ওয়েবডেস্ক: যতদিন যাচ্ছে মুখের মধ্যে মেচেতায় ভরে যাচ্ছে? সঙ্গে আবার ব্রন ও কালো ছোপও রয়েছে? কাজের জন্য নিশ্চয় বাইরে বেরোতে হয়?

ওখানেই তো যত সমস্যা!

চিকিৎসকেরা হয়তো বলে থাকেন সূর্যের রশ্মি গায়ে লাগাতে। সবসময় তাতে যে উপকার হয় তা কিন্তু নয়। অনেক সময় মুখের মধ্যে সূর্যের রশ্মি লেগে মেচেতা ও ব্রনর সমস্যাও দেখা দেয়।

কিন্তু তার জন্য তো আর চুপ করে বসে থাকলে হবে না। সেই সমস্যার সমাধান করতে পারেন ঘরোয়া পদ্ধতিতে।

তাহলে জেনে নেওয়া যাক পাঁচটি ঘরোয়া পদ্ধতির কথা-

১। লেবুর রস

পাতিলেবু যে অনেক কাজে লাগে তা সকলেরই জানা। বাড়িতে লেবু থাকলে রান্নাকে সুস্বাদু করার জন্য যেমন রান্নার কাজে ব্যবহার করেন। ঠিক তেমনই রান্না বাদ দিয়ে এবার নিজের ত্বকের কথা ভেবে ত্বকের একটু যত্ন নিয়ে ফেলুন।

মুখে মেচেতা হলে সেখানেও লেবুর বিশাল অবদান রয়েছে। একটি বাটির মধ্যে ২-৩ চামচ লেবুর রস নিন। এরপরে ৮-১০ মিনিট মুখে লাগিয়ে হালকা করে ম্যাসাজ করুন। হালকা উষ্ণ জলে ধুয়ে ফেলুন। একমাসের মধ্যে বুঝতে পারবেন আপনার ত্বকে থাকা মেচেতা, ব্রন, কালো দাগ সব চলে গেছে।

২। অ্যালোভেরা

যেমন লেবুর অনেক গুণ রয়েছে তেমনই অ্যালোভেরাও অনেক কাজে লাগে।

বাড়িতে অ্যালোভেরা গাছ আছে?  যদি থাকে তাহলে তো চিন্তা করার কোনো কারণ নেই। যদি না থাকে তাহলে দোকান থেকে কিনে নেওয়া যেতে পারে।

মুখের যেখানে যেখানে মেচেতা বা ব্রন হয়েছে মাত্র ১৫ মিনিট  অ্যালোভেরা জেলটা লাগিয়ে রাখুন। তারপরে ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

৩। দুধ ও লেবু

প্রত্যেকের বাড়িতে দুধ থাকে। সেই দুধ থেকেই এক কাপ দুধ নিয়ে ভালো করে দুধটা ফুটিয়ে নিন। তারপরে ঘন হয়ে এলে একটু ঠান্ডা হতে দিন। এক চামচ পাতি লেবুর রসের সঙ্গে দুধটা মিশিয়ে একটি প্যাক বানান। অন্তত ১৫ মিনিট রেখে হালকা উষ্ণ জলে ধুয়ে ফেলুন।

৪। আমন্ড তেল

মেচেতা থেকে মুক্তি পেতে একটু বেশি খরচ করে আমন্ড তেল কিনেই ফেলুন। দেখবেন এতে আপনার ভালোই হবে। কারণ এতে থাকে ভিটামিন-ই। ২-৩ চামচ আমন্ড তেল নিয়ে ভালো করে মুখে লাগান। অন্তত ১ ঘণ্টা মুখে লাগিয়ে রাখতে হবে। তারপরে হালকা উষ্ণ জলে ধুয়ে ফেলুন। যখন আপনি সময় পাবেন তখনই এই আমন্ড তেলের প্যাকটি লাগাতে পারেন।

৫। পুদিনা ও কলা

মেচেতা, মুখের কালো ছোপ দূর করতে পুদিনা ও কলা দারুণ উপকারী। আগে পুদিনা পাতাটা ভালো করে বেঁটে নিন। একটা কলা নিয়ে ভালো করে চটকে নিন এবং এর সঙ্গে পুদিনা পাতার মিশ্রণটা দিয়ে প্যাকটি বানান। অন্তত ৮-১২ মিনিট রেখে ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here