Bongo Nari
বলিউড অভিনেত্রী দিয়া মির্জার হাত থেকে পুরস্কার নিচ্ছেন মৌমিতা সাহা।

কলকাতা: দিল্লির রাজপথে তখন ২৬ জানুয়ারির প্যারেড চলছে, পথের দু’পাশে বসে থাকা দর্শকের চোখ ছানাবড়া বাইকের উপর সীমা ভবানীর কীর্তিকলাপ দেখে। সীমা ভবানী, বিএসএফের মহিলা বাইকার্স টিমের সদস্য। এ বারের ২৬ জানুয়ারির প্যারেডে তিনিই দর্শকদের চোখ টেনেছেন।

এর ঠিক দু’দিন আগে চার মাসের অন্তঃসত্ত্বার পেটে লাথি মেরে গর্ভস্থ সন্তান নষ্ট করার অভিযোগে পুলিশ গ্রেফতার করেছে শ্বশুর-শাশুড়িকে। এই ঘটনা দক্ষিণ ২৪ পরগনার নরেন্দ্রপুর থানার দাসপাড়া এলাকার।

এক দেশে দু’টো বিপরীত ছবি। একটি মেয়েদের সাহসিকতার, বীরত্বের, আর একটি অসহায়তার। এমন বীরত্বের ছবি হাতে গোনা কয়েকটি দিন দেখতে পাওয়া। কাগজের পাতা ওলটালে, টিভি খুললে বা নিউজ ওয়েবসাইটে ঘোরাফেরা করলে প্রায় প্রতি দিনই মেয়েদের এমন অসহায়তার খবর মিলবে ।

‘‘আসলে অর্থনৈতিক ভাবে স্বনির্ভরতার অভাব থেকেই মেয়েদের এমন অসহায়তা তৈরি হয়। মেনে নিতে হয় শ্বশুরবাড়ির লাঞ্ছনা-গঞ্জনা।’’ বলছিলেন মৌমিতা সাহা। বাংলার ঐতিহ্যশালী শাড়ি ও হস্তশিল্পের বুটিক ‘বঙ্গ নারী’র কর্ণধার।

মৌমিতা নিজেকে কর্ণধারের চেয়ে সংগঠক হিসাবেই ভাবতে ভালোবাসেন। ‘‘আসলে বঙ্গ নারী একটা প্ল্যাটফর্ম যেখানে অনেক মেয়ে তাঁদের তৈরি হস্তশিল্প রেখে বিক্রি করেন। স্বনির্ভর হয়ে স্বপ্ন দেখতে পারেন।’’

সম্প্রতি তাঁর এই উদ্যোগের স্বীকৃতি মিলেছে। বাংলার ঐতিহ্যশালী শাড়ি এবং হস্তশিল্প বিক্রির জন্য পেয়েছেন ‘ইন্ডিয়া অ্যাচিভার্স অ্যাওয়ার্ডস ২০১৯’। গত ২০ জানুয়ারি বেঙ্গালুরু তাজ হোটেলে এই পুরস্কার মৌমিতার হতে তুলে দিয়েছেন বলিউড অভিনেত্রী দিয়া মির্জা।

bongo nari certificate
শংশাপত্র

আইটি সেকটরের চাকরি ছেড়ে স্বনির্ভর হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে কসবার বোসপুকুরে নিজের এই বুটিকটি খোলেন মৌমিতা। তার আগে অনলাইনে শুরু করেছিলেন ব্যবসা। তবে শুধু একা স্বপ্ন দেখা নয়, ‘বঙ্গ নারী’কে প্ল্যাটফর্ম করে স্বনির্ভর হয়ে ওঠার স্বপ্নকে অন্যর মধ্যে ছড়িয়ে দিচ্ছেন তিনি।

[আরও পড়ুন : শুষ্ক ত্বকের যত্ন নেবেন? চটজলদি ঘরেই বানিয়ে ফেলুন বডি অয়েল]

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here