ওয়েবডেস্ক: ব্যাকলেস কিংবা অফশোলডার ড্রেস পরতে খুব ইচ্ছা করছে? কিন্তু পিঠ তেমন ফর্সা নয়। তাই ইচ্ছা থাকলেও পরতে পারেন না। এই সমস্যা অনেকেরই। কিন্তু ভেবে দেখুন তো মুখের যত্ন যে ভাবে করেন, পিঠেরও কি সে ভাবে করেন? না তো? সেই জন্যই এই সমস্যা।

মুখের মতো পিঠও চায় একটু যত্ন। তা হলেই পিঠের এই কালো ভাব দূর করে ফর্সা উজ্জ্বল পিঠ পেতে পারেন। কী ভাবে করবেন পিঠের যত্ন? আসুন জেনে নেওয়া যাক।

১। পিঠের ত্বক টানটান রাখতে

বয়সের সঙ্গে পিঠের ত্বক যাতে কুঁচকে না যায়, তাই পিঠকে সুন্দর, মসৃণ ও ফর্সা রাখতে ব্যবহার করুন এই প্যাক।

উপকরণ

২ টো ডিম- কুসুমটা বাদ দিয়ে, ৩ চামচ দই, ৩ চামচ মুলতানি মাটি, মধু ১ চামচের একটু বেশি, খুব সামান্য বেকিং সোডা।

পদ্ধতি

সব উপকরণগুলি ভালো করে মিশিয়ে নিন। এ বার এই ঘন পেস্ট পিঠে লাগান। ২০ মিনিট রাখুন। তার পর ধুয়ে ফেলুন। এটি সপ্তাহে একবার করলেই হবে। পিঠের ত্বক থাকবে মসৃণ ও টানটান।

২। পিঠের ট্যান দূর করতে

পিঠে ট্যান পড়ে গেছে? ট্যান দূর করে পিঠকে ফর্সা করতে ব্যবহার করুন এই প্যাক।

উপকরণ

চন্দন ২ চামচ, টম্যাটোর পেস্ট ২ চামচ ও শসার পেস্ট ২ চামচ।

পদ্ধতি

চন্দন পাউডারের সঙ্গে, টম্যাটো পেস্ট এবং শসার পেস্ট মিশিয়ে নিন। চাইলে টম্যাটো ও শসার রসও ব্যবহার করতে পারেন। সব উপকরণগুলি ভালো করে মিশিয়ে নিন। এ বার এই ঘন পেস্ট গোটা পিঠে ভালো করে লাগান। স্নানের ১৫ থেকে ২০ মিনিট আগে এটি লাগান। তার পর ধুয়ে ফেলুন।

৩। পিঠের স্ক্রাব

মুখের মত পিঠেও স্ক্রাবিং করা দরকার। স্ক্রাবিং হিসাবে ব্যবহার করুন এই প্যাক। যা পিঠের মরা কোশ সরিয়ে, পিঠকে করে তুলবে ফর্সা ও উজ্জ্বল।

উপকরণ

১ চামচের একটু বেশি চালের গুঁড়ো, ২ চামচ বেসন, ২ চামচ দই।

পদ্ধতি

এই সব উপকরণ গুলি ভালো করে মেশান। ঘন মিশ্রণ হলে পিঠে লাগান। ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। ২০ মিনিটের বেশি রাখবেন না। সপ্তাহে ২ দিন করুন। এতে পিঠের ছোট ছোট ব্রণও দূর হবে আবার পিঠ দেখবেন কেমন ঝকঝকে লাগবে।

[আরও পড়ুন: ফেসিয়াল করার পরে ভুলেও করবেন না এই ৫টি কাজ] 

৪। দ্রুত পিঠ ফর্সা করতে

তাড়াতাড়ি পিঠের ত্বক ফর্সা করতে চাইলে কাজে লাগান বেসন ও হলুদকে। ত্বকের রং ফর্সা করতে বেসন ও হলুদ কতটা উপকারী তা নিশ্চই সবাই জানেন।

উপকরণ

৩-৪ চামচ বেসন ও ২ চামচ হলুদ বাটা।

পদ্ধতি

কাঁচা হলুদ আগে বেটে নিন। এর পর ২ চামচ হলুদ বাটার সঙ্গে ৪ চামচ বেসন মেশান। ভালো করে দু’টো উপকরণ মিশিয়ে নিন। এ বার এই ঘন পেস্টটা পিঠে লাগান। ১৫-২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ৩ দিন করুন দ্রুত ফল পেতে।

৫। পিঠের কালো দাগ দূর করতে

যদি পিঠে নানারকম কালো দাগ থাকে, সেগুলি দূর করতে ব্যবহার করুন এই প্যাক।

উপকরণ

৪ চামচ মুসুর ডাল বাটা, দই ২ চামচ ও একটু লেবুর রস।

পদ্ধতি

মুসুর ডাল সারারাত ভিজিয়ে রাখুন। এর পর ভালো করে ব্লেন্ড করে নিন। এতে মেশান দই ও লেবুর রস। ভালো করে মিশিয়ে পিঠে ও ঘাড়ে লাগান। ৩০ মিনিট রাখুন। তারপর ধুয়ে নিন। সপ্তাহে ২ দিন করুন। পিঠের কালো দাগ দূর তো হবেই, পিঠ চকচকেও হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here