Connect with us

জীবন যেমন

সিগারেট ছাড়তে চাইছেন, কিন্তু পারছেন না? এই ১১টি পদ্ধতি সাহায্য করবেই

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সিগারেট পুড়িয়ে ধোঁয়া পান করার অর্থ হল টাকা পোড়ানো। সিগারেটে বিতরাগী মানুষজন এমনটাই মনে করেন। আসলে অর্থ সঞ্চয়ের থেকেও বড়ো ব্যাপার হল সিগারেট ছাড়লে অনেক রোগ বা রোগের আশঙ্কা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। সিগারেট না খেলে রক্তচাপ স্বাভাবিক থাকবে, রক্তের কার্বন মনোক্সাইডও স্বাভাবিক থাকবে। হৃদরোগের ঝুঁকি কমবে এবং ফুসফুস ভালো থাকবে।

কাজেই সিগারেট ছাড়ুন সুস্থ থাকুন।

কী ভাবে ছাড়বেন সিগারেট?

১। নিজের মনকে বোঝান

ধূমপান ছাড়ার আগে মনকে প্রস্তুত করতে শক্তিশালী কারণ ঠিক করুন। সেই কারণ ধূমপান ছাড়তে সাহায্য করবে। ধূমপানের কথা মনে এলেই সেই কারণটিকে দাঁড় করান নিজের মনের সামনে। যেমন ধরুন – নিজেকে বুড়োটে দেখতে লাগছে, তারুণ্য ধরে রাখতে চান, ফুসফুসে ক্যানসার বা মুখের ক্যানসার ইত্যাদির হাত থেকে বাঁচতে চান, প্রিয় কোনো মানুষকে কথা দিয়েছেন ধূমপান ছেড়ে দেবেন ইত্যাদি।

২। লজেন্স খাওয়ার অভ্যাস

অনেকের ক্ষেত্রেই ‘একটির বদলে আর একটি’ সূত্র কাজ করে। আসলে দুম করে ধূমপান ছেড়ে দিতে গেলে কী করি কী খাই এমন একটি মানসিক সমস্যা আসতে পারে। তার থেকে হতাশা ও বিষণ্ণতা। তাই সিগারেটের বিকল্প হিসাবে লজেন্স বা চুইংগাম খেতে পারেন। বিশেষজ্ঞরা বলেন, সিগারেট ছাড়ার জন্য বাজারে কিছু চুইংগাম পাওয়া যায়। এগুলি বেশ কার্যকর।

৩। ঠান্ডা স্থান এড়িয়ে চলুন

সিগারেটের ভেতরের নিকোটিন নেশা তৈরি করে। একটা সময়ে মস্তিষ্ক নিকোটিনে অভ্যস্ত হয়ে পড়ে। তাই বার বার ধূমপান করতে ইচ্ছা করে। আবার ঠান্ডা স্থান নিকোটিন গ্রহণের ইচ্ছা বাড়িয়ে দেয়। তাই ধূমপান ত্যাগের সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর ঠান্ডা  জায়গায় গেলে হয়তো আবার ধূমপানের ইচ্ছে মাথা চাড়া দিতে পারে।  

৪। মানসিক চাপে অন্য পথ

অনেকেই মানসিক চাপ সহ্য করতে না পেরে ধূমপান করেন। তা হলে সে ক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞের পরামর্শে চাপ কমানোর জন্য ওষুধের সাহায্য নেওয়াই ভালো। সিগারেটকে অবলম্বন করা দীর্ঘমেয়াদে ভুল সিদ্ধান্ত।

৫। মানসিক চাপ নিয়ন্ত্রণ

মানসিক চাপের কারণে অনেকেই ধূমপান করেন। তাই এই চাপ থেকে মুক্ত থাকার চেষ্টা করুন। নিয়মিত ম্যাসাজ করান, বই পড়ুন, গান শুনুন, যোগব্যায়াম করুন। চাপমুক্ত থাকলে ধূমপানও নিয়ন্ত্রণে থাকবে।

৬। মানুষের সহায়তা নিন

অনেককেই শোনা যায় অন্যদের ধূমপান বন্ধ করার জন্য উপদেশ দিয়ে থাকেন। তেমন ঘটনা ঘটলে খুবই ভালো। বন্ধুবান্ধব,পরিবারের সদস্য এবং সহকর্মীদের জানান ধূমপান ছাড়তে চাওয়ার কথা। তারা আরও উৎসাহ জোগাবে। তাদের সামনে কখনও সিগারেট খেতে গেলে তারা মনে করিয়ে দেবে, নিষেধ করবে ফলে উপকার হবে।

৭। বাড়ি পরিষ্কার করার অভ্যেস

মনোবিদদের মতে, অন্য কিছুতে মনকে মাতিয়ে রাখলে সাধারণ ভাবে আর একটি ইচ্ছা বা চিন্তা মাথা থেকে সরে যায়। ঠিক একই পদ্ধতি হয় ঘর পরিষ্কার করার ক্ষেত্রে। মজার মনে হলেও চেষ্টা করে দেখুন। নিজের হাতে বাড়িঘর পরিষ্কার করুন, সাজান, ধোয়াকাচা, রান্না ইত্যাদিতে মনকে আটকে রাখুন। দেখবেন অনেকটা সময় কেটে গিয়েছে সিগারেট খাওয়ার ইচ্ছা ছাড়াই। অনেকে বলেন, ঘরে সুন্দর গন্ধের এয়ার ফ্রেশনার বা ধূপকাঠি ব্যবহার করলে তার সুগন্ধ সিগারেটের ধোঁয়ার কথা ভুলে যেতে সাহায্য করে।

৮। শারীরিক পরিশ্রম

পরিশ্রমের কাজ ধূমপান করার ইচ্ছাকে তাড়িয়ে দেয়। তাই ধূমপান করতে ইচ্ছা করলে হাঁটুন, জগিং করুন, ব্যায়াম করুন। এতে মাইন্ড রিফ্রেশ হবে, অতিরিক্ত ক্যালোরিও দূর হবে ও ধূমপানের ইচ্ছা দূর হবে।

৯। ফল এবং শাকসবজি খান

ডিউক বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণায় বলা হয়েছে, প্রচুর পরিমাণ ফল এবং শাকসবজি খেলে সিগারেটের স্বাদ আর ভালো লাগে না। তাই খাদ্য তালিকায় নিয়মিত ফল ও সবজি রাখুন।

১০। অর্থ সঞ্চয়ের ইচ্ছা

ভেবে দেখুন, সিগারেট খেলে প্রতি দিন নয় নয় করে অনেক টাকাই খরচ হয়, যেটা অকারণ। সিগারেট ছাড়লে কিছু টাকাও সঞ্চয় হবে। এমনটা ভেবেও সিগারেট ছাড়ার জন্য নিজেকে উৎসাহিত করতে পারেন।

১১। বারবার চেষ্টা

যে কোনো কাজেই চেষ্টার কোনো বিকল্প হয় না। ধূমপান ত্যাগের ক্ষেত্রেও তাই। বারবার চেষ্টা করুন। নিজেই নিজেকে সময়ের মাপকাঠি বেঁধে দিন, যে এই সময়ের মধ্যে ধূমপান ছাড়বেনই। প্রতি দিন চেষ্টা করে সেই লক্ষ্য পূরণ করুন।

আরও পড়ুন – সিগারেট খেয়ে ঠোঁটের রঙ কালো! রঙ ফেরাতে ঘরোয়া টোটকা

দেখতে পারেন – ডবল চিনের সমস্যা? ম্যাজিকের মতো কাজ করবে এই ৬টি ব্যায়াম

জীবন যেমন

মেকআপ করে কী ভাবে ঢাকবেন ডবল চিন?

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ডবল চিনের সমস্যায় অনেকেই ভোগেন। তাঁদের এই সমস্যা থেকে মুক্তি দেওয়ার জন্য নিয়মিত ব্যায়াম ও সঠিক খাদ্যাভ্যাস যেমন উপযুক্ত দিশা, তেমনই আরও একটি চটজলদি ও সাময়িক উপায় হল মেকআপ। ডবল চিনের সমস্যায় যে ব্যায়ামগুলি করলে দীর্ঘস্থায়ী সমাধান বেরোবে তেমন কয়েকটির কথা আগেই আলোচনা হয়েছে। এই পর্বে মেকআপ।

ব্যায়াম করে যত দিন সময় লাগবে ডবল চিন কমাতে তার মাঝেও তো সমস্যা হতে পারে। তাই এই মাঝের সময়টুকুর জন্য মেকআপের টিপগুলি কাজে লাগানো যেতে পারে।

মেকআপ পদ্ধতি

১। বেস

মুখটা ভালো করে পরিষ্কার করে নিন। তার পর বেস মেকআপ করুন। বেস মেকআপ নিখুঁত হলে গোটা মেকআপটাই খুব সুন্দর হবে।

২। ফাউন্ডেশন ও ব্রোঞ্জার

ফাউন্ডেশন এবং ব্রোঞ্জার বাছার ক্ষেত্রে ত্বকের স্বাভাবিক রঙের চেয়ে দু’ শেড গাঢ় নিতে হবে। ফর্সা হলে গোলাপি ঘেঁষা, মাঝারি বা চাপা গায়ের রং হলে একটু সোনালি ঘেঁষা ব্রোঞ্জার নিন।

৩। গাল ও চিবুক কাটা

চিবুকে ফাউন্ডেশন লাগানো হয়ে গেলে অল্প একটু ব্রোঞ্জার আঙুলে নিয়ে চোয়ালের হাড় বরাবর লাগান। এর পর হালকা হাতে ছোটো স্ট্রোকে তা গালের সঙ্গে মিশিয়ে দিন।

৪। ব্লেন্ড

মেকআপ করলেই হল না। তা ভালো করে ব্লেন্ড করতে হবে। স্পঞ্জ দিয়ে ভালো ভাবে ব্লেন্ড করুন।

৫। গলায়

চোয়ালের হাড়ের নীচে চিবুকের নরম অংশেও ব্রোঞ্জার লাগান তাতে গলা ও চিবুক এক রকম লাগবে।

৬। পাউডার

ট্রান্সলুসেন্ট পাউডার দিয়ে মেকআপ সেট করে নিন।

৭। ঠোঁট

ঠোঁটের মেকআপও জরুরি। গাঢ় রঙের লিপস্টিকও চেহারা একদম বদলে দেয়। তাই লোকের নজর ঘোরাতে চকচকে লিপ গ্লস, গাঢ় লাল, গাঢ় খয়েরি শেডের লিপস্টিক লাগান। ঠোঁটের দিকে নজর গেলে চিবুকে আর নজর ঘুরবে না।

৮। গাল ও চোখ

গাল আর চোখের মেকআপও জরুরি। চোখে হালকা রঙের আইশ্যাডো ও আইলাইনার লাগান। গালের উপরের দিকে ছোটো ছোটো টানে ব্লাশার লাগান। চিবুকে নজর যাবে না।

৯। চুলের স্টাইল

হেয়ারস্টাইলের ব্যাপারেও সচেতন হতে হবে। চিবুকের ঠিক নীচে বা ঘাড় পর্যন্ত লম্বা চুলের কোনো রকম স্টাইল না করাই ভালো। বরং চিবুকের দিকটা বেশি নজরে পড়বে না এমন হেয়ারস্টাইল করুন। এ ক্ষেত্রে সাইডে কোনো হেয়ার স্টাইল করা যেতে পারে।

আরও – ডবল চিনের সমস্যা? ম্যাজিকের মতো কাজ করবে এই ৬টি ব্যায়াম

পড়ুন – ত্বকের জেল্লা ফেরাতে ১০টি ঘরোয়া টোটকা

Continue Reading

কেনাকাটা

সংসারের খুঁটিনাটি সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে এই জিনিসগুলির তুলনা নেই

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিজের ও ঘরের প্রয়োজনে এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি না থাকলে প্রতি দিনের জীবনে বেশ কিছু সমস্যার মুখোমুখি হতে হয়। কিন্তু থাকলে অনেক কিছুর সহজ সমাধান যেমন হয়, ঝক্কিও কমে যায়। তেমনই কয়েকটি জরুরি জিনিসের খবরাখবর রইল এখানে অ্যামাজন থেকে।

প্রতিবেদনটি লেখার সময় যে দাম ছিল তাই দেওয়া হল।

১। ইলেকট্রনিক লিন্ট রিমুভার, উলের জামা কাপড় থেকে ববলিন দূর করার সহজ উপায়। দাম ৩৯৯ টাকা।

কিনতে হলে ক্লিক করুন

২। রিইউজেবল ফুড র‍্যাপার্স। প্লাস্টিক বা অ্যালুমিনিয়াম ফয়েলের মতো ব্যবহার কিন্তু একাধিক বার ব্যবহার করা যাবে। ৩টির সেট। দাম ৪৯৯ টাকা।

কিনতে হলে ক্লিক করুন

৩। ব্লু লাইট ব্লকিং গ্লাস, কম্পিউটারের সামনে বসে দীর্ঘক্ষণ কাজ করলে এটি চোখের জন্য খুবই ভালো। দাম ৬৯৯ টাকা।

কিনতে হলে ক্লিক করুন

https://www.amazon.in/dp/B078SR63MR/ref=as_li_ss_tl?&ascsub&linkCode=ll1&tag=khaboronline-21&linkId=e8b17f04f660e35ad16d647d21818a50&language=en_IN

৪। কেবিল ক্লিপস, বিভিন্ন জায়গায় তারের জটাজাল থেকে মুক্তি পেতে, ও বার বার তার পরে যাওয়ার হাত থেকে মুক্তি পেতে খুবই ভালো উপায়। ১০টির সেট। কম্পিউটার, টিভি, গাড়ি, টেবিল ইত্যাদিতে কাজে লাগানো যাবে। দাম ৩৫৯ টাকা।

কিনতে হলে ক্লিক করুন

৫। স্লিম জেল, পুনঃব্যবহারযোগ্য, কি বোর্ড, ল্যাপটপ, কার অ্যাকসেসরিস, ইলেকট্রনিক প্রোডাক্ট, রিমোর্ট ইত্যাদির গলি ঘুপচি থেকে ধুলো বের করে পরিষ্কার করার জন্য খুবই ভালো। দাম ২১০ টাকা।

কিনতে হলে ক্লিক করুন

আরও – রান্নাঘরের জনপ্রিয় কয়েকটি জরুরি সামগ্রী, আপনার কাছেও আছে তো?

Continue Reading

জীবন যেমন

মাত্র কয়েক বারেই চুল সিল্কি করার দারুণ ৬টি ঘরোয়া উপায়

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বিশ্বকর্মাপুজো, মহালয়া সবই হয়ে গেল। সামনেই পুজো। আর মাত্র ৩৫ দিন। এর মধ্যেই ঘরদোর পরিষ্কার, জিনিসপত্র কিনে, নিজের পরিচর্যা করে ঝকঝকে করে তোলা কত কাজ। এর মধ্যে আবার করোনার জন্য সচেতনতা ও সতর্কতাবিধি মেনে চলা। আবার পার্লার যাওয়া নিয়েও মনে আতঙ্ক। পুজোর আগে করোনা হলে আর রক্ষে নেই। কী যে করা যায়? তাই ভাবছেন তো! এর মধ্যে চুলের হাল বেশ খারাপ। এক্কেবারে ম্যাড়ম্যাড় করছে। একদিন না হয় নাক কান চোখ ঢেকে ছাঁট দিয়ে আসাই যায়। কিন্তু চুল মসৃণ ঝকঝকে করার জন্য তো বার বার পার্লার যাওয়াটা ঠিক হবে না। তাই পরামর্শ হল ঘরে বসেই চুলকে নজর কাড়া করে তুলুন মাত্র কয়েকটা দিনেই।

কিছু ঘরোয়া উপায়

১। তেল

সপ্তাহে মাত্র ২ থেকে ৩ দিন রাতে যদি মাথায় ভালো করে তেল মেখে শোওয়া যায় এবং পরের দিন সকালে ভালো করে শ্যাম্পু করে নেওয়া যায় তা হলে মাত্র কয়েক দিনেই চুল ঝলমলে আর সিল্কি হয়ে উঠবে।

২। গরম তেল

চুলের পুষ্টি জোগাতে তেল তো অবশ্যই উপকারী। গরম তেল আবার আরও ভালো।  চুলের রুক্ষতা দূর করতে ও চুলকে উজ্জ্বল করতে। এ ক্ষেত্রে ২ টেবিল চামচ বাদাম তেল, অলিভ অয়েল, জোজোবা অয়েল গরম করে নিন। এই তেলগুলি না থাকলে নারকেল তেলও নেওয়া যায়। তেল হালকা গরম হলে তা মাথায় চুলের গোড়ায় গোড়ায় ভালো করে ম্যাসাজ করুন। লম্বা চুলেও বেশ টেনে টেনে তেল লাগান। এর পর গরম জলে ভেজানো তোয়ালে দিয়ে মাথা মুড়ে রাখুন। ২০ মিনিট পর শ্যাম্পু করুন।

৩। অ্যালোভেরার প্যাক

চুল পরিচর্যায় অ্যালোভেরা দারুণ কাজ দেয়। অ্যালোভেরার ভেতরের জেলটা ৪ টেবিল চামচ, টক দই (বাড়িতে পাতা হলে ভালো হয়) ৩ টেবিল চামচ, মাথায় মাখার যে কোনো তেল ২ টেবিল চামচ নিয়ে ভালো করে মেশান। পেস্টটি মাথায় আধ ঘণ্টা লাগিয়ে রাখুন। তার পর শ্যাম্পু করে নিন। চুল খুব দ্রুত ঝলমলে সিল্কি হবে।

৪। মধু আর ভেজিটেবল অয়েল

চুলের জন্য মধু প্রাকৃতিক ময়েশ্চারাইজার। মধু ও ভেজিটেবল অয়েলের মিশ্রণ চুলে পুষ্টি জোগায়। ২ টেবিল চামচ মধু, ২ টেবিল চামচ ভেজিটেবল অয়েল মিশিয়ে চুলে লাগান। ২০ মিনিট পর শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন।

৫। ডিম এবং দইয়ের প্যাক

চুলকে সিল্কি করতে বাড়িতে পাতা দই ও ডিমের প্যাক খুব ভালো। ২টি ডিমের সাদা, ২ টেবিল চামচ টকদই মিশিয়ে ঘন পেস্ট তৈরি করে লাগান। ২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। উপাদানগুলির প্রোটিন চুলকে গোড়া থেকে মজবুত ও ঝলমল করে।

৬। ডিমের সাদা অংশ 

চুলের রুক্ষতা কাটাতে ১টি ডিমের সাদা অংশ, ৩ টেবিল চামচ জল মিশিয়ে একটি প্যাক তৈরি করুন। প্যাকটি চুলে লাগিয়ে ৩০ মিনিট রাখুন। শুকিয়ে গেলে ভালো করে শ্যাম্পু করুন। শ্যাম্পুর পর চুলে কন্ডিশনার লাগান।

দেখুন – ত্বকের উজ্জ্বলতা ফেরাতে চান? এই মরসুমে লাগান আনারসের এই ফেসমাস্ক ২টি

আরও – ত্বকের জেল্লা ফেরাতে ১০টি ঘরোয়া টোটকা

Continue Reading
Advertisement
আইপিএল11 mins ago

আইপিএল-এর ইতিহাসে রান তাড়া করার রেকর্ড, পাঞ্জাবকে হারিয়ে জিতল রাজস্থান রয়্যালস

Balasaheb Thorat
দেশ3 hours ago

রাষ্ট্রপতির সম্মতি মিললেও নয়া তিন কৃষি আইন কার্যকর করবে না মহারাষ্ট্র, হুঁশিয়ারি মন্ত্রীর

রাজ্য4 hours ago

রাজ্যে দৈনিক আক্রান্ত এবং মৃতের সংখ্যায় সামান্য বৃদ্ধি, ঊর্ধ্বমুখী সুস্থতা

farm bills protest
দেশ4 hours ago

নাটকীয় ভাবে সংসদে পাশ হওয়া কৃষি বিলে স্বাক্ষর রাষ্ট্রপতির

দেশ5 hours ago

সেরো সার্ভের রিপোর্ট তুলে ধরে কোভিড নিয়ে সতর্ক করলেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী

দেশ6 hours ago

জল্পনার অবসান! নীতীশ কুমারের দলে যোগ দিলেন বিহারের প্রাক্তন ডিজি

রাজ্য8 hours ago

২ নভেম্বর থেকে কলেজের ক্লাস অনলাইনে, সাফ জানালেন শিক্ষামন্ত্রী

রাজ্য8 hours ago

সিঙ্গুর প্রসঙ্গ টেনে বিজেপি-সঙ্গ ত্যাগকারী অকালি দলকে সমর্থন তৃণমূলের

কেনাকাটা

কেনাকাটা2 days ago

নতুন কালেকশনের ১০টি জুতো, ১৯৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো এসে গিয়েছে। কেনাকাটি করে ফেলার এটিই সঠিক সময়। সে জামা হোক বা জুতো। তাই দেরি...

কেনাকাটা3 days ago

পুজো কালেকশনে ৬০০ থেকে ১০০০ টাকার মধ্যে চোখ ধাঁধানো ১০টি শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজোর কালেকশনের নতুন ধরনের কিছু শাড়ি যদি নাগালের মধ্যে পাওয়া যায় তা হলে মন্দ হয় না। তাও...

কেনাকাটা5 days ago

মহিলাদের পোশাকের পুজোর ১০টি কালেকশন, দাম ৮০০ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পুজো তো এসে গেল। অন্যান্য বছরের মতো না হলেও পুজো তো পুজোই। তাই কিছু হলেও তো নতুন...

কেনাকাটা1 week ago

সংসারের খুঁটিনাটি সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে এই জিনিসগুলির তুলনা নেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিজের ও ঘরের প্রয়োজনে এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি না থাকলে প্রতি দিনের জীবনে বেশ কিছু সমস্যার...

কেনাকাটা2 weeks ago

ঘরের জায়গা বাঁচাতে চান? এই জিনিসগুলি খুবই কাজে লাগবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ঘরের মধ্যে অল্প জায়গায় সব জিনিস অগোছালো হয়ে থাকে। এই নিয়ে বারে বারেই নিজেদের মধ্যে ঝগড়া লেগে...

কেনাকাটা2 weeks ago

রান্নাঘরের জনপ্রিয় কয়েকটি জরুরি সামগ্রী, আপনার কাছেও আছে তো?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের এমন কিছু সামগ্রী আছে যেগুলি থাকলে কাজ করাও যেমন সহজ হয়ে যায়, তেমন সময়ও অনেক কম খরচ...

কেনাকাটা3 weeks ago

ওজন কমাতে ও রোগ প্রতিরোধশক্তি বাড়াতে গ্রিন টি

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ওজন কমাতে, ত্বকের জেল্লা বাড়াতে ও করোনা আবহে যেটি সব থেকে বেশি দরকার সেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা...

কেনাকাটা3 weeks ago

ইউটিউব চ্যানেল করবেন? এই ৮টি সামগ্রী খুবই কাজের

বহু মানুষকে স্বাবলম্বী করতে ইউটিউব খুব বড়ো একটি প্ল্যাটফর্ম।

কেনাকাটা1 month ago

ঘর সাজানোর ও ব্যবহারের জন্য সেরামিকের ১৯টি দারুণ আইটেম, দাম সাধ্যের মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘর সাজাতে কার না ভালো লাগে। কিন্তু তার জন্য বাড়ির বাইরে বেরিয়ে এ দোকান সে দোকান ঘুরে উপযুক্ত...

কেনাকাটা1 month ago

শোওয়ার ঘরকে আরও আরামদায়ক করবে এই ৮টি সামগ্রী

খবর অনলাইন ডেস্ক : সারা দিনের কাজের পরে ঘুমের জায়গাটা পরিপাটি হলে সকল ক্লান্তি দূর হয়ে যায়। সুন্দর মনোরম পরিবেশে...

নজরে