ওয়েবডেস্ক: এখন বেশিরভাগ মানুষই চুলের সমস্যায় ভোগেন। চুল নিয়ে মানুষের নাজেহাল অবস্থা। তার মধ্যে নিজেদের কাজের ব্যস্ততার মধ্যে সময় বের করে চুলের যত্ন নেওয়াও অসম্ভব হয়ে যায়।

তারপরে চুল নিয়ে ভুগতে হয় নানা সমস্যায়। চুল উঠে যাওয়া, চুলের বৃদ্ধি না পাওয়া, চুলের উজ্জ্বলতা হারিয়ে যাওয়া ইত্যাদি নানারকম সমস্যা।

ভাবছেন এই সমস্যা থেকে কীভাবে সমাধান পাবেন। সে জন্য আপনাকেও একটু সচেতন হতে হবে। নিজের  চুলের যত্ন নিজেকেই নিতে হবে। তবে বাড়িতে বসে যদি ঘরোয়া পদ্ধতিতে চুলের এই সমস্যাগুলি থেকে মুক্তি পান তা হলে কেমন হয়।

চলুন জেনে নেওয়া যাক ঘরোয়া পাঁচটি পদ্ধতির গুণাগুণ-

১। কন্ডিশনার

চুলে শ্যাম্পু করার পর কন্ডিশনার নিশ্চই লাগান। তবে বাজারচলতি কোনো কন্ডিশনার ব্যবহার না করে যদি ঘরোয়া পদ্ধতিতে চুলে কন্ডিশনার লাগান তা হলে উপকার পাবেন।

চা করার পর চায়ের যে লিকারটা বেরোয় সেটাকেই আপনি চুলের কন্ডিশনার হিসাবে ব্যবহার করুন। দেখবেন এতে আপনার চুলের উজ্জ্বলতা ফিরে এসেছে।

২। গরম তেল

সবসময় যে বাজার চলতি তেল মেখে চুল ভালো থাকে তা কিন্তু নয়। বরং ঘরোয়া পদ্ধতিতে নিম পাতা, কেশজ্জি পাতা, আমলকি, জবা ফুলের কুড়ি এগুলি দিয়ে তেল বানিয়ে হালকা উষ্ণ অবস্থায় মাথায় তেল ম্যাসাজ করুন। দেখবেন চুলের বৃদ্ধি হবে, এমনকী যে সব জায়গায় চুল পড়ে ফাঁকা হয়ে গেছে সেখানেও নতুন চুল হতে পারে।

৩। চুল আঁচড়িয়ে শুতে যান

ঘুমোতে যাওয়ার আগে অন্তত একবার চুল আঁচড়িয়ে নিন। তা হলে দেখবেন আগের থেকে অনেক কম চুল উঠছে। এতে আপনার চুল অনেক কম উঠবে।

৪। ভেজা চুলে টাওয়াল জড়িয়ে রাখবেন না

ভেজা চুলে কখনই বেশিক্ষণ টাওয়াল জড়িয়ে রাখবেন না। কারণ ভেজা চুলের মধ্যে টাওয়াল জড়িয়ে রাখলে আরো বেশি করে চুল উঠবে। এ ছাড়া চুলের গোড়াকে আলগা করে দেয়।

৫। ডিম

বাড়িতে সময় পেলে চুলের মধ্যে ডিম লাগাতে পারেন। এতে দেখবেন আপনার চুল যেমন ভালো থাকবে আবার তেমনই চুলের উজ্জ্বলতা ফিরে পাবেন। চুলের মধ্যে খুসকি থাকলে তাও চলে যাবে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here