Connect with us

ঘরদোর

অন্দরসজ্জা: আলোর ঠিকানা ৩

moitryমৈত্রী মজুমদার

আধুনিক কালে অন্দর মহলের আলোক সজ্জায় মুড লাইটিং ব্যবহারের কথা আমরা আগেই আলোচনা করেছি। আর এই মুড বা ইনডাইরেক্ট আলোকসজ্জা সবচেয়ে জরুরি হল শোয়ার ঘরে। কারণ এই জায়গাটিতেই দিনের শেষে এসে আপনি বিশ্রাম নেবেন। আবার অবসরে আড্ডা মারবেন বা প্রয়োজনে পড়াশোনা করবেন। এই ঘরটির আশেপাশেই অনেকটা সময় কেটে যায় আপনার। তাই এই ঘরের আলোক সজ্জায় একটু বেশিই যত্নশীল হওয়া উচিৎ।

আপনার শোয়ার ঘর হওয়া উচিৎ আপনার ব্যক্তিত্ব অনুযায়ী এবং সেই ভিন্নতাটা আসবে আলোকসজ্জার ওপর ভিত্তি করে।

শোয়ার ঘর যদি সাবেকি ধরনে সাজাতে চান, তাহলে এর পুরো এলাকায় সমান আলোক বণ্টনের দিকে নজর দিতে হবে। ফলসসিলিং থাকলে এই কাজটি খুবই সুন্দর ভাবে করা যায়। এতে আলো ইনডাইরেক্ট হয়েও সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ে কিন্তু চোখে অসুবিধা হয় না। সঙ্গে কিছু অন্য ফিটিংস ডেকোরেশনের স্বার্থে রাখতে পারেন।

1

আপনার যদি ফ্যান্সি বেডরুম পছন্দের হয় সেক্ষেত্রে ফ্যান্সি ঝাড়বাতি খুবই উপযুক্ত। আর ঘরের আয়তন অনুযায়ী এক বা একাধিকও লাগানো যেতে পারে।

2

কিন্তু যদি সাদামাটা  শোবার ঘর আপনার পছন্দ হয় তাহলে  বেডসাইড টেবিলে টেবিল ল্যাম্প এবং ওয়াল প্যানেলিং-এর আড়ালে লাইট, এরকম জায়গা বিশেষে প্রয়োজন মতো আলোর ব্যবহার করতে হবে।

3

আপনার নিজস্ব শোওয়ার ঘরটি বাদে যদি বাড়িতে অতিরিক্ত বেডরুম থাকে যেটা হয়তো অতিথিদের থাকার জন্য বা পড়াশনা করা বা বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা মারার সময় ব্যবহার করেন, সেখানে আলোকসজ্জার ক্ষেত্রে বেশ খানিকটা সাহসী বা এক্সপেরিমেন্টাল পদক্ষেপ করতে পারেন লাইট ফিটিং পছন্দের ক্ষেত্রে।

home-1

 

 

তবে যদি বাড়িতে বাচ্চা থাকে, তাহলে তাদের ঘর সাজানোর জন্য যারপরনাই ক্রিয়েটিভ হওয়ার সুযোগ এবং প্রয়োজনীয়তা সমান সমান। এবং এক্ষেত্রেও আকর্ষণীয় অন্য ধরনের ফলস সিলিং-এর ব্যবহার আপনার আলোকসজ্জার কাজকে সুবিধাজনক করে তুলবে।

6

কিন্তু যদি তা না করতে চান তাহলে আরও একটু বেশি মাথা খাটিয়ে নিজের পছন্দ মতো আলো বিভিন্ন নক্সার সঙ্গে মিলিয়ে থিম বানিয়ে নিন আর স্থানীয় মিস্ত্রি কাজে লাগিয়ে সেভাবে বানিয়ে নিতে পারেন আপনার আলোকসজ্জা।

home-2

এত ঝামেলায় না যেতে চাইলে, ঘরের বিভিন্ন জায়গার উপযোগিতা অনুযায়ী আলাদা আলাদা রকম আলো লাগান। যেমন পড়ার টেবিলের ওপর টেবিল ল্যাম্প, খাটের হেডবোর্ডের পাশে নাইট স্টাডি ল্যাম্প, ঘরের মাঝে পেন্দেন্ট বা কাগজের ফ্যান্সি লাইট ফিটিং ইত্যাদি।

8

যেভাবেই সাজান না কেন বাজারে আজকাল খুবই আকর্ষণীয় জিনিসপত্র পাওয়া যাচ্ছে, তাই সার্ভেটা ভালো ভাবে করে নেবেন।

সবার শেষে আসব সেই জায়গার আলোকসজ্জার কথায়, যার কথা সচরাচর পিছনের সারিতেই থাকে। অথচ বাড়ির ও তাতে বসবাসকারীদের শরীর স্বাস্থ্যের সজীবতা এর ওপরেই অনেকটা নির্ভরশীল। সেটি হল বাথরুম।

একটা সময় ছিল যখন বাথরুমের জন্য বরাদ্দ হত সবচেয়ে   কম বাজেট এবং তা বাল্বের পাওয়ারেও নজরে পড়তো। এমন বাড়িও আছে যেখানে জিরো পাওয়ার বা ডিমলাইট বরাদ্দ হয় বাথরুমের জন্য। কিন্তু এটি কোনো দিক থেকেই সুখকর নয়।

বাথরুম যেহেতু বাড়ির অতি প্রয়োজনীয় জায়গাগুলোর মধ্যে একটা তাই এখানকার আলোকসজ্জাও বেশি গুরুত্ব পাওয়া উচিৎ।

আপনার বাড়িতে বাথরুমটি যদি ছোটো হয় সেক্ষেত্রে কিন্তু ডাইরেক্ট লাইটিং-ই হওয়া উচিৎ। যদি অল্পের মধ্যে সারতে চান, একটি পছন্দসই লাইট ফিটিং নিয়ে তাতে জোরাল আলো হয় এমন এলইডি লাইট লাগিয়ে নিন। যাতে পুরো জায়গাটি যথেষ্ট আলোকিত থাকে এবং আপনি সকাল বা সন্ধ্যে সবসময়ই তা পরিষ্কার রাখতে পারেন।

11

যদি অন্যরকম কিছু করতে চান, তারও বহু উপায় আছে।

বাথরুমের কাজের জায়গা অনুযায়ী এলাকা ভাগ করে নিন। এবার বাথরুমের থিম অনুযায়ী বেসিনের ওপর ওয়ালব্র্যাকেট, বা হ্যাঙ্গিং বা সিলিং রিসেসড লাইট লাগাতে পারেন। যার ফোকাস হবে নিচের দিকে। আর বেসিনে  হাতমুখ ধোয়া বা মুখে টাচ আপ করা, দাড়ি কাটার সময় নরম আলো দেবে।

12

শাওয়ার এলাকায় অল্প জোরালো আলো লাগাতে পারেন এবং অবশ্যই সিলিং-এ লাগানো লাইট ফিটিং-এর ওপরই জোর দিন এই স্থানে। তাতে লাইট-এ জল লাগার সম্ভাবনা থাকে না।

13

আপনার বাথরুম যদি বেশ বড়োসড়ো হয়, সেক্ষেত্রে তাকে ল্যাভিস করে তুলতে পারেন একই থিমের বিভিন্ন লাইটফিটিং লাগিয়ে। এবং সেখানে ওয়াল ব্র্যাকেট থেকে শুরু করে, সিলিং থেকে ঝোলানো ঝাড়বাতি সবই লাগানো যায়।

14

অবাক হচ্ছেন? আপনার বাড়ির অন্দরমহল, আপনার ব্যাক্তিত্বেরই বহিঃপ্রকাশ। তাই একে সাজানোর ক্ষেত্রে দোটানায় থাকবেন না। মনের জানলা দরজা খুলে, ইচ্ছের ডানা মেলে দিন। দেখবেন তাজা হাওয়ায় নিঃশ্বাস নিতে নিতে আপনার অন্দরমহল পেয়ে গেছে চেনা-অচেনার মায়ায় ঘেরা সেই ‘আলোর ঠিকানা’ ।

(শেষ)

ছবি: ইন্টারনেটের মাধ্যমে সংগৃহীত

কেনাকাটা

ঘরের একঘেয়েমি আর ভালো লাগছে না? ঘরে বসেই ঘরের দেওয়ালকে বানান অন্য রকম

খবরঅনলাইন ডেস্ক : একে লকডাউন তার ওপর ঘরে থাকার একঘেয়েমি। মনটাকে বিষাদে ভরিয়ে দিচ্ছে। ঘরের রদবদল করুন। জিনিসপত্র এ-দিক থেকে ও-দিক আর এ-ঘর থেকে সে-ঘর করে ঘরের ভোল বদলে ফেলুন। মন ভালো লাগবে। ঘরের বড়ো বড়ো দেওয়াল, আলমারি, জানলা দরজার একঘেয়েমি কাটাতে বিনা ঝক্কিতেই বদলে ফেলুন চেহারা। কী ভাবে? অ্যামাজনের এই সমস্ত টাইল আর ওয়ালপেপার বা ওয়াল স্টিকারের ডিজাইনগুলি ব্যবহার করে। এখান থেকে পছন্দ করুন আর অর্ডার দিন এসে গেলেই দেওয়ালে লাগিয়ে ফেলুন আর নতুনত্বের স্বাদ উপভোগ করুন

দাম প্রতিবেদন লেখার সময় যা ছিল তাই দেওয়া হল –

১। ইন্ডিয়ান রয়্যাল উইন্ড ওয়ালপেপার

বেডরুম, লিভিংরুম, হল, কিচেন সব জায়গার দেওয়ালেই লাগানো যাবে। এর পেছন দিকে আঠা দেওয়াই আছে, কাগজ খুলে দেওয়ালে বা পছন্দের জায়গায় সাঁটিয়ে নেওয়ার অপেক্ষা। ওয়াটারপ্রুফ, হিটপ্রুফ ও ওয়েলপ্রুফ। এটি কিন্তু একাধিকবার ব্যবহার করা যাবে। মাপ ২০০ X ৪৫ সেমি। প্রায় ৯ বর্গফুটের মতো।

দাম – ৬০% ছাড়ে ৩৯৯ টাকা

২। রয়্যাল ব্রিক স্টোন

এটিও বাড়ির যে কোনো দেওয়ালে ব্যবহার করা যাবে। মাপ ২০০ X ৪৫ সেমি। প্রায় ৯ বর্গফুটের মতো। দীর্ঘ দিন চলে। একাধিকবার ব্যবহার করা যাবে। তবে খোলার সময় সাবধানে খুলতে হবে। দ্বিতীয় বারের সময় আঠা একটু কমে যেতে পারে। সে দিকে খেয়াল রেখতে হবে।

দাম – ৭০% ছাড়ে ২৯৯ টাকা

৩। উডেন স্ট্রাইপ ওয়ালপেপার

বেডরুম, লিভিংরুম, হল, কিচেন, আয়না, দরজা সব জায়গায় লাগানো যাবে। এর পেছন দিকে আঠা দেওয়াই আছে, কাগজ খুলে দেওয়ালে বা পছন্দের জায়গায় সাঁটিয়ে নেওয়ার অপেক্ষা। ওয়াটারপ্রুফ, হিটপ্রুফ ও ওয়েলপ্রুফ। এটি কিন্তু একাধিকবার ব্যবহার করা যাবে। পরিমাণ ২০০ X ৪৫ সেমি। প্রায় ৯ বর্গফুটের মতো।

দাম – ৬০% ছাড়ে ৩৯৯ টাকা

৪। উডেন ব্যাম্বু ওয়ালপেপার

এটি উপহার হিসাবেও কাউকে দেওয়া যেতে পারে। তবে তার জন্য কারো বাড়ি যাওয়ার অবশ্যই প্রয়োজন নেই। অর্ডার করার সময় সেখানকার ঠিকানা দিয়ে দিলেই পৌঁছে যাবে উপহার, সে কথা নিশ্চয়ই বলে দিতে হবে না। নিজের বাড়িতেও ব্যবহার করতে পারেন। এমনকি সিঁড়ির ধাপেও ব্যবহার করা যায়। মাপ ৯ বর্গ ফুট মতো।

দাম – ৬০% ছাড় দিয়ে ৩৯৯ টাকা

৫। রয়্যাল ওয়ালপেপার

একাধিক বার ব্যবহার করা যাবে। বাড়ি অফিস দোকান সব জায়গায় ব্যবহার করা যাবে, মেঝেতেও ব্যবহার করা যেতে পারে। এমনকি আলমারি বা সে কোনো সেলফের উপর ব্যবহার করা যাবে।

দাম – ৬০% ছাড়ে ৩৯৯ টাকা

৬। ওয়াল পোস্টার

নতুনত্বের জন্য এক দম আদর্শ একটি ওয়ালপেপার। যে কোনো জায়গায় ব্যবহার করা যেতে পারে। তবে বসার ঘর বা ডাইনিং অথবা অফিসের জন্য আদর্শ। একাধিক বার ব্যবহার করা যাবে। মাপ ৯ বর্গফুট মতো।

দাম – ৬০% ছাড়ে ৩৯৯ টাকা  

৭। রেট্রো উড গ্রেন

সম্পূর্ণ অন্য রকম লুক দিতে এই ওয়ালপেপারটি ব্যবহার করে দেখতে পারেন। কাঠের দেওয়ালের মতো দেখতে। দেওয়াল ছাড়াও আলমারি বা সেলফে ব্যবহার করা যায়।

দাম – ৬০% ছাড়ে ৩৯৯ টাকা

৮। রিমুভেবল ওয়ালপেপার

কচি বাঁশের দেওয়ালের চেহারা দিতে এটি খুব সুন্দর উপায়।

দাম- ৬০% ছাড়ে ৩৯৯ টাকা

৯। ওয়ালস্টিকার

নৃত্যরতা মহিলার স্টিকার। ফুলের নকশা কাটা। যে কোনো জায়গায় দেওয়ালে সাঁটানো যেতে পারে।

দাম – ৫৪% বাদে ২২৯ টাকা

১০। বেবি কৃষ্ণ ওয়ালস্টিকার

অস্থির আবহে মন শান্ত করতে ঘরে রাখতে পারেন বিশাল বড়ো মাখন চোরের ছবি।  ১৬০০ বর্গসেমি দেওয়াল ভরাট করবে একটি শিশু কৃষ্ণের ছবি। ওয়াটারপ্রুফ ও উচ্চ মানের। ৪ থেকে ৭ বছর টিকবে। এ ছাড়াও আরও অন্যান্য ছবিও আছে তবে দাম ও মাপ আলাদা।

দাম – ৬৯% ছাড়ে ২৪৯ টাকা

 ১১। ফেয়ারি প্রিন্সেস

ছোটোদের মনে একটু আনন্দ এনে দিতে তাঁদের ঘরের দেওয়াল ভরিয়ে দিতে পারেন রূপকথার গল্পের নানান চরিত্রদের দিয়ে। দেওয়াল বা আলমারি বা সেলফ যে কোনো জায়গায় সাঁটাতে পারেন। এইটি একটি ছোট্টো পরীর ছবি, সঙ্গে আরও নানান ছোটো স্টিকার। মাপ – ৬০ x ৪৫ সেমি। দেওয়ালে মোট জায়গা লাগবে ১০০ x ৭০ সেমি।

দাম – ৬৯% বাদ দিয়ে ১৭৫ টাকা

১২। সিলভার অ্যাক্রেলিক ৩ডি মিরার স্টিকার

পাঁচটির সেট। ৩ডি মিরার স্টিকার। এটিও ডু ইট ইওরসেলফ অর্থাৎ নিজে নিজে ঘর সাজানোর একটি উপকরণ।

দাম – ৭৪% ছাড়ে ২৭০ টাকা

১৩। আফ্রিকান ট্রাইবাল ওম্যান ওয়ালস্টিকার

৪০০টিরও বেশি ডিজাইন পাওয়া যায়। এক একটির মাপ ৫০ x ৭০ সেমি। দেওয়ালে মোট জায়গা লাগবে ৫০ x ৮০ সেমি।

দাম ৮৭% ছাড়ে ৮৯ টাকা

১৪। সানফ্লেম মিরর ডেকরেটিভ ওয়াল স্টিকার

একটি সূর্যের মতো ওয়ালস্টিকার। এটি ৩ডি অ্যাক্রেলিক স্টিকার। সঙ্গে ১০টি অতিরিক্ত প্রজাপতি। সূর্যের আয়তন ৪৫ x ৪৫ সেমি।

দাম -৭১% বাদে ২৭৯ টাকা

১৫। হ্যাপি ওয়ালস বাইসাইকেল

৪ থেকে ৫ বছর টিকবে। ওয়াটার প্রুফ ওয়াল স্টিকার।

দাম – ৬০% ছাড় দিয়ে ১৯৯ টাকা

https://www.khaboronline.com/life-style/diy-materials-from-amazon/দেখুন – সময় কাটছে না? ঘরে বসে এই সমস্ত সামগ্রী দিয়ে করুন ডিআইওয়াই আইটেম

Continue Reading

কেনাকাটা

রান্নাঘরের টুকিটাকি প্রয়োজনে এই ১০টি সামগ্রী খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক : লকডাউনের মধ্যে আনলক হলেও খুব দরকার ছাড়া বাইরে না বেরোনোই ভালো। আর বাইরে বেরোলেও নিউ নর্মালের সব নিয়ম মেনে চলা উচিত। অর্থাৎ বাইরে গেলে মাস্ক, শারীরিক দূরত্ব ও অন্যান্য বিধিনিষেধ ও বাড়ি এসে ভালো করে পরিচ্ছন্ন হওয়া, জামাকাপড় কাচা, স্যানিটাইজ করা ইত্যাদি। তাই এখন যেন দরকারেও বাইরে বেরোতে অরুচি। তাই টুকিটাকি প্রয়োজনগুলিকে গুরুত্ব না দিয়ে এড়িয়ে চলাই ভালো মনে হচ্ছে। কিন্তু তারও দরকার নেই। টুকিটাকি প্রয়োজন পূরণের জন্য কোনো রকম নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে ঘুরে আসাই যায় অনলাইন শপিং মলে। 

তেমনই কয়েকটি টুকিটাকি অথচ খুবই কাজের জিনিসের খোঁজ রইল আজকের তালিকায়। প্রতিবেদনটি লেখার সময় অ্যামাজনের অনলাইন পোর্টালে যে দাম দেখানো হয়েছিল সেটাই দেওয়া হল।

১। স্যাভলন সারফেস ডিসইনফেকটেন্ট স্প্রে

করোনাভাইরাস ও অন্যান্য যে কোনো জীবাণু খুব দ্রুত মুক্ত করতে এসে গিয়েছে স্যাভলনের স্প্রে। টেবিল দরজার কড়া, তালা চাবি, চেয়ার, প্যাকেজ, জামা কাপড়, গাড়ির ভেতর যে কোনো জিনিসেই স্প্রে করা যাবে।

দাম ১৫৯ টাকা

২। রিউইজেবল জিপজ্যাক প্ল্যাস্টিক ফুড স্টোরেজ ব্যাগ

আনাজ ফল ইত্যাদি একেবারে কিনে এনে রাখতে গিয়ে পচে যাচ্ছে। তাই ইচ্ছা না থাকলেও বার বার বাজার যেতে বাধ্য হচ্ছেন। চিন্তা করবেন না রিউইজেবল ফুড স্টোরেজ ব্যাগে রাখলে দীর্ঘ দিন ভালো থাকবে ফল আনাজপাতি। এক লিটার তরলও ধরতে পারে। ১০টি ব্যাগ।

দাম  ৫৬% ছাড় দিয়ে  ৩৪৯ টাকা।

৩। মাইক্রোফাইবার মপ স্লিপার

বাড়িঘর পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে এ দিকে কোমরে-ঘাড়ে ব্যথা? লাঠি বা ন্যাতা কোনো কিছু দিয়েই ঘর মুছতে না পরলে রয়েছে মাইক্রোফাইবার মপ স্লিপার। এটি পরে সারা ঘরে হেঁটে বেরালেই ঘর মোছা হয়ে যাবে। দু’টি দাম ৭% ছাড় দিয়ে ২৭৬৯ টাকা

৪। হ্যান্ডি মিনি প্লাস্টিক চপার

খুব দ্রুত আনাজপাতি কুচিকুচি কেটে ফেলার সহজ উপায় হ্যান্ডি মিনি প্ল্যাস্টিক চপার। বাটির ভেতরে সবজি দিন আর হ্যান্ডেল ধরে কয়েকটি টান দিন। কাটা হয়ে যাবে।    

দাম ৪৪% ছাড় দিয়ে ২৭৯ টাকা

৫। ভেজিটেবল কাটার চপার

যাবতীয় আনাজ বিভিন্ন আকারে কাটতে হলে এটি আদর্শ। মোট ১২ রকমের ব্লেড রয়েছে এইটিতে।

দাম ৪৪% ছাড় দিয়ে ৪৯৯ টাকা।

৬। সিলিকন পট হোল্ডার হিট রেজিস্টেন্স

গরম কিছু নামাতে গেলে কাপড় কিংবা কাগজ ব্যবহার করেন। বার বার সেটি পুড়েও যাওয়ার ভয় হয়? হাতে গরম লাগে। আর চিন্তা নেই ব্যবহার করুন এই সিলিকন পটহোল্ডার। গরমে কোনো ক্ষতিও হবে না। হাতেও গরম লাগবে না। আগুনের সামনে ও মাইক্রোওভেনে ব্যবহার করা যাবে। ২টি।

দাম ৬৩% ছাড় দিয়ে ২৯৯ টাকা

৭। স্ক্রাব ক্লিনিং গ্লাভস উইথ স্ক্রাবার

বাসন মাজতে গিয়ে হাত নোংরা হয়ে যায়, নখের কোণে ময়লা ঢুকে দেখতে খারাপ লাগে। ব্যবহার করতে পারেন এই স্ক্রাব গ্লাভস। শুধু বাসন মাজা নয়, পোষ্যকে স্নান করানো, গাড়ি পরিষ্কার করা, বেসিন সিঙ্ক প্যান ইত্যাদি পরিষ্কারের ক্ষেত্রে এটি ব্যবহার করা যায়। দু’টি।

দাম ৫৬% ছাড় দিয়ে ৩৯৯ টাকা।

 ৮। সিঙ্ক স্টেইনার

নানা জিনিস পড়ে সিঙ্ক আটকে যাওয়ার ঘটনা সব রান্নাঘরেই ঘটে। সেই সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে পারে সিঙ্ক স্টেইনার। এটি সিঙ্কের মুখে পেতে রাখলে জল ছাড়া অন্য কিছুই যেতে পারবে না। আবার বাথরুম বা যে কোনো নর্দমার মুখেও ব্যবহার করা যায়, চুল বা অন্য কিছু ঢুকে নলের মুখ যাতে আটকে না দেয় তার জন্য।

দাম ৭৬% ছাড় দিয়ে ২১৯ টাকা।

৯। গ্রসারি লিস্ট প্যাড

এক সঙ্গে কাঁচা বাজার, মুদিখানার জিনিস ইত্যাদির লিস্ট বানিয়ে বাজারে বেরোতে চাইলে সাহায্য করবে এই গ্রসারি লিস্ট প্যাড।

দাম ৩৩% ছাড় দিয়ে ১৯৯ টাকা।

১০। অল পারপাস ক্লিনার –  

রান্নাঘরের টাইলস, টপ, টেবিল, ফ্রিজ, মাইক্রোওভেন, কাচ, চিমনি, এক্সজস্ট ফ্যান যাবতীয় সব কিছু জীবাণুমুক্ত করতে ব্যবহার করা যাবে। ৪০০ মিলি, লেবুর গন্ধ।

দাম – ৩৮% ছাড় দিয়ে ১০৯ টাকা।

দেখতে পারেন – ১০টি ওয়াশেবল মাস্ক দেখে নিন

Continue Reading

ঘরদোর

ওয়ার্ক ফ্রম হোম করছেন? কাজের গুণমান বাড়াতে এই পরামর্শ মেনে চলুন

wfh

খবরঅনলাইন ডেস্ক : আনলক ফেজ টু শুরু হয়ে গিয়েছে। বেশ কিছু অফিসে পুরোদমে কাজও শুরু হয়ে গিয়েছে। কোনো অফিস খুলেছে কেউ বা ওয়ার্ক ফ্রম হোম চালিয়ে যাচ্ছে। তবে এ বার সকলের মধ্যেই নড়েচড়ে বসার প্রবণতা দৃঢ় হয়েছে। বাড়ি বা অফিস, যেখানে থেকেই হোক কাজের গুণমান ভালো করতে হবে। সেই গুণমান অনেকটাই নির্ভর করে মন আর পরিবেশের ওপর।

তাই কাজের জায়গাকে সদাসর্বদা রাখতে হবে পরিষ্কারপরিচ্ছন্ন ও প্রাণবন্ত। যাতে সেখান থেকে ইতিবাচক মনোভাব সব সময় পাওয়া যায়। তার জন্য কয়েকটি পরামর্শ অনুসরণ করা যেতে পারে।

পরিষ্কার ডেস্ক

প্রথম হল অবশ্যই ডেস্ক পরিষ্কার রাখুন। যদিও অনেকেই সব কিছু মেলিয়ে নিয়ে বসে কাজ করলে মনযোগ ভালো দিতে পারেন। কেউ বা পরিপাটি ভাবে। তা সে যা-ই হোক, ধুলো ময়লা তো পরিষ্কার করাই যায়। সেটি নিয়মিত করুন। খুব অপরিচ্ছন্ন, অগোছালো ডেস্ক না রাখাই ভালো। কারণ তাতে প্রয়োজনীয় সামগ্রী খুঁজে পেতে সমস্যা হয়।

শান্ত পরিবেশ

জীবন যখন স্বাভাবিক ছন্দে ফিরতে চলেছে তখন বিভিন্ন রকম শব্দ বা গোলমাল বাদ দেওয়া সম্ভব নয়। বাড়ি থেকে কাজ করলে সেই সমস্যাটা একটু বেশি হবে সেটাই স্বাভাবিক। কারণ বাড়ির ভেতর ও বাইরের নানান শব্দ সারাক্ষণ হতেই থাকে। তার ওপর বাড়ির লোকজনের হাঁকডাক তো আছেই। তাই কাজের সময় একটু নিরিবিলি পেতে সময় নির্দিষ্ট করে বলে দিন যেন তাঁরা এর মধ্যে ডাকাডাকি না করেন। বা বাড়ির ভেতরের বিভিন্ন কারণে উৎপন্ন আওয়াজ যাতে যতটা সম্ভব কম করেন। সম্ভব হলে এমন একটি জায়গা বাছুন যেখানে বাইরের শোরগোল একটু কম।

আলোবাতাস

স্বাভাবিক ভাবেই আলো মন ভালো করে, কাজে উৎসাহ বাড়ায়। তাই অফিসে প্রচুর আলোর ব্যবস্থা থাকে। কিন্তু বাড়িতে সেটা সম্ভব নয়। কিন্তু তার জন্য রয়েছে প্রাকৃতিক আলো। জানলার পাশ বা বেশি আলো আছে এমন জায়গা কাজের জন্য বাছুন। এতে চোখে চাপ কম পড়ে, প্রোডাকটিভিটিও বাড়ে।

মন ভালো

মন ভালো থাকলে সতেজ থাকলে কাজে ভালো মন বসে। তাই মন চাঙ্গা রাখতে হলে সবুজ গাছ বা রংবেরঙের ছবি বা সামগ্রী কাজের ডেস্কে রাখতে পারেন। বিশেষ করে গাছ, ফুল এ সব তো রাখাই যায়। গাছের ক্ষেত্রে ইনডোর প্ল্যান্ট রাখুন। ফুলদানিতে ফুল রাখুন। মন ভালো লাগবে, কাজের মানও ভালো হবে।

নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কাজ

বাড়িতে বসে কাজ করলে কাজের সময়সীমা নির্দিষ্ট থাকে না। ইচ্ছা না থাকলেও বাড়ির কাজে মাঝে মধ্যে মাথা ঘামাতেই হয়। শেষে অফিসের সময়ের বাইরেও কাজ চলতে থাকে। তাতে শেষের দিকে কাজে আর মন লাগে না। কিন্তু প্রতি দিন এমনটা না হওয়াই ভালো। তাতে ব্যক্তিগত জীবন বলে কিছু থাকে না। তাই নির্দিষ্ট সময়ে কাজে বসা ও মাঝে যতটা সম্ভব ব্রেক না দিয়ে বাঁধা সময়ের মধ্যে শেষ করার চেষ্টা করুন।

স্কুল বন্ধ কিন্তু বড়োদের অফিস চালু, এই পরিস্থিতিতে ছোটোদের সামলাবেন কী ভাবে?

Continue Reading
Advertisement
দেশ3 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ২৭১১৪, সুস্থ ১৯৮৭৩

কলকাতা3 days ago

কলকাতায় লকডাউনের আওতায় পড়া এলাকাগুলির পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রকাশিত

ক্রিকেট3 days ago

১১৬ দিন পর শুরু আন্তর্জাতিক ক্রিকেট, হাঁটু গেড়ে বসে জর্জ ফ্লয়েডকে স্মরণ ক্রিকেটারদের

রাজ্য2 days ago

ঘুমের মধ্যেই চলে গেলেন মহীনের অন্যতম ‘ঘোড়া’ রঞ্জন ঘোষাল

দেশ2 days ago

সক্রিয় করোনা রোগীর ৯০ শতাংশই আটটি রাজ্যে!

LPG
দেশ3 days ago

উজ্জ্বলা যোজনায় বিনামূল্যের এলপিজি সিলিন্ডার পাওয়ার মেয়াদ বাড়ল আরও তিন মাস

কলকাতা2 days ago

করোনার পাশাপাশি কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে শুরু হচ্ছে অন্যান্য রোগের চিকিৎসা

শিক্ষা ও কেরিয়ার2 days ago

শুক্রবার আইসিএসই, আইএসসি-র ফল

কেনাকাটা

কেনাকাটা2 days ago

ঘরের একঘেয়েমি আর ভালো লাগছে না? ঘরে বসেই ঘরের দেওয়ালকে বানান অন্য রকম

খবরঅনলাইন ডেস্ক : একে লকডাউন তার ওপর ঘরে থাকার একঘেয়েমি। মনটাকে বিষাদে ভরিয়ে দিচ্ছে। ঘরের রদবদল করুন। জিনিসপত্র এ-দিক থেকে...

কেনাকাটা4 days ago

বাচ্চার জন্য মাস্ক খুঁজছেন? এগুলোর মধ্যে একটা আপনার পছন্দ হবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিউ নর্মালে মাস্ক পরাটাই দস্তুর। তা সে ছোটো হোক বা বড়ো। বিরক্ত লাগলেও বড়োরা নিজেরাই নিজেদেরকে বোঝায়।...

কেনাকাটা5 days ago

রান্নাঘরের টুকিটাকি প্রয়োজনে এই ১০টি সামগ্রী খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক : লকডাউনের মধ্যে আনলক হলেও খুব দরকার ছাড়া বাইরে না বেরোনোই ভালো। আর বাইরে বেরোলেও নিউ নর্মালের সব...

কেনাকাটা6 days ago

হ্যান্ড স্যানিটাইজারে ৩১ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দিচ্ছে অ্যামাজন

অনলাইনে খুচরো বিক্রেতা অ্যামাজন ক্রেতার চাহিদার কথা মাথায় রেখে ঢেলে সাজিয়েছে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের সম্ভার।

নজরে