শীতকালে ত্বকের সমস্যা? সমাধান করতে এই ফলগুলি অবশ্যই খান

0
winter
প্রতীকী

ওয়েবডেস্ক: শীতকাল এলেই ত্বকে নানান সমস্যা দেখা দিতে থাকে। তার মধ্যে প্রধান হল ত্বক শুষ্ক হয়ে পড়া। ত্বকের জৌলস নষ্ট হয়ে প্রাণহীন হয়ে পড়ে। তার জন্য সারাক্ষণের ভরসা হয়ে যায় ক্রিম ও ময়শ্চারাইজার। কিন্তু একটি কথা সকলেই কম বেশি ভুলে যায় তা হল, বাইরে থেকে ত্বকের জন্য সব রকম ব্যবস্থা করার সঙ্গে সঙ্গে সমান জরুরি হল ভেতর থেকে উপযুক্ত খাবারদাবার দিয়ে ত্বককে পুষ্টি দেওয়া। তাতে প্রাকৃতিক ভাবে ত্বক স্বাস্থ্যোজ্জ্বল হয়ে ওঠে এবং এই কথাটি সব ঋতুর জন্যই সমান ভাবে প্রযোজ্য। সুতরাং শীতকালেও তার অন্যথা নয়। তাই বিশেষ ভাবে নজর দিতে হবে শীতের খাদ্যতালিকার দিকে। তাতে অবশ্যই রাখতে হবে এই সব ফল।

এখন সারা বছরই প্রায় সব ফল বাজারে পাওয়া যায়। তবে যে ঋতুতে যেটি স্বাভাবিক ভাবেই পাওয়া যায় তার ওপর একটু বেশি ভরসা সকলেরই থাকে। তবে অন্য সময় পাওয়া গেলেও তা খাদ্য হিসাবে অবশ্যই গ্রহণ করা যায়।

আমলকী

amla

শীতকাল মানেই চোখের সামনে ভাসতে থাকে আমলকীর চেহারা। আমলকীতে রয়েছে অজস্র গুণ। সেই সমস্ত গুণাগুণ নিয়েই আমলকী কেন খাবেন? এই বিষয়ে একটি পর্বও আছে। সেই সমস্ত খাদ্য ও পুষ্টিগুণ ত্বককে ডিটক্স করতে সাহায্য করে। শরীরের রক্ত পরিষ্কার রাখে, ফলে ত্বক প্রাণোবন্ত থাকে। তা ছাড়া এর মধ্যে থাকা বিভিন্ন ভিটামিন ত্বক ও চুলকে পুষ্টিও জোগায়। রোজ একটি করে আমলকী কাঁচা চিবিয়ে খেলে খুবই ভালো হয়। তা টক আমলকী খেতে অসুবিধা হবে মনে হয়? তা হলে দেখতে পারেন আমলকী খাওয়ার এই অন্যান্য পদ্ধতিও।  

কমলালেবু

শীতকাল মানেই কমলালেবু। যে কোনো বয়সের মানুষের জন্য ভিটামিন সি প্রতি দিন প্রয়োজন হয়। আর এই কমলালেবুতে রয়েছে অনেক অনেক ভিটামিন সি। ত্বক, চুল, নখকে উজ্জ্বল ও রোগমুক্ত করতে এর জুড়ি মেলা ভার। তাই কমলালেবু বাজারে দেখলেই তা অবশ্যই কিনে ফেলুন এবং যত দিন পাওয়া যায় তা খেতে থাকুন। কারণ এ ছাড়াও রয়েছে এর আরও অনেক অনেক উপকারিতা।

বেদানা

বেদানায় আছে প্রচুর পরিমাণ অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট। তা ছাড়া এতে রয়েছে অনেক অনেক ভিটামিন সি। এই দুই উপাদানই কিন্তু ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। তাই যাঁদের ত্বক নিয়ে নানান অভিযোগ অনুযোগ থাকে তাঁরা এই বেদানা শীতকালে অবশ্যই খেতে পারেন। তা ফাটা ত্বকের পরিচর্চায় প্রাকৃতিক ভাবে কাজ করে। কারণ এই উপাদানগুলি ত্বকের সংক্রমণ ঠেকায়। লোমকূপকে শক্ত রাখে। ত্বকও টানটান রাখে। তাই নিয়মিত বেদানা বা তার রস অবশ্যই খেতে পারেন।

পাকা পেঁপে

পেঁপে মাত্রই স্বাস্থ্যের জন্য জরুরি। এতে রয়েছে ভরপুর ভিটামিন এ, সঙ্গে রয়েছে নানা রকমের ফ্রুট এনজাইমও। তা যেমন পেটের জন্য উপকারী তেমনই ত্বকের জন্যও। তা ছাড়া পেট ভালো থাকলে ত্বক ভালো থাকবেই, বাড়বে ত্বকের ঔজ্জ্বল্য। তাই পাকা পেঁপে শীতকালে তো অবশ্যই খাওয়া ভালো। সারা বছরই পাকা পেঁপে খাওয়া যেতে পারে। তাই খাদ্য তালিকায় অবশ্যই রাখুন পাকা পেঁপে।

আতা

অনেকেই আতা খেতে পছন্দ করেন না। অবশ্য ব্যতিক্রমও আছে। তবে যাঁরা পছন্দ করেন না তাঁদের উদ্দেশে বলে রাখা ভালো, আতায় আছে অনেক ভিটামিন এ এবং সি। এই দুই ভিটামিন ত্বকে আর্দ্রতা বজায় রাখে। ফলে শীতকালে যখন ত্বক আর্দ্রতা হারায়, তখন এই আতা প্রাকৃতিক উপায়ে স্বাভাবিক ভাবেই আর্দ্রতা বজায় রাখতে সাহায্য করে। তা ছাড়া এটি ত্বকের জন্য ন্যাচারাল স্ক্রাবার হিসাবেও কাজ করে। এর খাদ্যগুণ ত্বকের সংক্রমণ আটকায়। সঙ্গে সঙ্গে এটি ত্বকের মৃতকোষ ঝরিয়ে দিয়ে নতুন কোষ গঠন করে। ফলে ত্বক হয়ে ওঠে টানটান চকচকে। তাই অবশ্যই আতা খাদ্য তালিকায় যোগ করুন। নিয়মিত আতা বা তার রস খাওয়া যেতে পারে।  

আঙুর

কথায় আছে আঙুর ফল টক। কিন্তু চেখে দেখলে অনেক আঙুর কিন্তু মিষ্টিও হয়। তবে, কপালে যদি টক আঙুরই জোটে তা হলেও কিন্তু ক্ষতি নেই। কারণ আঙুর টক হোক বা মিষ্টি এতে খাদ্যগুণ ও পুষ্টিগুণ একই থাকে। আঙুরে আছে অনেক অনেক উপকারিতা। এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন সি, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। এটি ত্বকের জন্য খুবই ভালো কাজ করে। তাই শীতের দিনে নিয়মিত আঙুর খান।

জলপাই

শীতে আরও একটি ফল বাজারে পাওয়া যায়। তা হল জলপাই। এতে আছে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন সি, ই, আয়রন ও অসম্পৃক্ত চর্বি। ফলে এটি যেমন স্থূলতা কমায় তেমনি ত্বকেরও উপকার করে। তা ছাড়াও এর খাদ্য ও পুষ্টিগুণ শরীরের জন্য খুবই ভালো।

তবে একটি কথা মনে রাখা দরকার। খাবার দাবার, ফলমূল যা-ই খাওয়া হোক না কেন, শরীরের জলের ঘাটতি পূরণ করতে জলের বিকল্প নেই। তাই শীত বা গ্রীষ্ম যে ঋতুই হোক না কেন, শরীরের জলের চাহিদা মেটাতে অবশ্যই খেতে হবে প্রয়োজনীয় পরিমাণ জল। তা না হলে শরীর আর্দ্রতা হারাবে। আর আর্দ্রতাহীন শরীরের ত্বক কুঁচকে যায়, তা স্বাস্থ্য ও জেল্লাহীন হয়ে পড়ে। তাই এই সমস্ত ফল খাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে অবশ্যই পরিমাণ মতো জলও পান করা উচিত।

পড়ুন – ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে ৫টি আদর্শ খাবার

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.