Connect with us

রংযাপন

রং খেলার আগে ও পরে ত্বকের যত্ন কী ভাবে নেবেন?

স্মিতা দাস

ভাঙ, প্যাঁড়া, ঠান্ডাই, রং- সব মিলিয়ে জমজমাট হোলি। আর ইতিমধ্যেই এই সব উপকরণ বাড়িতে মজুত করে ফেলেছেন প্রায় অনেকেই। কিন্তু রং খেলার পর আপনার ত্বকের কী হাল হবে! সে ব্যাপারে কি ভেবেছেন? যদি ভেবে নাও থাকেন তবে এ বার ভাবুন। তা না হলে রং খেলার সময় আপনি হাসলেও আপনার ত্বক-চুল কিন্তু মোটেই হাসবে না। এমনকি আগামী কয়েক দিনও হাসার কথা ভাবতেই পারবে না। তাই সময় থাকতেই যতটা সম্ভব তৈরি হয়ে তবেই দোল খেলায় মাতুন।

জল খেতে হবে – মনে রাখবেন দোলের দিন কিন্তু হুড়োহুড়ি আর আনন্দে মেতে থেকে জল খাওয়ার পরিমাণ খুবই কম হয়। তাতে ত্বকের ক্ষতি করে। তাই ত্বক ভালো রাখতে দিনের শুরু থেকেই বেশি করে জল খেতে শুরু করুন, যাতে শরীরে জলের ঘাটতি না হয়। জল শরীরকে সতেজ করে, টক্সিন দূর করে, সঙ্গে শরীর যথেষ্ট আর্দ্র থাকলে রঙের সঙ্গের কেমিক্যালও শরীরে চেপে বসে যেতে পারে না। তাই খেলার আগে, পরে ও খেলার সময় যতটা সম্ভব জল খান।

সারা গায়ে তেল মাখুন – শরীরের যে সব অংশে রং বেশি লাগার সম্ভাবনা থাকে সেই সব অংশে তো অবশ্যই, তা ছাড়াও সারা শরীরেই ভালো করে, বেশি করে তেল মাখুন। তেলের মধ্যে সাধারণ সরষের তেল, নারকেল তেল তো ব্যবহার করাই যায়। যদি আপনি আরও বিশেষ কোনো তেল ব্যবহার করতে চান সে ক্ষেত্রে অলিভ ওয়েল বা ভিটামিন ই ওয়েলও ব্যবহার করতে পারেন।

মাথায় তেল – চপচপে করে সারা মাথায় তেল দিন। লম্বা চুল থাকলে সঙ্গে লম্বা চুলেও। তার পর শক্ত করে চুল বেঁধে, গুটিয়ে নিন। এতে যতটা সম্ভব কম রং মাথায় বসবে।

ওয়াটারপ্রুফ সানস্ক্রিন – খেলতে নামার আগে ওয়াটারপ্রুফ সানস্ক্রিন লোশন লাগিয়ে নিন ভালো করে। তা না হলে রঙের ওপর দিয়ে রোদ ত্বকের বারোটা বাজিয়ে দেবে।

আরও পড়ুন : বাড়িতে বানান হোলি স্পেশাল কেশর প্যাঁড়া, মুখে দিন আর হারিয়ে যান

জামাকাপড় – চামড়াকে রঙের কুপ্রভাব থেকে বাঁচাতে একটা আরও কাজ আপনাকে রং খেলার আগে করে নিতে হবে। তা হল যতটা সম্ভব গা হাত পা ঢাকা জামাকাপড় পরুন। তাতে ত্বক রঙের সংস্পর্শে কিছুটা কম আসবে।

স্নানের পদ্ধতি – ঘষে ঘষে নয়, রং তুলতে হবে অনেকটা যত্ন নিয়ে। তা না হলে ত্বক ক্ষতিগ্রস্ত হবে। তাই প্রথমেই টানা পাঁচ থেকে দশ মিনিট কল খুলে জলের নীচে দাঁড়িয়ে থাকতে হবে। তাতে রঙের বেশির ভাগটাই ধুয়ে যাবে। এর পর কম ক্ষারযুক্ত সাবান দিয়ে আলতো হাতে রঙ তুলতে হবে। মাথাতেও শ্যাম্পু ঘষতে হবে হালকা হাতে। তা না করলে চুলের গোড়া আলগা হয়ে যায়। চুল ঝরতে শুরু করে। স্নানের পর চুলে কন্ডিশনার আর গায়ে তেল বা বডি ক্রিম মাখতে ভুলবেন না।

প্যাক ব্যবহার – সাবানের পরিবর্তে হলুদ ও দই-এর একটা মিশ্রণ বানিয়ে নিয়ে তা দিয়েও হালকা করে মাসাজ করে রং তোলা যায়। এ ক্ষেত্রে ১৫ থেকে ২০ মিনিট ধীরে ধীরে হালকা হাতে মিশ্রণটি সারা গায়ে মাখাতে হবে। তা ছাড়াও বেসন ও দুধ দিয়েও একটা প্যাক বানিয়ে নিয়ে বা শুধু অলিভ ওয়েলও একই ভাবে প্রয়োগ করা যেতে পারে। তার পর বেশি করে জল দিয়ে ধুয়ে নিতে হবে।

স্নানের পরে রূপচর্চা – রং খেলার পর স্নানের পরেও চামড়ায় একটা অতিরিক্ত শুষ্ক ভাব থাকে। তা দূর করা যেতে পারে বাড়িতে তৈরি একটা অতি সাধারণ প্যাকের সাহায্যেই। খানিকটা লেবুর রস, এক চিমটে চন্দনের গুঁড়ো, খানিকটা টক দই, একটুখানি মধু মিশিয়ে নিয়ে মুখে হালকা হাতে মালিশ করুন। বিশেষ করে কানের পাশ, চোখের কোল, নাকের দু’ পাশে খাঁজ ঠোঁটের ওপর আর নীচে – এই সব অংশে রঙ জমে থাকে। উঠতে চায় না। তাই এই সব অংশের ওপর নজর দিতে হবে বেশি। এর পর কিছুক্ষণ রেখে জল দিয়ে মুখ ধুয়ে নিলেই হল। তার পর দেখবেন ত্বক কেমন জেল্লা দিচ্ছে।

ত্বকের স্বার্থে সাবধানতা –  এর পরও যদি সামান্য রং কোথাও লেগে থাকে তা হলে অধৈর্য্য হবেন না। দু’ দিন সময় দিলেই স্বাভাবিক উপায়েই রং উঠে যাবে। রং তুলতে জোড় করে স্ক্রাবার বা বাথ সল্ট ব্যবহার না করাই মঙ্গল। তাতে ত্বকের খারাপ বৈ ভালো হবে না। পারত পক্ষে রং খেলার পর দু’ দিন রোদে না বেরোনোই ভালো।

কয়েকটি জরুরি কথা এই সুযোগে বলে রাখি,

  • আপনার যদি কন্ট্যাক্ট লেন্স থাকে তা হলে মনে করে খেলতে নামার আগে সেটা খুলে রাখুন।
  • রং খেলার সময় সানগ্লাস ব্যবহার করুন।
  • চেষ্টা করুন প্রাকৃতিক জিনিস থেকে তৈরি ন্যাচারাল কালার ব্যবহার করতে। দামে সস্তা হলেও রাসায়নিক রং ব্যবহার করবেন না। তাতে ত্বকের ক্ষতি হয়।
  • রং খেলার সময় কোনো ভাবে চোখে রং ঢুকে গেলে সঙ্গে সঙ্গে ঠান্ডা জলে ধুয়ে ফেলুন।
  • ত্বকের কোনো অংশে জ্বালা বা চুলকানি বা যে কোনো রকম অস্বস্তি অনুভব করলে সেই জায়গা পরিষ্কার করে ধুয়ে ফেলুন।
  • ঠান্ডাই বা মিষ্টি কোনো কিছুই বেশি ঠান্ডা খাবেন না। স্বাভাবিক তাপমাত্রায় এনে খান। কারণ এই সময়ে সর্দিকাশি লেগেই থাকে। তার ওপর রোদে দোল খেলতে খেলতে ঠান্ডা কিছু খেয়ে ফেললে তা মারাত্মক হতে পারে।
  • যাঁদের টানের কষ্ট আছে তাঁরা পারলে শুকনো রং নিয়ে খেলবেন না।
  • এ বার একটু আশেপাশের পশুপাখিদের কথায় আসি। নিজের আনন্দের জন্য পশুপাখিদের গায়ে রং দেবেন না। এই রং ওদের ত্বকের আর শরীরের ক্ষতি করে।

আপনার দোল উৎসব আনন্দে কাটুক

ছবির গ্যালারি

ফুলদোলে মাতোয়ারা

কলকাতা: পঞ্জিকা মতে বৃহস্পতিবার দোলপূর্ণিমা। কিন্তু কলকাতা শহরে দোলের উৎসব শুরু হয়েছে দিন কয়েক আগেই। নানা সংস্থা নানা ভাবে দোল উৎসব পালন করছে।

phool dol 2বুধবার টালিগঞ্জে ফুলদোলের আয়োজন করেছিল লাইটহাউস ফর ব্লাইন্ড স্কুল। এতে অংশগ্রহণ করে নানা বয়সের দৃষ্টিহীনরা।

ছবি: রাজীব বসু

Continue Reading

দেশ

দোলের ভেষজ রং, কত দামে পাওয়া যাচ্ছে কোথায়?

ওয়েবডেস্ক: ভেষজ রং নিয়ে পরীক্ষা-নিরিক্ষা নিয়ে দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে কাজ চলছে কলকাতায়। অতীতের টানে বিশুদ্ধতার স্পর্শে রেঙে উঠতে এই ধরনের ভেষজ রং ভালোই জমিয়ে আসছে দোলযাত্রার অঙ্গনে। এ বছর তারই সঙ্গে নতুন উদ্যোম সংযোজিত হয়েছে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের উদ্যোগে।

যে কোনো বিশ্বস্থ দোকান থেকেই এর আগে পাওয়া যেত যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের উদ্যোগে প্রস্তুত ভেষজ আবির। কলকাতায় প্রথম আধুনিক বিজ্ঞান সম্মত উপায়ে গাছের পাতা ও ফুল শুকনো করে আবির তৈরির পদক্ষেপ নেয় ওই বিশ্ববিদ্যালয়। সম্পূর্ণ ভাবে ধাতব মুক্ত এই আবির এখন বহুল পরিচিত। যার প্যাকেট প্রতি দাম মাত্র ৩০-৩৫ টাকা। এই রং বর্তমানে ত্বক-সচেতন মানুষের কাছে কদর পেয়েছে ভালোই। পাশাপাশি বেশ কয়েকটি বেসরকারি সংস্থার তৈরি ভেষজ আবির এবং রংও উঠে আসছে খেলুড়েদের হাতে।

holi colour

এ বার সংযোজিত হয়েছে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের উদ্যোগ। নারী ও শিশু এবং সমাজ কল্যাণ দফতরের উদ্যোগে প্রস্তুত এই জৈব রং এখন পাওয়া যাচ্ছে বিশ্ব বাংলার যে কোনো দোকানে। দামও খুব বেশি নয়। ১০০ গ্রামের জন্য ৮৫ টাকা এবং ২০০ গ্রামের জন্য ২২০ টাকার সুগন্ধী ভেষজ আবির পেতে হলে সরকারি ওই দোকানে ঢুঁ মারতেই পারেন।

আরও পড়ুন: হোলি হ্যায়…গানের তালে গা ভেজাতে বেছে নিতে পারেন এই লিঙ্কগুলি

শিলিগুড়ির নন-টিম্বার ফরেস্ট প্রডিউস ডিভিশন এ বছর তৈরি করেছে ১১.৫০ কুইন্টাল ভেষজ রং। তবে সাময়িক রাজনৈতিক পরিস্থিতির কথা ভেবে তারা বিভিন্ন রঙের আবির তৈরি করলেও জোর দিয়েছে সবুজে। জানা গিয়েছে, তারা মাত্র ৫.৩৬ কেজি হলুদ এবং ২.৩০ কেজি লাল আবির তৈরি করেছে। বাকি আবিরের পুরোটাই সবুজ। দোলযাত্রা বা হোলির পাশাপাশি হয়তো পঞ্চায়েত ভোটের কথাও ভাবনা থেকে সরিয়ে রাখেননি কর্তৃপক্ষ।

Continue Reading

প্রচ্ছদ খবর

মনের গোপনে বেজে চলেছে কত না ফাগুয়ার গান

papiya mitra

পাপিয়া মিত্র

খাঁ খাঁ দুপুরে কৃষ্ণচূড়ার ডাল থেকে কোকিলটা ডাকছে একটানা। একলা পথে চালক প্যাডেল ঘুরিয়ে যাছে আপনমনে। দোলের ছুটিতে বাড়িমুখো অনেকেই। কেউ বলে ফাল্গুন/কেউ বলে পলাশের মাস/আমি বলি আমার সর্বনাশ। কেউ বলে দখিনা/কেউ বলে মাতাল বাতাস/আমি বলি আমার দীর্ঘশ্বাস। গানটা চলছে রিকশয় বাঁধা রেডিওয়।

বাড়ির পথে ফিরছিলেন নতুনদাও। পথে গান শুনলেন ‘এসো হে বন্ধু থেকো না দূরে গাও ফাগুয়ার গান’। ফাগ-ফাগুনের মাতোয়ারায় আজ আকাশবাতাস। সুর-ছন্দ-তাল-লয় নিয়ে উৎসব কড়া নাড়ছে দরজায় দরজায়। ফাগুনের যে কী আগুন তা নিয়ে নানা চলচ্চিত্রে কত অম্লমধুর দৃশ্য তৈরি করেছেন পরিচালকেরা। শুধু পরিচালকেরা নন, তারও আগে সৃষ্টি হয়েছে কালজয়ী বহু গান। গীতিকার আর সুরকাররা কোমর বেঁধে নেমে পড়তেন দোলের গান রচনাতে। এখানেই থেমে থাকা নয়। গান রচনা করতে করতেই প্রেমে পড়ে যেতেন এমন অনেকেই। সে কথা আজ থাক।

মধুমাসের প্রতিটি ক্ষণ যেন রোম্যান্টিকতায় ভরা। কী রাত, কী সন্ধে, আবার ভোর যদি ধরা যায় তারও পাশে উঁকি দেয় একাকী দুপুর। এক সন্ধে উপহার দিল সে দিন ‘নিশীথে চলে হিমেল বায়, চামেলি বাস বিফল রাতি, স্বপনে কী যে কহিতে চায়’, কবীর সুমনের এ গান প্রায় সকলের শোনা। কিন্তু আর একটু পিছিয়ে গেলে এই গানটি নির্মলা মিশ্র গেয়েছেন ১৯৭২-এ, ও সাবিত্রী বসুর গাওয়া ইমনশঙ্করা রাগে এই গানটি ১৯৩৬-এ, কথা মমতা মিত্র ও সুর হিমাংশু দত্ত। দোল আমাদের মনের আঙিনায় রঙিন এক অতিথি। ক্ষণিকের তরে নাড়া দিয়ে যায়। রেশ রেখে যায় সম্পর্কের বুননে।

dol festival

আজ সবার রঙে রঙ মেশাতে হবে।

প্রেমের পরশ নাচের তালে। ছন্দ মিলিয়ে নিচ্ছে গলির মোড়ে তিনতলার কিশোরী। ‘আজ সবার রঙে রঙ মেশাতে হবে’। ঠিক যেমনটি করে নায়কের ছবি ধরে মহানায়িকা নেচে নেচে গেয়েছিলেন। আন্দাজ করে নিতে হয়। কাননদেবীর গান ভেসে আসছে উঁচু ঘর থেকে। কিংবা আব্দুল করিম শাহের লেখা ‘বন্ধুর বাড়ির ফুলের গন্ধ আমার বাড়ি আসে, সইগো বসন্ত বাতাসে’ সুর করে গেয়ে চলেছে এক উঠতি শিল্পী। ভরা পূর্ণিমায় চাঁদের তিলক আঁকা নওলকিশোরের কপাল। তা দেখে শচীনকর্তা গাইছেন ‘নিধুবনে সখা লয়ে, খেলে হরি শিশু হয়ে, অধরে মধুর হাসি জাগে, বনফুল মালা দোলে’। আহা এমন ভাবে যদি গাওয়া যেত ‘আজ হোলি খেলব শ্যাম তোমার সনে, একলা পেয়েছি তোমায় নিধুবনে’। সত্যি তো শ্যামের যখন ইচ্ছে হবে তখন রঙ খেলবে? কিন্তু এমন তো হতেই পারে আজ শ্যামকে ধরলে ছেড়ে দেওয়া যাবে না!

মাধবী দ্বিধা করেনি, পলাশ-শিমুল ডাক দিয়েছিল লালমাটির গ্রামের পথে। সেখানে ফাগুনের মোহনায়, মন মাতানো মহুয়ায় আবিষ্ট কৃষ্ণচূড়া-রাধাচূড়া। লালগুলালে রঙিন হয়েছে কাঁসাই, শিলাই, দামোদর, অজয়ের জল। তারই কূলে এক হয়েছে দোলের প্রেমিকপ্রেমিকারা। সেই ভিড়ে দেখা মিলতে পারে তোমার সঙ্গে আমার, যেমনটি কথা ছিল। আবির নেব না, রঙ খেলব না বললে কিন্তু চলবে না। এক রাশ বিপদ নিয়ে শুকনো পাতার বুকে নির্লজ্জের মতো শুয়ে থাকতে দেখে হিংসার আগুনে পুড়ে ছিল যে মেয়ে সে চিৎকার করে বলছে শোনো ‘তার ছেঁড়া যন্ত্রের মাঝখানে শুয়ে আছি, আমলকি বনে বসন্ত এসে গেছে। তাই ‘বনে নয়, মনে মোর পাখি আজ গান গায়’। আর আড়াল থেকে রঙ যদি দিয়েই দাও তা হলে ‘ও আমার চাঁদের আলো, আজ ফাগুনের সন্ধ্যাকালে’ আমার পাগলামিকে প্রশ্রয় দিও।

মনের গোপনে বেজে চলেছে মহুলের নেশায় আজ সারা রাত মাতামাতির সুর। দিনে রঙের ভেলকিতে ফাগুনের জয়। রাঙা ফাগে আবিরের অনুরাগে মালা গাঁথা শেষ। ধুলোভরা পা নিয়ে রিকশাচালক বুঁদ হয়েছে মহুয়ায়। দখিনা বাতাসে পলাশমেলার হাতছানি। আদুল গায়ে তনুমন এসে দাঁড়ায় অযোধ্যার পাহাড়ে। রুপোলি বন্যার বাঁধ ভাঙল বলে।

Continue Reading
Advertisement
দেশ54 mins ago

উজ্জয়িনীর মহাকাল মন্দির থেকে গ্রেফতার বিকাশ দুবে

দেশ1 hour ago

দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যায় রেকর্ড, তবে কিছু রাজ্য ঘিরে আশার আলো

বাংলাদেশ2 hours ago

ভারত বোঝে রোহিঙ্গাদের দ্রুত প্রত্যাবাসন কতটা জরুরি, বললেন এস জয়শংকর

ক্রিকেট2 hours ago

‘ছোটো থেকেই মগজধোলাই করা হয়’, বর্ণবৈষম্যের বিরুদ্ধে সরব মাইকেল হোল্ডিং

দেশ2 hours ago

খোঁজ নেই বিকাশ দুবের, এনকাউন্টারে হত আরও দুই ঘনিষ্ঠ

বিনোদন10 hours ago

চলে গেলেন ‘শোলে’-র ‘সুরমা ভোপালি’ জগদীপ

দেশ13 hours ago

জম্মু-কাশ্মীরে বাবা এবং ভাই-সহ বিজেপি নেতাকে গুলি করে মারল জঙ্গিরা

ঝাড়গ্রাম13 hours ago

টানাপোড়েনের অবসান ঘটিয়ে, সক্রিয় রাজনীতিতে লালগড় আন্দোলনের মুখ ছত্রধর মাহাত

দেশ1 day ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ২২৭৫২, সুস্থ ১৬৮৮৩

currency
শিল্প-বাণিজ্য3 days ago

পিপিএফের ৯টি নিয়ম, যা জেনে রাখা ভালো

রাজ্য3 days ago

করোনা রুখতে পশ্চিমবঙ্গের ‘সেফ হোম’-এর ভূয়সী প্রশংসা কেন্দ্রের

রাজ্য2 days ago

পশ্চিমবঙ্গের বেশ কিছু জায়গায় ফের কড়া লকডাউনের জল্পনা

ক্রিকেট3 days ago

ওপেনার সচিন তেন্ডুলকরের গোপন রহস্য ফাঁস করলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়

দেশ3 days ago

গালোয়ান উপত্যকা থেকে চিন সেনার পিছু হঠার পেছনেও অজিত ডোভালের ভূমিকা

দেশ2 days ago

দ্রুত গতিতে বাড়ছে সুস্থতা, ভারতে এক সপ্তাহেই করোনামুক্ত লক্ষাধিক

বিদেশ2 days ago

অনলাইনে ক্লাস করা ভিনদেশি পড়ুয়াদের আমেরিকা ছাড়তে হবে, নির্দেশ ডোনাল্ড ট্রাম্প সরকারের

কেনাকাটা

কেনাকাটা2 days ago

বাচ্চার জন্য মাস্ক খুঁজছেন? এগুলোর মধ্যে একটা আপনার পছন্দ হবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিউ নর্মালে মাস্ক পরাটাই দস্তুর। তা সে ছোটো হোক বা বড়ো। বিরক্ত লাগলেও বড়োরা নিজেরাই নিজেদেরকে বোঝায়।...

কেনাকাটা3 days ago

রান্নাঘরের টুকিটাকি প্রয়োজনে এই ১০টি সামগ্রী খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক : লকডাউনের মধ্যে আনলক হলেও খুব দরকার ছাড়া বাইরে না বেরোনোই ভালো। আর বাইরে বেরোলেও নিউ নর্মালের সব...

কেনাকাটা4 days ago

হ্যান্ড স্যানিটাইজারে ৩১ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দিচ্ছে অ্যামাজন

অনলাইনে খুচরো বিক্রেতা অ্যামাজন ক্রেতার চাহিদার কথা মাথায় রেখে ঢেলে সাজিয়েছে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের সম্ভার।

DIY DIY
কেনাকাটা1 week ago

সময় কাটছে না? ঘরে বসে এই সমস্ত সামগ্রী দিয়ে করুন ডিআইওয়াই আইটেম

খবর অনলাইন ডেস্ক :  এক ঘেয়ে সময় কাটছে না? ঘরে বসে করতে পারেন ডিআইওয়াই অর্থাৎ ডু ইট ইওরসেলফ। বাড়িতে পড়ে...

নজরে