Connect with us

জীবন যেমন

স্কুল বন্ধ কিন্তু বড়োদের অফিস চালু, এই পরিস্থিতিতে ছোটোদের সামলাবেন কী ভাবে?

Published

on

room

খবর অনলাইন ডেস্ক : লকডাউনের কড়াকড়ি আপাতত শিথিল হয়েছে কিন্তু মাথায় রাখতে হবে ছোটোদের কথা। বড়োদের ব্যাপারটা সহজ হলেও ছোটোদের তা নয়। প্রায় তিন মাসের কাছাকাছি ঘরবন্দি। স্বাভাবিক ভাবেই এখন একটু ছাড় পেলেই অনেক বেশি লাগামছাড়া হয়ে পড়ছে তারা। ফলে তাদের সামলানো বেশ  মুশকিল হয়ে পড়ছে। কী ভাবে সামলাবেন তাদের?

১। ভয় না দেখিয়ে বোঝান

লকডাউন শিথিল হয়ে আনলক পর্যায় শুরু হলেও কোভিড ১৯ বিদায় নেয়নি। ওষুধ বেরোয়নি। সেটা ছোটোদেরও বোঝাতে হবে। অবশ্যই ভয় দেখানো নয়। তা হলে তারা পরেও ঘরের কোণ ছেড়ে বেরোতে চাইবে না। এখনই পার্কে যাওয়া কেন সম্ভব নয়, স্কুল কেন খুলছে না ভালো করে বোঝাতে হবে।

২। বেরোনোর প্রয়োজন কী

আপনাকে অফিস যেতে দেখলে শিশুর মাথায় প্রশ্ন আসতে পারে তারা কেন নয়? আপনারা কেন? সে ক্ষেত্রেও বাস্তবটা খুব কড়া ভাবে না বলে ওদের বোঝার মতো করে বোঝান। পার্কে যাওয়া আর অফিসে যাওয়ার মধ্যে মূল পার্থক্যটা বোঝান।

Loading videos...

৩। কোলের শিশু?

কোলের শিশু হলে চিকিৎসার প্রয়োজন ছাড়া এখনই নিয়ে বাড়ির বাইরে বেরোবেন না। একঘেয়ে ঘরে ওদের দমবন্ধ লাগলে বাড়ির ছাদে ঘোরাই যায়। তবে রাস্তায় নয়।

৪। শিশুর বয়স ৩-৪ বছর হলে?

৩ বা ৪ বছরের শিশুদের জন্যও একই নিষেধাজ্ঞা পালন করা বাঞ্ছনীয়। তবে নেহাতই নিয়ে বেরোতে হলে ভালো মাস্ক ও গ্লাভস পরান।

লকডাউনে ছোটদের মনের অবসাদ দূর করতে কয়েকটি টিপস

৫। বাইরের খাবার

ছোটোরা বায়না করলেই বাইরের খাবার কিনে দেবেন না। সে ক্ষেত্রে বাড়িতেই মুখরোচক কিছু করে মন ভালো করে দিন। রেস্তোরাঁ থেকে খাবার আনালেও তা বাড়িতে ভালো করে গরম করে তবেই খাবেন।

৬। সময় দিন

নিজেদের কাজের মধ্যেও সময় বের করে তাদের সময় দিন। গল্প করুন, ছবির বই দেখুন, খেলা করুন, কার্টুন দেখুন। ছোটোখাটো হাতের কাজ, ম্যাজিকের মতো জিনিস শেখাতে পারেন। ওদের নিজের মতো থাকতে দিন। তবে খুব বেশি টিভি বা মোবাইলে নয়। কিছু তৈরি করা, করে দেখানো ইত্যাদির টাস্ক দিন। পছন্দের খেলাগুলো হাতের কাছে রাখুন।

৭। লেখাপড়া

শেষে হলেও গুরুত্বপূর্ণ কথা হল লেখাপড়া। সব কিছুর মধ্যে অবশ্যই লেখাপড়ার নিয়ম যেন ভঙ্গ না হয়। এর পর স্কুল খুললে তখন আর পড়াশোনায় মন বসানো যাবে না। তাই নিয়ম করে সমস্ত বিষয়ের পড়াশোনা চালিয়ে যান।

৮। সুরক্ষা বিধির অভ্যাস

এর পর স্কুল খুললে কী ভাবে থাকতে হবে, কী কী নিয়ম মেনে চলতে হবে, সেগুলি এখন থেকেই একটু একটু করে বোঝাতে শুরু করে দিন। পারলে অভ্যাস করাতেও শুরু করুন। যাতে স্কুল শুরু হলে তা নিয়ে সমস্যায় পড়তে না হয়। কোনো রকম ভুলচুক না হয়। অবশ্যই শেখান হাত স্যানিটাইজ কখন কী ভাবে করবে, মাস্কের ব্যবহার, সাবান দিয়ে হাত ধোয়ার অভ্যাস, দূরত্ব বজায় রাখার অভ্যাস।

আপনার বাচ্চা অনলাইনে ঠিকমতো ক্লাস করছে তো! খেয়াল রাখুন এই বিষয়গুলি

Advertisement
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

জীবন যেমন

সম্পর্কের মধ্যে দৃঢ়তা বাড়াতে চান? মেনে চলুন এই পদ্ধতি

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: আজকাল সাধারণ ভাবে সকলেই খুব ব্যস্ত। সঙ্গের মানুষটির সঙ্গেই কথা বলার সময় দিনের মধ্যে হাতে বাঁধা কয়েক মিনিট। তাই অনেক সম্পর্কই কেমন  যেন ফ্যাকাসে হয়ে যাচ্ছে। তাই সম্পর্কের মধ্যে নতুন করে স্পার্ক আনতে ও দৃঢ়তা বাড়াতে এই কয়েকটি টিপ সুযোগ পেলে মেনে চলতে পারেন।

১। সঙ্গীর প্রতি আগ্রহ প্রকাশ

জীবন এখন খুব আত্মকেন্দ্রিক। এক সঙ্গে থাকলেও নিজেদের কাজের, পেশার চিন্তা করতে করতে করতে সময় কেটে যায়। তাই পাশের মানুষটির দিকে তাকানোর বা তার জীবন সম্পর্কে আগ্রহ প্রকাশ করার বা সময় অসময়ে পাশে থাকা হয়ে ওঠে না। তাই তাকে বুঝে ওঠাও হয়ে ওঠে না। সমস্যা বাড়তে থাকে। দিনের মধ্যে কিছুটা সময় নিয়ম করে তাকে দিন, কথা বলুন, তার প্রতি আগ্রহ প্রকাশ করুন।

২। আমি, তুমি ও স্মার্ট ফোন

আজকাল গেম খেলার আকর্ষণ বা সোশ্যাল মিডিয়া চ্যাট বা নিজের কাজের কারণ যে কোনো কারণেই স্মার্টফোন আমাদের জীবনের বহু মূল্যবান সময় কেড়ে নিয়েছে। ফাঁকা সময়ও আমরা স্মার্টফনে মুখ গুঁজে কাটিয়ে দিই। এটিও সম্পর্ক খারাপ হওয়ার একটি অন্যতম কারণ। তাই স্মার্টফোনকে যথাসম্ভব মাঝে ঢুকতে দেবেন না। তা বন্ধ রাখুন। না হলে দূরে রাখুন। এই কাজটা খুব গুরুত্বপূর্ণ।

Loading videos...

৩। কমন ফ্যাক্টর খুঁজে বের করুন  

সকলের সখ আলাদা হয়, স্বভাবও। এক জন চুপচাপ হলে অন্য জন বকবক করতে ভালোবাসেন। কিন্তু তা সত্বেও চেষ্টা করুন কোনো কোনো বিষয়ে দুই জনের মিল খুঁজে বার করতে। তা না হলেও একে অপরকে নিজেদের সখ পূরণে সঙ্গে রাখুন। এতে দাম্পত্যের বন্ধন অটুট হয়। এটা আপনাদের ঘনিষ্ঠতা বাড়াবে। 

৪। সাধারণ কাজগুলি এক সঙ্গে করুন

কাজের জন্য সারা দিন সময় কাটান আলাদা। আলাদা থাকতে বাধ্য হন। তাই বাকি সময়টা এক সঙ্গে থাকার চেষ্টা করুন। সে ক্ষেত্রে এক সঙ্গে খেতে বসতে পারেন। এক সঙ্গে ঘুমোতে যাওয়ার নিয়মটিও বেশ কাজের। এমনটি করতে পারলে ভালো সময় কাটানোর জন্য আলাদা করে সময় বের করতে হয় না। এই বিষয়টি নিজেই সম্পর্ক ভালো করতে সাহায্য করে।

৫। রোমান্সকে তুচ্ছ মনে করবেন না

হতেই পারে দু’ জনেই খুবই বাস্তববাদী। তবুও প্রেম, ভালোবাসার ওপর থেকে ভরসা হারাবেন না। জীবনে এর প্রয়োজনও কম নয়। তাই কারণে অকারণে সঙ্গীকে ‘ভালোবাসি’ বলুন। তাকে চমকে দেওয়ার, আনন্দ দেওয়ার জন্য নিত্য নতুন উপায় বের করুন। নিজেকে রোমান্টিক করে তুলুন। রাতে বেড়াতে যাওয়ার পরিকল্পনা করুন, বাড়িতেই আমেজ করে দু’ জনের খাওয়াদাওয়ার আয়োজন করুন। মাঝে মধ্যে ছোটোখাটো ঘুরতে যাওয়ার প্ল্যান করুন, এক আধ দিন বাইরে খান। অথবা রাতে শোওয়ার সময়টাকে আনন্দময় করে তুলুন। দেখবেন পাশের মানুষটিও বাস্তবতার আবরণ ছেড়ে আপনার সঙ্গে তালে তাল মিলিয়ে আনন্দ করছে। এতে সম্পর্ক দৃঢ় হয়।

পড়ুন – বদরাগী মানুষের সঙ্গে সম্পর্ক সামলাবেন কী করে ? রইল টিপস

আরও – শিশুসন্তানের সঙ্গে বাবা-মা এই ভুল আচরণ প্রায়ই করে থাকেন

Continue Reading

ঘরদোর

ভ্যাকিউম ক্লিনার ব্যবহারের ৭টি জরুরি তথ্য, অবশ্যই জানা উচিত

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: আজকাল হাতে সময় কম কিন্তু কাজ বেশি। তার ওপর ধুলো নোংরার পরিমাণ দিনের দিন বাড়ছে। তাই কাজ অতি দ্রুত করার প্রয়োজন। সঙ্গে আবার ছোটো বড়ো সকলেরই নানান কারণে ব্যথার প্রকোপ। ফলে সময় বা প্রয়োজন থাকলেও বেশি কাজ করাও সম্ভব নয়। তাই সহজে কাজ সারতেই আমরা টেকনোলজির হাত ধরছি। তেমনই ঘরদোরের ধুলো পরিষ্কার করার জন্য রয়েছে ভ্যাকিউম ক্লিনার। এই নামটা অনেকেই জানেন। কিন্তু অনেকেই এর ব্যবহার, ধরন বা প্রয়োজনীয়তা ঠিক কতটা তা জানেন না। আজ রইল এর ব্যবহারের সঠিক পদ্ধতি থেকে শুরু করে নানা বিষয়ে খুঁটিনাটি কথা।

কেন কিনবেন ভ্যাকিউম ক্লিনার?

সোজা ভাবে দাঁড়িয়েই ঘর, গাড়ি, খাটের তলা, ঘরের আনাচকানাচ, সোফা, ঘরের পর্দা, কার্পেট, তোষক, জ্যাকেট, গাড়ি, ভারী চাদর ইত্যাদি পরিষ্কার করার জন্য এটি খুবই উপকারী। এমনকি ঝুলঝাড়ার কাজটিও এটি ভালোই করে।

কী ভাবে কাজ করে?

এটি বিদ্যুতের সাহায্যে চলে। ভ্যাকিউম ক্লিনার ব্যবহার করার যোগ্য ভোল্টেজ ১২V, পাওয়ার কনজাম্পসন ৪৮W।

Loading videos...

কত রকমের হয়?

বাজারে নানা ধরনের ভ্যাকুয়াম ক্লিনার আছে। সিলিন্ড্রিক্যাল ভ্যাকুয়াম, আপরাইট ভ্যাকুয়াম ক্লিনার।

১। সিলিন্ড্রিক্যাল ভ্যাকুয়াম ক্লিনার – এটি ছোটো ও হালকা। এটি দিয়ে মোটামুটি সব জায়গা পরিষ্কার করা যায়।

২। আপরাইট ভ্যাকুয়াম ক্লিনার – এটি ভারী। এটি আগেরটির থেকে অনেক বেশি পরিমাণে ধুলা-ময়লা টানতে পারে। কার্পেটের মতো ভারী জিনিস পরিষ্কার করতে লাগে।

কেনার আগে কী কী খেয়াল করবেন?

১। প্রতিটি ব্র্যান্ডের ভ্যাকুয়াম ক্লিনারের সঙ্গে একাধিক অ্যাটাচমেন্ট থাকে। তাই প্রত্যেকটি অ্যাটাচমেন্ট কেনার আগেই লাগিয়ে ও খুলে দেখুন।

২। ব্যবহার করে বুঝে নিন।

৩। আপনার প্রয়োজনের উপর নির্ভর করে সঠিকটি বেছে নিন। বিস্তারিত জেনে কিনুন। তবে ভ্যাকুয়াম ক্লিনার স্লিকার এবং হালকা হলেই ভালো।

৪। অনেক সময় ভ্যাকুয়াম ক্লিনারের চাকা মেঝের ক্ষতি করে। দেখে নিন চাকায় ঠিকমতো প্যাডিং দেওয়া রয়েছে কি না।

৫। গ্যারান্টি ও সার্ভিসিংয়ের পূর্ণাঙ্গ তথ্য জেনে নিন।

সুবিধেজনক কোনটি?

এর অ্যাটাচমেন্টগুলি দুই রকমেরই হয়, প্ল্যাস্টিক ও মেটালের। প্লাস্টিক থেকে মেটাল বেশি দিন টেকে। তাই দেখে নিন।

অনেক ভ্যাকুয়াম ক্লিনারে ডাস্টব্যাগ থাকে না। কিন্তু ডাস্টব্যাগ-সহ ভ্যাকুয়াম ক্লিনার ব্যবহার সুবিধাজনক। সব ধুলোময়লা সিল করা ব্যাগে জমা হয়। ব্যাগ ভর্তি হলে তা পরিষ্কার করে ফেলা যায়।

আবার ব্যাগ অনেক ক্ষেত্রে নিয়মিত বদল করতে হয়। তাই ঘরের জন্য সেরা ভ্যাকুয়াম ক্লিনারগুলির নতুন মডেলগুলি ব্যাগলেস থাকে। সে ক্ষেত্রে এর মধ্যেই ময়লা জমা হয়। সেখান থেকে ফেলে দেওয়া যায়।

ভ্যাকুয়াম ক্লিনারের পাওয়ার বা এনার্জির ওপর কর্মক্ষমতা নির্ভর করে। সিলিন্ড্রিক্যাল ক্লিনার ১৪০০ ওয়াট আর আপরাইট সিলিন্ড্রিক্যাল ১৩০০ ওয়াট হলে ভালো হয়।

ভ্যাকুয়াম ক্লিনারের সঠিক ব্যবহার কী?

১। ম্যানুয়ালের নির্দেশ অনুযায়ী ক্লিনারের অ্যাটাচমেন্ট ব্যবহার করুন। যেমন- ঘরের কোনের জন্য সরু মুখ ভ্যাকুয়াম ক্লিনার।

২। কার্পেট পরিষ্কারের জন্য ব্রাশযুক্ত ক্লিনার ভালো।

৩। ব্যবহারের পর ভ্যাকুয়াম ক্লিনার ভালো করে পরিষ্কার করুন।

৪। কিছু জিনিস ব্রাশ দিয়ে পরিষ্কার করতে হয়, কিছু আবার সাবান জলে ধুতে হয়।

৫। ভ্যাকুয়াম ক্লিনার ভালো রাখতে হলে ডাস্টব্যাগ ভর্তি হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে পরিষ্কার করুন।

৬। টেবিল-চেয়ারের মতো ছোটো আসবাব সরিয়ে ভ্যাকুয়াম ক্লিনার ব্যবহার করুন। এতে ভালো ভাবে পরিষ্কার হবে।

৭। ভ্যাকুয়াম ক্লিনার রাখার জন্য ঘরের সঠিক জায়গা বাছুন। অবশ্যই শিশুদের নাগালের বাইরে রাখুন।

কত দাম হতে পারে?

বাজারে এখন ভ্যাকুয়াম ক্লিনারের দাম নানা রকমের রয়েছে। ব্র্যান্ড ও কার্যকারিতার ওপর দাম নির্ভর করে। মোটামুটি ২ হাজার থেকে থেকে শুরু করে অনেক বেশি দামের ভ্যাকিউম ক্লিনার বাজারে আছে। তবে টেকসই জিনিস পেতে হলে একটু দাম বেশি দিয়ে ব্র্যান্ডেড কেনাই ভালো। তবে কম দাম হলেই যে জিনিস খারাপ তা কিন্তু কখনোই না।

আরও পড়ুন – ওয়াশিং মেশিন ব্যবহারের আগে ৫টি জরুরি তথ্য, যা আপনার অবশ্যই জানা উচিত

Continue Reading

জীবন যেমন

বদরাগী মানুষের সঙ্গে সম্পর্ক সামলাবেন কী করে ? রইল টিপস

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: প্রেম বা বিয়ে কোনোটাই ঝগড়া ছাড়া গভীরতা পায় না। ঝগড়া না হলে সম্পর্কে কোনো স্পার্ক নেই। টানা সাত দিন ঝগড়া, কথা বন্ধ এমন প্রায় প্রত্যেক সম্পর্কেই হয়। এতে গভীরতা বাড়ে। যেখানে ভালোবাসা বেশি, ঝগড়া খুনসুটি কিন্তু সেখানেই বেশি। এটা ভুললে চলবে না, সবারই আলাদা মতাদর্শ আছে। তাই মতবিরোধ স্বাভাবিক।

কিন্তু সব সময় অকারণে খুঁটিনাটি, ডাইনে-বাঁয়ে নিয়ে ঝগড়াও কাম্য নয়। ২৪ ঘন্টাই চিৎকার, ঝামেলা হলে সেই সম্পর্ক আবার স্থায়ী হলেও সুখের হয় না।

তাই পার্টনার বা সঙ্গী যদি খুব বদরাগী হয় তা হলে তাকে সামাল দেওয়ার কয়েকটি টিপ রইল –

Loading videos...

১। বচসায় যাবেন না

মনের মানুষটি যদি কথায় কথায় রেগে যান, সে ক্ষেত্রে সেই মুহূর্তে কোনো রকম কথা কাটাকাটি তর্ক বচসায় যাবেন না। কারণ অনেকেই রাগ হলে সামলাতে পারেন না। ভুলভাল কথা বলেন। সে সময়ে আপনি ঠান্ডা থাকুন। মানসিক ভাবে ঠিক থাকুন। ও সব কথায় বিশেষ আমল দেবেন না। বার বার এড়িয়ে যাওয়া সম্ভব নয় ঠিকই, কিন্তু যতটা সম্ভব চেষ্টা করুন।

২। খোলাখুলি কথা বলা

সম্পর্কে অধিকারবোধ সামান্য হলেও থাকা প্রয়োজন। সেটা দু’জনের দিক থেকেই থাকতে হবে। তা না হলে সম্পর্ক মধুর ও দৃঢ় হয় না। কিন্তু কারোরই প্রত্যেক বিষয়ে মাথা গলানো উচিত নয়। তেমন হলে সম্পর্ক নষ্ট হয়ে যায়। তাই সমস্যাটি নিয়ে খোলাখুলি কথা বলা উচিত। বুঝলে ভালো, না হলে বুদ্ধি দিয়ে সম্পর্কটিও নিয়ে বিবেচনা করা উচিত।

৩। সব বিষয়ে শাসন নয়

অনেকের মধ্যেই অন্য জনকে নিয়ন্ত্রণ করার প্রবণতা থাকে। তাঁদের মনে হয় উলটো দিকের মানুষটি নিজের ভালো বোঝে না। তাই অভিভাবকের মতো আচরণ করেন। কিছু ক্ষেত্রে সেটি খুবই ভালো হলেও সব ক্ষেত্রে তা না-ও হতে পারে। তাই এমন পরিস্থিতিতে বুঝিয়ে বলা দরকার যে, উভয়েই প্রাপ্তবয়স্ক। নিজের ভালো বোঝার ক্ষমতা আছে। তাই সব বিষয়ে শাসন না করলেও চলবে।  

পড়ুন – শিশুসন্তানের সঙ্গে এই আচরণগুলি ভুল করেও করবেন না

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
ক্রিকেট3 mins ago

রানের বন্যা! ভারত আর অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে আসল ফারাক গড়ে দিলেন স্টিভ স্মিথ

রাজ্য6 mins ago

শুভেন্দু অধিকারীর ইস্তফা-কাণ্ডে কড়া প্রতিক্রিয়া অধীররঞ্জন চৌধুরীর

examination
শিক্ষা ও কেরিয়ার37 mins ago

পরের বছর থেকে মাতৃভাষায় পড়া যাবে ইঞ্জিনিয়ারিং: শিক্ষামন্ত্রক

রাজ্য1 hour ago

শুভেন্দু অধিকারীর সিদ্ধান্তকে ‘স্বাগত’ জানালেন মুকুল রায়

দেশ2 hours ago

কোভিড হাসপাতালে আগুন: গুজরাত সরকারের রিপোর্ট চাইল সুপ্রিম কোর্ট

দেশ2 hours ago

জাইডাস ক্যাডিলার কোভিড-টিকার অগ্রগতি পরিদর্শনে গুজরাত যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

রাজ্য3 hours ago

এখনই দলের বিধায়কপদ ছাড়ছেন না শুভেন্দু অধিকারী?

Ali Zaker
বাংলাদেশ4 hours ago

স্বাধীন বাংলা বেতারকেন্দ্রের শব্দসৈনিক বরেণ্য অভিনেতা আলী যাকের আর নেই

কেনাকাটা

কেনাকাটা1 day ago

শীতের নতুন কিছু আইটেম, দাম নাগালের মধ্যে

খবর অনলাইন ডেস্ক: শীত এসে গিয়েছে। সোয়েটার জ্যাকেট কেনার দরকার। কিন্তু বাইরে বেরিয়ে কিনতে যাওয়া মানেই বাড়ি এসে এই ঠান্ডায়...

কেনাকাটা3 days ago

ঘর সাজানোর জন্য সস্তার নজরকাড়া আইটেম

খবর অনলাইন ডেস্ক: ঘরকে একঘেয়ে দেখতে অনেকেরই ভালো লাগে না। তাই আসবারপত্র ঘুরিয়ে ফিরে রেখে ঘরের ভোলবদলের চেষ্টা অনেকেই করেন।...

কেনাকাটা6 days ago

লিভিংরুমকে নতুন করে দেবে এই দ্রব্যগুলি

খবর অনলাইন ডেস্ক: ঘরের একঘেয়েমি কাটাতে ও সৌন্দর্য বাড়াতে ডিজাইনার আলোর জুড়ি মেলা ভার। অ্যামাজন থেকে তেমনই কয়েকটি হাল ফ্যাশনের...

কেনাকাটা1 week ago

কয়েকটি প্রয়োজনীয় জিনিস, দাম একদম নাগালের মধ্যে

খবর অনলাইন ডেস্ক: কাজের সময় হাতের কাছে এই জিনিসগুলি থাকলে অনেক খাটুনি কমে যায়। কাজও অনেক কম সময়ের মধ্যে করে...

কেনাকাটা3 weeks ago

দীপাবলি-ভাইফোঁটাতে উপহার কী দেবেন? দেখতে পারেন এই নতুন আইটেমগুলি

খবর অনলাইন ডেস্ক : সামনেই কালীপুজো, ভাইফোঁটা। প্রিয় জন বা ভাইবোনকে উপহার দিতে হবে। কিন্তু কী দেবেন তা ভেবে পাচ্ছেন...

কেনাকাটা4 weeks ago

দীপাবলিতে ঘর সাজাতে লাইট কিনবেন? রইল ১০টি নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আসছে আলোর উৎসব। কালীপুজো। প্রত্যেকেই নিজের বাড়িকে সুন্দর করে সাজায় নানান রকমের আলো দিয়ে। চাহিদার কথা মাথায় রেখে...

কেনাকাটা2 months ago

মেয়েদের কুর্তার নতুন কালেকশন, দাম ২৯৯ থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজো উপলক্ষ্যে নতুন নতুন কুর্তির কালেকশন রয়েছে অ্যামাজনে। দাম মোটামুটি নাগালের মধ্যে। তেমনই কয়েকটি রইল এখানে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা2 months ago

‘এরশা’-র আরও ১০টি শাড়ি, পুজো কালেকশন

খবর অনলাইন ডেস্ক : সামনেই পুজো আর পুজোর জন্য নতুন নতুন শাড়ির সম্ভার নিয়ে হাজর রয়েছে এরশা। এরসার শাড়ি পাওয়া...

কেনাকাটা2 months ago

‘এরশা’-র পুজো কালেকশনের ১০টি সেরা শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো কালেকশনে হ্যান্ডলুম শাড়ির সম্ভার রয়েছে ‘এরশা’-র। রইল তাদের বেশ কয়েকটি শাড়ির কালেকশন অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা2 months ago

পুজো কালেকশনের ৮টি ব্যাগ, দাম ২১৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : এই বছরের পুজো মানে শুধুই পুজো নয়। এ হল নিউ নর্মাল পুজো। অর্থাৎ খালি আনন্দ করলে...

নজরে