ঘড়ি পরতে পরতে ত্বকের ওই জায়গার রঙে তফাত হয়ে যায়। ঠিক একই সমস্যা হতে পারে একটানা মাস্ক পরলেও। মাস্ক পরার ফলে ত্বকে কী কী ধরনের সমস্যা হতে পারে, আর তার থেকে বাঁচার উপায়ই বা কী?

ঘামের সমস্যা

মাস্কে নাকমুখ ঢাকা থাকলে গরমকালে ঘাম তো হবেই। সুতির কাপড়ের তৈরি একাধিক স্তরবিশিষ্ট মাস্ক পরতে পারেন। সংক্রমণের উপসর্গ না থাকলে আপাতত বাড়ির ভিতরে মাস্ক পরার দরকার নেই। বাইরে যাওয়ার সময় মনে করে ব্যাগে ওয়েট টিস্যু রাখুন। মুখ ঘেমে গেলেই ফাঁকা জায়গায় হাত স্যানিটাইজ করে টিস্যু দিয়ে ঘাম মুছে নিন।

লালচে ত্বক

সেনসিটিভ ত্বকে মাস্ক পরলে ত্বক লাল হবেই, বা র‍্যাশ বেরোনোর আশঙ্কাও থাকে। অনেক সময় জায়গাটা চুলকোয়, পাতলা সাদা চামড়া উঠতে থাকে। বাড়ি এসে মুখ ফেসওয়াশে ধোয়ার পর ঠান্ডা জল দিন। শেষে অ্যালোভেরা জেল লাগাতে পারেন তাতে ধীরে ধীরে লালচে ভাব কেটে যাবে।

ব্রণর উৎপাত

নাক-মুখ একটানা মাস্ক দিয়ে চেপে ঢেকে রাখার ফলে ওই অংশে খুব ঘাম হয়। যাঁদের ব্রণর ধাত, তাঁদের সমস্যা বেশি। গোটা অংশ ব্রণয় ভরে যেতে পারে। এ ক্ষেত্রে খুব ভালো ফল পাবেন স্পট ট্রিটমেন্টে। ব্রণ নিরাময়ের যে সব ক্রিম ওষুধের দোকানে পাওয়া যায়, তা ব্যবহার করতে পারেন। ঘরোয়া পদ্ধতির মধ্যে  চন্দন বেটে ব্রণর ওপরে লাগান। বাইরে থেকে ফিরে অয়েল-ফ্রি ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ধুয়ে হালকা ধরনের ময়শ্চারাইজার লাগান।

অ্যালার্জি হচ্ছে

মুখে মাস্ক পরলেই যদি জ্বালা করে, চুলকোয়, দানা দানা বেরোয় তা হলে বুঝতে হবে মাস্কের উপাদানটি ত্বকে সহ্য হচ্ছে না। তাই অ্যালার্জি হচ্ছে। মাস্কের ধরন বদলে দেখুন। সব থেকে ভালো সুতির কাপড়ের তৈরি একাধিক স্তর বিশিষ্ট মাস্ক।

ত্বকের রঙ বদল

একটানা কোনো জায়গা চাপা থাকলে সে অংশে রঙের তফাত হবেই। সেটি ঘড়ি বা চটি ইত্যাদি ব্যবহারের সময় বার বারই আমরা দেখেছি। ঠিক তেমনি একটানা মাস্ক পরলে মুখেও একই অবস্থা হবে। মাস্কে ঢাকা থাকা অংশটুকুর রং বাকি অংশের চেয়ে হালকা দেখাবে। কিন্তু মাস্ক পরতেই হবে, এ ক্ষেত্রে উপায় হল পুরো মুখ ঢেকে ফেলা। বাইরে বেরোলে সুতির নরম স্কার্ফ বা ওড়না দিয়ে পুরো মুখ আর মাথা ঢেকে নিন, চোখে পরুন রোদচশমা। কোভিড থেকেও বাঁচবেন, আবার ত্বককেও ক্ষতি হবে না।

বিশেষ টিপস –

১। ভেজা মাস্ক পরবেন না। সংক্রমণ হতে পারে। হতে পারে ত্বকের সমস্যাও। তাই সঙ্গে দু’ তিনটি বাড়তি মাস্ক রাখুন। ভিজে গেলেই বদলে নিন।

২। মাস্ক পরার আগে মুখে শিয়া বাটার, কোকো বাটার, জোজোবা অয়েল – এ রকম কোনো ক্রিম বা ময়শ্চারাইজার মেখে নিন। ত্বক ভালো থাকবে।

৩। মেকআপ না করাই ভালো। এতে ভাইরাস আটকে থাকে। সঙ্গে মুখও খুব ঘামে।

৪। ত্বকের নিয়মিত যত্ন নিতে হবে। ক্লেনজিং, টোনিং, ময়শ্চারাইজিং করতে হবে। অ্যালোভেরা বেসড টোনার আর ময়শ্চারাইজার ত্বকের জন্য খুবই ভালো।

৫। ত্বক জ্বালা করলে বা লাল হলে অই অংশগুলিতে বরফের কমপ্রেস করুন। পাতলা কাপড়ে বরফ মুড়ে নেবেন। আরাম পাবেন।

আরও পড়ুন – বিনা খরচে ত্বকের জেল্লা বাড়ানোর সহজ ৮টি পরামর্শ

Continue Reading

জীবন যেমন

বিনা খরচে ত্বকের জেল্লা বাড়ানোর সহজ ৮টি পরামর্শ

face

খবরঅনলাইন ডেস্ক : বিভিন্ন কারণে মন খারাপ হয়। তার প্রভাব পড়ে আমাদের ত্বকে। লকডাউনের কারণে তেমনই শরীর মনে কমবেশি চাপ পড়ার মতো পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যাচ্ছি আমরা সকলেই। তার ফল যেটা হচ্ছে, সেই ছাপ পড়ছে আমাদের চেহারায় ত্বকে। উলটো দিক থেকে ত্বক ভালো থাকলে মন ভালো থাকে। আলাদা কনফিডেন্স পাওয়া যায়। তাই একটু সময় বার করে খুব সাধারণ কয়েকটি কাজ নিয়মিত করুন। দেখবেন ত্বকের জেল্লা বাড়বে, সঙ্গে মনও ভালো থাকবে।

১। সকাল সকাল ঘুম থেকে ওঠা –  

দেরি করে ঘুমিয়ে তাড়াতাড়ি ওঠা সম্ভব নয়, কিন্তু যদি সময়মতো শোয়া যায় তা হলে তাড়াতাড়ি ঘুম থেকে ওঠা সম্ভব। সকাল সকাল ঘুম থেকে ওঠার সুফল ত্বকের ওপর কিছু তো বর্তায় অবশ্যই।

২। লেবুর জল খাওয়া –

লেবুর রসে থাকে প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং ভিটামিন সি। হালকা গরম জলে লেবুর রস মিশিয়ে খাওয়ার অভ্যাস করলে তা ভিতর থেকে শরীরকে পরিষ্কার ও রোগমুক্ত রাখে। তাতে লিভার ভালো থাকে। ফল হল ত্বক দারুণ ঝকঝকে থাকে।

৩। হাঁটা ও অল্প ব্যায়াম

এখন বাইরে বেরোনোর সুযোগ কম। কাজে লাগান ছাদকে। অথবা খুব ভোরে বাড়ির সামনের রাস্তা। ভোর ভোর উঠে হাঁটার অভ্যাস খুব কাজের। সঙ্গে করতে পারেন সাধারণ কিছু ফ্রি হ্যান্ড এক্সারসাইজ।  এতে শরীর ঝরঝরে হবে। বাড়িতে থাকার ফলে হাতে পায়ে লেগে যাওয়া জং ছাড়বে। ব্যায়াম ও হাঁটায় শরীর ঘামবে ও শরীর থেকে টক্সিন বেরিয়ে যাবে। সুতরাং ত্বকের জেল্লাও বাড়বে।

৪। মুখ ধোয়ার অভ্যাস

ঘুম থেকে উঠে দেখবেন মুখমণ্ডলের নানা জায়গা – নাক, কপাল, গাল তেলতেলে হয়ে আছে। এগুলোকে ধুয়ে ফেলতে হবে ঘুম থেকে উঠেই। যে কোনো একটা কোমল ফেসওয়াশ দিয়ে মুখটা ধুয়ে ফেলুন। তার পর ত্বকের ধরন ও ঋতুর সঙ্গে খাপ খাইয়ে  সিরাম বা ময়শ্চারাইজার মেখে নিন। সারা দিন ত্বক তরতাজা থাকবে।

৫। এক্সফোলিয়েট করুন

প্রত্যেক মানুষেরই ত্বকের ওপরে মৃত কোষ জমে। তাতে ত্বক বিবর্ণ অনুজ্জ্বল দেখায়। সপ্তাহে অন্তত দু’বার ঘরোয়া স্ক্রাব দিয়ে এক্সফোলিয়েট করুন।

৬। ফল ও সবজি খান

শাকসবজি, ফল ত্বক ভালো রাখে। প্রতি দিন ব্রেকফাস্টে যে কোনো একটি ফল বা সবজি খান। কলা খাওয়া যেতে পারে। যে কোনো ফল খাওয়া যায় জুস বানিয়েও। সকালে ব্রেকফাস্টের পর জুস খেলে তা শরীরের যান্ত্রপাতিগুলিকে ভিতর থেকে পরিষ্কার রাখে। ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখে। ত্বক হয় জেল্লাদার।

৭। জল খান

প্রচুর পরিমাণে জল খেলেও শরীরের বিভিন্ন অঙ্গপ্রত্যঙ্গের সঙ্গে ত্বকও পরিষ্কার থাকে। জেল্লা বাড়ে। জলের অভাবে ত্বক শুকনো লাগে।

৮। পরিমাণমতো ঘুম

অবশ্যই পরিমাণমতো ঘুম প্রত্যেক মানুষের জন্য জরুরি। তাই সাত থেকে আট ঘণ্টা অবশ্যই শরীরকে ঘুমোতে দিতে হবে। তা না হলে ক্লান্তি বোধ বাড়ে, চোখের তলায় কালি পড়ে, ত্বক জেল্লা হারায়।

Continue Reading
Advertisement

কেনাকাটা

কেনাকাটা2 days ago

হ্যান্ডওয়াশ কিনবেন? নামী ব্র্যান্ডগুলিতে ৩৮% ছাড় দিচ্ছে অ্যামাজন

খবরঅনলাইন ডেস্ক : করোনাভাইরাস বা কোভিড ১৯ এর সঙ্গে লড়াই এখনও জারি আছে। তাই অবশ্যই চাই মাস্ক, স্যানিটাইজার ও হ্যান্ডওয়াশ।...

কেনাকাটা5 days ago

ঘরের একঘেয়েমি আর ভালো লাগছে না? ঘরে বসেই ঘরের দেওয়ালকে বানান অন্য রকম

খবরঅনলাইন ডেস্ক : একে লকডাউন তার ওপর ঘরে থাকার একঘেয়েমি। মনটাকে বিষাদে ভরিয়ে দিচ্ছে। ঘরের রদবদল করুন। জিনিসপত্র এ-দিক থেকে...

কেনাকাটা7 days ago

বাচ্চার জন্য মাস্ক খুঁজছেন? এগুলোর মধ্যে একটা আপনার পছন্দ হবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিউ নর্মালে মাস্ক পরাটাই দস্তুর। তা সে ছোটো হোক বা বড়ো। বিরক্ত লাগলেও বড়োরা নিজেরাই নিজেদেরকে বোঝায়।...

কেনাকাটা1 week ago

রান্নাঘরের টুকিটাকি প্রয়োজনে এই ১০টি সামগ্রী খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক : লকডাউনের মধ্যে আনলক হলেও খুব দরকার ছাড়া বাইরে না বেরোনোই ভালো। আর বাইরে বেরোলেও নিউ নর্মালের সব...

নজরে