হবু মায়েদের ফ্যাশনে চমক, একটু ঢিলেঢালা পোশাক বাঞ্ছনীয়, মনে করেন বিশেষজ্ঞরা

0

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সন্তানের জন্মের সঙ্গে সঙ্গেই একজন মায়েরও জন্ম হয়। প্রতিটি মেয়ের জীবনের এটি একটি নতুন অধ্যায়। গর্ভাবস্থায় মায়ের শরীরে ধীরে ধীরে আসতে থাকে বেশ কিছু শারীরিক পরিবর্তন। পছন্দের পোশাক তখন অনেক সময়েই পরা যায় না। গর্ভাবস্থায় অফিসে যেতে হলে কিংবা বাইরে বের হতে হলে কোন পোশাক পরবেন তা নিয়ে চিন্তার অন্ত থাকে না।  বেবিবাম্প দেখিয়ে স্টাইলিস পোশাক পরার এক নয়া ট্রেন্ড শুরু হয়েছে। মাতৃত্বের আনন্দ, যত্ন ও সুখের সন্ধানে ফ্যাশনও জড়িয়ে গিয়েছে। গর্ভবতী মায়েদের জন্য ফ্যাশন শোয়েরও আয়োজন করে বেশ কিছু সংস্থা। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, গর্ভকালীন সময়ে মায়েদের স্বাভাবিক ভাবেই শ্বাসপ্রশ্বাসে কিছুটা সমস্যা হতে পারে। তবে তাঁর পোশাক খুব বেশি চাপা হলে বুকে ও পেটে চাপ পড়বে। এতে তাঁর অস্বস্তি বাড়বে। তাই একটু ঢিলেঢালা পোশাক পরাই ভালো। শারীরিক সৌন্দর্যও ধরে রাখার মতো উপযুক্ত পোশাক পরা উচিত গর্ভাবস্থায়।

নার্সিং ড্রেস

Shyamsundar

মেটারনিটি বা নার্সিং ড্রেসকে এখন একটি সুন্দর পোশাক হিসেবে ধরা হয়। এই পোশাক শুধু স্টাইলিশ বা কেতাদুরস্তই নয়, আরামদায়কও বটে। গাউন, মিডিস বা কাফতান পোশাক এই সময়ে ওয়্যার্ড্রোবে রাখতে ভুলবেন না যেন। বিভিন্ন ধরনের নকশা, উপাদান, রঙ ও ফ্যাশনশৈলীর দিকে নজর রাখতে পারেন। এ ছাড়া সেই পোশাক দীর্ঘমেয়াদী ও বহুমুখী কাজের জন্য ফেব্রিক কিনা তা-ও দেখে নেবেন। এমন পোশাক বাছুন যা প্রসবের আগে ও পরে, দু’ সময়েই পোশাক পরতে পারেন। 

সুতি, ফ্লেক্সসুতি, বা রেয়ন ফেব্রিকের পোশাক ব্যবহার করা আবশ্যিক। অ্যানিমাল প্রিন্টস, ইকত কাপড় বা খাড়ি কাপড় এই অবস্থার জন্য আরামদায়ক ও নজরকাড়াও বটে।

পরুন লেগিংস

গর্ভাবস্থায়ও মেয়েরা একটা নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত নিয়মিত অফিসে যান। তাঁরা কিন্তু আরামসে লেগিংস পরে অফিসে যেতে পারেন। সুতি বা লিনেনের কুর্তির সঙ্গে লেগিংস খুবই মানানসই। বেশির ভাগ মহিলাই জিনস ও টপ পরতে বেশি স্বচ্ছন্দ বোধ করেন।

মেটারনিটি জিনস  

গর্ভাবস্থায় জিনস পরাটা একটু চাপের হয়ে যায় কোনো কোনো সময়ে। এখন গর্ভবতী মহিলাদের কথা মাথায় রেখে বাজারে নানা ডিজাইনের ও প্যাটার্নের মেটারনিটি জিনস কিনতে পাওয়া যায় যেগুলো পরে ফ্যাশন করা তো যায়ই পাশাপাশি এগুলো খুব আরামদায়কও হয়।

পরতে পারেন টিউনিক

টিউনিক কিন্তু স্টাইল স্টেটমেন্ট হিসেবেই বলুন বা ফ্যাশন কোশেন্ট হিসেবেই বলুন, বহু কাল ধরেই ফ্যাশনের ক্ষেত্রে একটি জায়গা করে নিয়েছে। এই পোশাকটি কিন্তু গর্ভাবস্থায় পরার জন্য আদর্শ। টিউনিক যে হেতু ডিজাইন হিসেবেই একটু ঢিলেঢালা পোশাক, তাই গর্ভবতী মহিলাদের কাছে এটি অত্যন্ত প্রিয় ও আরামদায়ক পোশাক। 

নানা ধরনের স্কার্ট

ম্যক্সি স্কার্ট থেকে শুরু করে এ-লাইন স্কার্ট, প্লিটেড স্কার্ট, এমনকি শর্ট লেয়ারড স্কার্ট গর্ভাবস্থায় পরা যেতে পারে। মানানসই টপ বা শার্ট দিয়ে। আসলে গর্ভাবস্থায় স্কার্ট পরার অনেক সুবিধে রয়েছে। স্কার্ট বেশ আরামদায়ক ঢিলেঢালা পোশাক, গর্ভবতী মহিলাই নিজেকে ফ্যাশনেবল করে তুলতে এ সময়ে স্কার্ট পরতে পছন্দ করেন।

এ-লাইন ড্রেস

এ-লাইন ড্রেস কিন্তু এমন একটি পোশাক যা স্টাইল বা ডিজাইন, যাই বলুন না কেন, কোনো দিন পুরোনো বা আউট অফ ফ্যশন হবে না। গর্ভবতী থাকাকালীন এ-লাইন ড্রেস সব সময়েই আরামদায়ক এবং ফ্যাশনেবল! ম্যাক্সি জাতীয় পোশাক পরলে তা আরামদায়ক ও আনন্দদায়ক। ভি-নেক, এ লাইন কুর্তা বেছে নিতে পারেন। তার সঙ্গে বাটনবিহীন ডেনিম ভেস্ট, জ্যাকেট যুক্ত করতে পারেন। 

অনলাইনে কেনাকাটা করতে হলে এখানে ক্লিক করুন

আরও পড়তে পারেন

চাকরির ইন্টারভিউয়ে কেমন পোশাক পরবেন

বর্ষায় যেমন পোশাকে নিজেকে সাজিয়ে তুলবেন

বর্ষায় পোশাকে ফাঙ্গাস? দূর করতে রইল ৮ টি পদ্ধতি

মোজা পরা পায়ের দুর্গন্ধ থেকে মুক্তি পেতে হলে

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন