চোখের তলায় কালি পড়ে যাচ্ছে? ট্রাই করতে পারেন এই ৫টি ঘরোয়া টোটকা

0
Dark-circle
প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: দুঃশ্চিন্তা, ভালো মতো ঘুম না হওয়া, মানসিক ও শারীরিক চাপ, দুর্বলতা ইত্যাদির থেকে ধীরে ধীরে চোখের তলায় কালো দাগ পড়তে শুরু করে। তাকেই বলা হয় চোখের তলার কালি। এই কালো ছোপ একবার শুরু হলে তা নিজে থেকে কমার নামই নেয় না। সে ক্ষেত্রে অবশ্য বাইরে থেকে চেষ্টা করেও এই কালো দাগ দূর করা যায়।

তার জন্য রয়েছে খুবই সহজ কয়েকটি উপায়। আর যা উপকরণ লাগবে তা সচরাচর সব বাড়িতেই থাকে। তা হলে দেখে নেওয়া যাক –

শশা

চোখের কালি দূর করতে শশার ব্যবহার করা খুবই সহজ ও প্রচলিত একটি উপায়। শশার রস কালি খুব দ্রুত দূর করতে পারে। প্রথমে দুই টুকরো শসা কেটে চোখের ওপর দিয়ে রাখতে হবে, তার পর মিনিট ২০ কেটে গেলে টুকরো দু’টি তুলে নিতে হবে। রোজ বা সপ্তাহে চার দিন করা যেতে পারে।

আলু ও শশা –

শশার সঙ্গে যদি আলুর ব্যবহার করা যায় তা হলেও চোখের কালি দ্রুত দূর হয়। আলু আর শশা এক সঙ্গে ঘষে বা বেটে নিয়ে সেই পেস্ট যদি চোখ আর তার চারপাশে দিয়ে রাখা যায় তা হলে উপকার হবে। পেস্টটি অন্তত পক্ষে ২০ মিনিট বন্ধ চোখের ওপর দিয়ে রাখতে হবে। তার পর ধুয়ে নিতে হবে। এই পদ্ধতি সপ্তাহে কম করে তিন দিন করলে ফল তাড়াতাড়ি পাওয়া যাবে।

কমলা লেবু

সামনেই শীতকাল আসছে। এই সময় চোখের তলার কালো দাগ দূর করার একটি ভালো উপকরণ বাজারে আসে। তা হল কমলালেবু। কমলালেবুর রস নিয়ে তাতে কয়েক ফোঁটা গ্লিসারিন ফেলে নিতে হবে। তার পর তা চোখের তলায় ও চারপাশে লাগিয়ে রাখতে হবে। এতে কালো দাগ দূর হবে ও ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়বে।

টমেটো – টমেটো চোখের কালো দাগ দূর করার জন্য অন্যতম একটি উপকরণ। টমেটোর রস খানিকটা নিয়ে চোখের চারপাশে দিয়ে রেখে দিতে হবে। ১০ মিনিট পর ধুয়ে নিতে হবে।

টমেটো ও পাতিলেবু –

টমেটো শুধু ব্যবহার করা ছাড়াও টমেটোর সঙ্গে যদি পাতিলেবুর রস খানিকটা মিশিয়ে নেওয়া যায় তা হলে উপকার আরও তাড়াতাড়ি হবে। এ ক্ষেত্রে দু’টি রসই সমান পরিমাণ নিতে হবে। দশ মিনিট এই রসের মিশ্রণটি লাগিয়ে রেখে ধুয়ে ফেলতে হবে।

তবে সব কিছু বাইরে থেকে করলেই হবে না। অসুস্থ শরীরের কারণেও চোখের তলায় কালি পড়ে। তাই শরীরকে সুস্থ রাখতে হবে। ভালোমন্দ খাবার খেতে হবে। প্রচুর পরিমাণ জল ও উপযুক্ত ঘুম চোখের তলার কালি দূর করতে ভেতর থেকে সাহায্য করবে।

পড়তে পারেন –

মুখের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করতে কফির ৩টি ব্যবহার আপনাকে উপকার দেবেই দেবে

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.