দেওয়াল লিখন ১

0

moitryমৈত্রী মজুমদার

কথায় বলে দেওয়ালেরও কান আছে।

সে কান কেউ দেখুক বা নাই দেখুক, দেওয়ালের প্রাণ যে আছে তা সবাই এক বাক্যে স্বীকার করবে।

দ্বিমত আছে ? আচ্ছা বলুন তো, একটি সুন্দর রঙ করা পরিপাটি দেওয়াল আপনার বাড়িতে প্রাণ প্রতিষ্ঠা করে কি না ? করে তো ? তাহলে চলুন মা দুগগার প্রাণ প্রতিষ্ঠা হওয়ার আগে চার দেওালের প্রান প্রতিষ্ঠার দিকে নজর দিই।

Shyamsundar

প্রাণের উৎসব দুর্গা পূজা যখন দরজায় কড়া নাড়ছে , যখন চারদিকে সাজসাজ রব, সেটাই তো উত্তম সময় নিজের ঘরবাড়ি সাজিয়ে তোলার। আর এই ক্ষেত্রে দেওয়ালগুলো রঙ করে ফেলা একটি অতিপরিচিত, সাবেকি এবং সোজা কাজ।

তবে শুধু কি রঙ করাই দেওয়াল সাজানোর একমাত্র উপায় ? যে দেওয়ালে রঙের দরকার নেই তাকে কি আর কোনও ভাবে সাজানো যাবে না ?

চলুন না, একটু বাজার ঘুরে দেখে নিই , আর কী কী করা যেতে পারে, চার দেওয়ালের মধ্যে নানান দৃশ্য দেখার জন্য ?

দেওয়ালে রঙ করার ক্ষেত্রে আজকাল সবচেয়ে সুবিধাজনক উপায় হল, যে কোনও একটি ব্র্যান্ডেড রঙের কোম্পানির সঙ্গে যোগাযোগ করা। প্রত্যেকেরই কিছু না কিছু নিজস্ব বৈশিষ্ট্য আছে এবং কোম্পানির লোক আপনার বাড়িতে এসে আপনার সাধ আর সাধ্যের মধ্যে মিল ঘটিয়ে আপনার বাড়িটিকে রাঙ্গিয়ে তুলবে। সেক্ষেত্রে সাদামাটা রঙ থেকে শুরু করে দেওয়ালে বিভিন্ন নক্সা আঁকা ইত্যাদি অনেক অপশন আছে।

1

কিন্তু শুধুমাত্রই যদি রঙ করে আপনি খুশি না থাকেন, সেক্ষেত্রেও তালিকা দীর্ঘ।

বাড়ির বিশেষ বিশেষ জায়গাকে হাইলাইট করুন টেক্সচার পেইন্ট দিয়ে। পলিমার ব্যবহার করে এ ক্ষেত্রে দেওয়ালে ভিন্ন ভিন্ন প্যাটার্ন বানিয়ে ভিন্ন মাত্রা যোগ করা হয়।

2

দেওয়াল সজ্জায় ওয়াল পেপারের ব্যবহার কিন্তু বেশ পুরোনো, তবে আজকাল ডিজিটাল প্রিন্টের সহযোগিতায় এর বৈচিত্র্য অনেক গুন বেড়েছে।

3

যদি পুরো দেওয়ালে ওয়াল পেপার লাগাতে আপত্তি থাকে তাহলে কম খরচায় এবং খুব কম সময়ে দেওয়াল সাজান স্টিকার দিয়ে। এদের পোশাকি নাম ‘ডেকাল’ । অন্দরসজ্জার দোকানে তো বটেই এমনকি বিভিন্ন অনলাইন পোর্টালেও সহজেই কিনতে পাবেন এগুলি।

4

সোজাসুজি লাগিয়ে নিন দেওয়ালে আর নিজের হাতেই করুন নিজের বাড়ির চেহারা বদল। ঘরে থাকা যেকোনও জিনিস এদের সঙ্গে মিক্স অ্যান্ড ম্যাচ করে হয়ে উঠতে পারেন আরও একটু বেশি ক্রিয়েটিভ।

5

এ ক্ষেত্রে বাড়ির ছোটোদের সঙ্গে নিতে পারেন। এমনিতেই ওরা দেওয়ালে লিখতে ভালোবাসে। আপনার বকাবকির বদলে, উৎসাহ পেলে তারা খুশি তো হবেই, পাশাপাশি তাদের কল্পনাশক্তিকে কাজে লাগাতে সক্ষম হয়ে উঠবে।

6

দেওয়ালকে সাজিয়ে তোলার একটি পরিচিত উপায় হল, দেওয়ালে টাইলস লাগানো। যদিও টাইলস বললেই সচরাচর বাথরুমের দেওয়ালের কথাই মনে আসে। কিন্তু ইদানিং কালে বাজারে বিভিন্ন এফেক্টের টাইলস পাওয়া যায়, যা বাড়ির ভিন্ন ভিন্ন জায়গায় ভিন্ন রকম এফেক্ট তৈরিতে সক্ষম।

7

যেমন ধরুন বসার ঘরের দেওয়ালে পাথুরে এফেক্ট তৈরি করতে স্টোন টাইলস।

wall-cover-8

কিংবা খাটের পিছনের দেওয়ালে বিভিন্ন কাপড়ের টুকরো যোগ করে বানানো চেকার্ড ফেব্রিক টাইলস।

9

আবার এ সব কোনও কিছুই না করে, সুন্দর করে রঙ করা দেওয়ালে স্টেনসিল ব্যবহার করে নিজের পছন্দের লাইন দেওয়ালে লিখে নিন। ব্যাস। কম খরচায় কিস্তিমাৎ করতে আপনার দেওয়াল লিখন এক্কেবারে প্রস্তুত।

10

ছবি ইন্টারনেট থেকে সংগৃহীত

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন