Connect with us

ঘরদোর

স্নান ঘরের গান -১

moitryমৈত্রী মজুমদার

বরষায় পথঘাট জল থৈ থৈ রে/ভিজে কাক দেয় ডাক, জানালায় ওই রে…

মনে পড়ছে ছড়াটা ? মনে তো পড়ারই কথা। কিন্তু আজকের পরিস্থিতি কি আর শৈশবের মতো আছে ? বৃষ্টি দেখলে আজকাল মনে হয়, এ বাবা অফিস-ফেরতা ভিজে যাব না তো ? অথবা মনে হয়, আহা! বাচ্চাটা স্কুল-ফেরতা রাস্তার জমা জলে কাপড়চোপড় নোংরা করল না তো? এই চার দিকের নালা ডোবার জলে অসুখবিসুখ হবে না তো ?

হুম! জীবনটা এ রকমই, কোনও কিছুই চির দিন একই ভাবে ভালো লাগে না। তাই এই বর্ষায় ভাবলাম বৃষ্টির রোম্যান্টিকতা বাদ দিয়ে, একটু স্বাস্থ্য সচেতনতায় মন দিই।

দিনের পর দিন অবিরাম বর্ষণে যখন চার দিক প্যাচপ্যাচে, কাপড়জামা শুকাচ্ছে না, চার পাশে ভ্যাপসা ভ্যাপসা গন্ধ ছাড়ছে, তখন আপনার বাড়ির যে জায়গাটা সব চেয়ে ভালো করে রাখা উচিত তা হল আপনার ওয়াশরুম বা বাথরুম।

কী ভাবছেন ? অল্প নিরুৎসাহ হলেন নাকি? আপনিই ভেবে দেখুন, সারা দিন অফিস, ইস্কুল করে, ঘেমে নেয়ে তার ওপর আবার ভিজতে ভিজতে নোংরা জল পেরিয়ে বাড়ি ফেরার পর যদি একটি সুন্দর সাজানোগোছানো পরিষ্কার বাথরুম আপনার জন্য অপেক্ষা করে তা হলে মনের সব কোনাগুলোতে বাতি জ্বলে ওঠে কি না?

তা হলে শুরু করা যাক আমাদের আজকের আখ্যান, বাথরুম সুন্দর রাখার উপায়গুলো নিয়ে …

“যে কোনও বসতবাড়ি কতটা বসবাসযোগ্য তা নির্ধারণের মাপকাঠি হল, তিনটি ‘প’, (পানি, পাকঘর আর পায়খানা) ঠিকঠাক আছে কিনা যাচাই করে নেওয়া”– বাড়ির বয়স্করা বলেন। ঠিক কথাই তো, এগুলোর থেকে জরুরি বিষয় একটি বাড়ির ক্ষেত্রে আর কী-ই বা হতে পারে ?

আজ আলোচনা করব তিন নম্বরটি মানে বাথরুম নিয়ে, আর পানি বা জলের ব্যবহার যে হেতু দু’টি ক্ষেত্রেই সমান গুরুত্বপূর্ণ, তাই আজকের আলোচনা আমরা শুরু করব জল দিয়েই।

বাথরুমের  সব চাইতে  জরুরি উপাদান যখন জল তখন বাথরুমের বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেওয়ার  প্রধান কারণটিও কিন্তু সেই জল । তাই একটি পরিষ্কার এবং সুন্দর বাথরুম পেতে গেলে সবার প্রথমে এখানকার পাইপলাইনগুলো ত্রুটিমুক্ত করে নিতে হবে। তার সাথে জলনিকাশি ব্যবস্থাও পাক্কা করতে হবে যাতে ব্যবহারের পর বাথরুমে জল জমে না থাকে। বাথরুম যত শুকনো থাকবে, তাকে সুন্দর করে রাখাও ততই সুবিধাজনক হবে।

Bathroom

বাথরুম শুকনো রাখার জন্য প্রধান পদক্ষেপ হল উপযোগিতার কথা মাথায় রেখে পুরো জায়গাটা ড্রাই (শুকনো) আর ওয়েট (ভিজে) অংশে ভাগ করে নেওয়া। স্নানের জায়গাটি ওয়েট এরিয়া হিসেবে আলাদা করে নিন। আলাদা করার জন্য, গ্লাস পার্টিশান ব্যাবহার করা সব থেকে ভালো।

Bathroom

অসুবিধে থাকলে ফ্লোরে অল্প উঁচু করে ডিভাইডার বানিয়ে ওপরে শাওয়ার কার্টেন লাগিয়ে নিতে পারেন। বাজারে অনেক ধরনের শাওয়ার কার্টেন পাওয়া যায়। বাজেট অনুযায়ী কিনে লাগিয়ে নিন।

Bathroom

আজকাল বাজারে রেডিমেড শাওয়ার কিউবিক্যাল পাওয়া যায়। আপনার বাথরুমের সাইজ অনুযায়ী লাগিয়ে নিতে পারেন। এতে কম জায়গার ভিতরে অত্যাধুনিক শাওয়ার ফিটিংসের সাহায্যে অন্য রকম স্নানের অভিজ্ঞতা পেতে পারবেন। সাথে সাথে জায়গাও বাঁচাবে অন্য কাজে লাগানোর জন্য।

4

এই ধরুন যেমন আপনার ওয়াশিং মেশিনটি রাখতে পারবেন বাথরুমের ভিতরেই। অথবা বাড়তি জায়গা কাজে লাগাতে পারবেন স্টোরেজ হিসেবে।

আপনার বাথরুমের ভিতরে জায়গা যতই কম থাক, আধুনিক বাজার-চলতি ওয়াশ বেসিন, ওয়াটার ক্লসেট, ইত্যাদি ঠিকঠাক বেছে নিতে পারলে ছোট জায়গার ভিতরেও আপনি একটি সুন্দর সাজানোগোছানো বাথরুম পেতে পারেন।

5

বাথরুম বড়ো বা ছোটো যে রকমই হোক এখানে বড় জানলা থাকা জরুরি। এতে সূর্যের আলো, হাওয়া, উষ্ণতা আপনার বাথরুমের পরিবেশ স্বাস্থ্যকর রাখবে। একই সাথে বাথরুম শুকনোও রাখবে।

বাথরুম পরিষ্কার রাখার জন্য এর মেঝে সঠিক হওয়া জরুরি। সব চেয়ে ভালো হয় ড্রাই এরিয়ায় উডেন ফ্লরিং আর ওয়েট এরিয়ায় অ্যান্টি স্কিড সেরামিক টাইলস লাগানো। উডেন ফ্লোরিং লাগাতে না চাইলে পুরোটায় অ্যান্টি স্কিড টাইলস লাগান। কোনও ধরনের পালিশ করা পাথর বাথরুমের মেঝেতে না লাগানোই ভালো।

6

পরিচ্ছন্নতার ক্ষেত্রে বাথরুমের ওয়াল-এরও একটি জরুরি ভুমিকা আছে। তাই ওয়েট এরিয়াতে ওয়ালে, অবশ্যই দরজার হাইট পর্যন্ত সেরামিক টাইলস লাগান। অন্যত্র কম উচ্চতা চলতে পারে। আজকাল অনেক ধরনের থিমেটিক টাইলস বাজারে পাওয়া যায় যা আপনার বাথরুমকে আপাদমস্তক পালটে দিতে পারে।

Bathroom

সব কিছুর পর কিন্তু সব চেয়ে জরুরি কথাটি হল, বাথরুমের মেঝের ঢাল। মেঝের ঢাল যদি ঠিক না থাকে তা হলে কিন্তু জল জমে সব ধরনের সাজানোর চেষ্টা ব্যর্থ করে দিতে পারে। তাই এই বিষয়টি মাথায় রেখে বাথরুমের কাজে হাত দেবেন।……

ছবিগুলি ইন্টারনেট থেকে নেওয়া

ঘরদোর

টিকটিকির জ্বালায় জেরবার? অব্যর্থ এই টোটকাগুলি অবশ্যই করুন, ফল পাবেনই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : প্রায় সবার বাড়িতেই একটা ঝামেলা আছেই। তা হল বিদঘুটে টিকটিকির উৎপাত। ঘরের আনাচে কানাচে এদের অবাধ বিচরণ। অনেকেই বলবেন, নিরীহ প্রাণী। কিন্তু আসলে টিকটিকি মারাত্মক বিষাক্ত সে কথাও সবাই জানেন।  বাড়িকে টিকটিকি-মুক্ত করতে অনেকেই একাধিক পদ্ধতি ব্যবহার করে থাকেন। কিন্তু তা সত্ত্বেও টিকটিকির উপদ্রব বন্ধ করা যায় না। তা হলে উপায়? উপায় কয়েকটি আছে। দেখে নেওয়া যাক কী সেগুলি।

১। ন্যাপথালিন

ঘরের যেখানে টিকটিকির উপদ্রব বেশি, সেখানে ন্যাপথালিনের বল বা গুঁড়ো ছড়িয়ে দিন। এই গন্ধে টিকটিকি পালাবে।

২। রসুন

যেখান দিয়ে টিকটিকি যাতায়াত করে সেখানে কোনায় কোনায় কয়েক কোয়া রসুন রেখে দিন। রসুনের গন্ধে টিকটিকি ধারে কাছে আসবে না।

৩। ময়ূরের পালক

ঘরের যে জায়গায় টিকটিকির উপদ্রব বেশি, সেখানে ময়ূরের পালক রেখে দিলে টিকটিকি পালাবে।

৪। গোলমরিচ বা শুকনো লঙ্কা

গোলমরিচ বা শুকনো লঙ্কার গুঁড়ো ৩-৪ কাপ জলে ঘণ্টাখানেক ভিজিয়ে সেই জল ঘরের কোনায় কোনায় স্প্রে করে দিলে টিকটিকি ওই এলাকা ছেড়ে পালাবে।

৫। ডিমের খোসা

এটি খুবই প্রচলিত। ঘরের ডিমের খোসা রেখে দিন। ওই সমস্ত জায়গায় আর টিকটিকি আসবে না।

৬। তামাক কফি

খানিকটা তামাকের সঙ্গে সামান্য কফি মিশিয়ে ছোটো ছোট গুলি করে তা ঘরের আনাচে কানাচে রেখে দিন। দেখবেন টিকটিকির উপদ্রব কমে যাবে।

৭। পেঁয়াজ

রসুনের মতো পেঁয়াজের গন্ধ টিকটিকি মোটেই সহ্য করতে পারে না। তাই কয়েক টুকরো পেঁয়াজ ঘরের বিভিন্ন জায়গায় রেখে দিন। টিকটিকি পালাবে।

অবশ্যই দেখুন – বর্ষাকালে পোকার হাত থেকে চাল বাঁচাতে হলে অবশ্যই করুন

Continue Reading

কেনাকাটা

করোনা আতঙ্ক? ঘরে বাইরে এই ১০টি জিনিস আপনাকে সুবিধে দেবেই দেবে

things

খবরঅনলাইন ডেস্ক : করোনা পরিস্থিতিতে ঘরে এবং বাইরে নানাবিধ সাবধানতা অবলম্বন করতেই হচ্ছে। আগামী বেশ কয়েক মাস এই নিয়মই অব্যাহত থাকবে। তাই আমাদের হাতের কাছে এমন কিছু জিনিস সব সময় রাখা উচিত যেগুলি বাইরে যেতে অথবা ঘরে থাকাকালীন সংক্রমণের হাত থেকে রক্ষা করতে পারে। তবে শুধু যে এই অতিমারির কাল কাটলে সেগুলি অকেজো হয়ে যাবে তা নয়, এগুলির প্রয়োজনীয়তা কিন্তু জীবনভর রয়ে যাবে।  

প্রতিবেদনটি লেখার সময় অ্যামাজন অনলাইন শপিং পোর্টালে যে দাম ছিল তাই দেওয়া হল।

১। পি সেফ টয়লেট সিট স্যানিটাইজার স্প্রে – সুন্দর গন্ধযুক্ত, ট্র্যাভেল ফ্রেন্ডলি, বাড়ির বাইরে কোনো জায়গায় টয়লেট ব্যবহারের আগে অবশ্যই ব্যবহার করা উচিত এটি। ৭৫ এমএল, দাম ১৭৯ টাকা।

কিনতে হলে ক্লিক করুন।  

২। ইউরেকা ফোবসের অ্যাকুয়াগার্ড পার্সোনাল পিউরিফায়ার বোতল – যে কোনো জায়গায় যে কোনো জল জীবাণু মুক্ত করে পান করা যাবে। ১০০% কেমিক্যাল ফ্রি, ১ বছরের ওয়্যারেন্টি। দাম ৫৯৫ টাকা।

কিনতে হলে ক্লিক করুন।  

৩। মিলটন থার্মোস্টিল ফ্লিপ লিড ফ্লাস্ক – তরল গরম ও ঠান্ডা থাকবে ২৪ ঘণ্টা। এখন তো মাঝেমধ্যেই জল গরম করার দরকার, তাই বার বার না করে একবারে ১ লিটার জল গরম করে রেখে দেওয়া যাবে। দাম ৭৩৯ টাকা।

কিনতে হলে ক্লিক করুন।  

৪। প্রেস্টিজ ক্লিন হোম ওজনাইজার – ফল, আনাজ, মাছ, মাংস, চাল,ডাল ইত্যাদি রাসায়নিকমুক্ত করা যায়। দাম ৩২৯৫ টাকা।

কিনতে হলে ক্লিক করুন।  

৫। ওজনাইজার ফ্রুট অ্যান্ড ভেজটেবিল ক্লিনার – এয়ার পিউরিফায়ার মেশিন, পেস্টিসাইড টক্সিন রিমুভার, ওয়াটার পিউরিফায়ার, ক্লথ ওয়াশিং, স্কিন কেয়ারিং মেশিন হিসাবে কাজ করে। পোর্টেবল, ইকোফ্রেন্ডলি। দাম ১৮৯৯ টাকা।

কিনতে হলে ক্লিক করুন।  

৬। মিনি এলইডি প্রোজেক্টর, হাই রেজলিউশন। হাতের তালুর মাপের। যে কোনো জায়গায় বহন ও ব্যবহার করা যায়। এখন ঘরে বসে মন খারাপ হচ্ছে বেশি। সিনেমা হল বন্ধ। তাই নিজের ঘরকেই সিনেমা হল বানাতে এটি খুবই কাজের। দাম ৩৮৯৮ টাকা।

কিনতে হলে ক্লিক করুন।  

৭। ইলেকট্রনিক কোস্টার। কাজ করতে বসে কাপের পানীয়কে দীর্ঘক্ষণ গরম রাখতে হলে এটি খুবই ভালো উপায়। কার্টুন আঁকা রঙিন ম্যাট। ইউএসবি পোর্ট দেওয়া। দাম ২৭৫ টাকা।

কিনতে হলে ক্লিক করুন।  

৮। অটো শাট অন/অফ কফি মগ ওয়ার্মার। অফিস বা বাড়িতে কাজের টেবিলে ব্যবহার করা যাবে। গরম পানীয় হাতের কাছেই সব সময় পাওয়া যাবে। দাম ১২৯৮ টাকা।

কিনতে হলে ক্লিক করুন।  

৯। ওয়াটারপ্রুফ সিলড ট্র্যান্সপ্যারেন্ট মোবাইল ব্যাগ – বর্ষায় জলে সব ধরনের ফোনের জন্যই উপযুক্ত। তা ছাড়া এর ভেতর ফোন থাকলে এটি স্যানিটাইজ করলেই হল। ফোন স্যানিটাইজ করার আর কী দরকার। দাম ১৪৮ টাকা।  

কিনতে হলে ক্লিক করুন।  

১০। সেফটি গগলস, ট্র্যান্সপ্যারেন্ট প্রোটেকটিভ গ্লাস – বাইরে বেরিয়ে বার বার চোখে হাত চলে যাচ্ছে, সেই সমস্যা থেকে বাঁচতে এই চশমা ব্যবহার করা যায়। কোনো পাওয়ার নেই। দাম ১৯৯ টাকা।

কিনতে হলে ক্লিক করুন।

দেখে নিন – রান্নাঘরের টুকিটাকি প্রয়োজনে এই ১০টি সামগ্রী খুবই কাজের

Continue Reading

ঘরদোর

বর্ষাকালে পোকার হাত থেকে চাল বাঁচাতে হলে অবশ্যই করুন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: একে বর্ষাকাল তার ওপর লকডাউন। অনেকেই বেশি করে দোকান-বাজার করছেন, অন্ততপক্ষে চাল-আটা কিনে রেখেছেন জরুরি পরিস্থিতি সামাল দিতে। কিন্তু তা হলেও সমস্যা যেন পিছু ছাড়ে না। বর্ষাকালে এমনিতেই জিনিসপত্র নষ্ট হয় বেশি। তার ওপরে বেশি করে কিনে রাখা চালে পোকা ধরে গেলে মারাত্মক খারাপ অবস্থা। ভাত বসানোর আগে নিয়মিত চাল বেছে ভালো করে ধুয়ে রান্না করা একে তো সমস্যা বটেই তার ওপর চালে একটা পোকা হলেই তা অল্প দিনে পুরো চালটাই নষ্ট করে দেয়।

তাই চালে যাতে পোকা না ধরে তার জন্য আগাম কিছু ব্যবস্থা করতে হবে

১। অল্প করে রাখুন

প্রথম কথাই হল এক সঙ্গে অনেক চাল না রেখে ছোটো ছোটো ভাগে চাল রাখুন। তাতে পোকা হলেও সবটা এক সঙ্গে নষ্ট হবে না।

২। প্লাস্টিকের ব্যাগে রাখুন

পরিমাণ অনেক বেশি হলে প্লাস্টিকের ব্যাগে ভাগ করে রাখুন। এতে চাল অনেক দিন ভালো থাকে।

৩। এয়ারটাইট কৌটো

চাল রাখার জন্য অবশ্যই এয়ারটাইট ফুড কন্টেনার ব্যবহার করতে পারেন। চাল স্যাঁতস্যাঁতেও হয় না। পোকার আক্রমণও ঠেকানো যায়।

৪। তেজপাতা

চালে পোকা ধরার আগেই তাতে কয়েকটি তেজপাতা ধুয়ে ভালো করে শুকিয়ে গরম করে রেখে দিন। এতে পোকা ধরার ভয় থাকে না। যদি আগেই পোকা ধরে গিয়ে থাকে তা হলে দেরি না করে এই পদ্ধতিটি করা যেতে পারে। পোকা চলে যাবে।

৫। নিমপাতা

তেজপাতার মতো নিমপাতাও চালের মধ্যে দিয়ে রাখা যায়। পোকা ধরে গেলেও তাতে দিয়ে দেখুন, পোকা চলে যাবে।

আবার নিমপাতা তেজপাতা এক সঙ্গেও চালে দিয়ে রাখতে পারেন। তাতে কাজ ভালো হবে।

৬। শুকনো লঙ্কা

চালের পোকা ধরা আটকানো জন্য চালের মধ্যে বেশ খানিকটা শুকনো লঙ্কাও দিয়ে রাখা যায়।

৭। কর্পুর

চালের মধ্যে কর্পুরের কয়েকটি টুকরো দিয়ে রাখলে পোকা ধরা আটকানো যায়।

৮। ফ্রিজে রাখা

পোকা ধরলে কৌটো করে চাল ফ্রিজে রাখুন। ৪ থেকে ৫ দিন রাখার পর দেখবেন চালের সব পোকা মরে গেছে।

৯। রোদে দেওয়া

এ ক্ষেত্রে একটা কথা হল চালে পোকা ধরলে অনেকেই রোদে দেন। এতে পোকা মরে যায়।  ঠিক কথা। কিন্তু সেই চালে ভালো ভাত হয় না। তাই সরাসরি রোদে না রেখে, কৌটো করে রোদে দিন। রোদের তাপে পোকা মরে যাবে। তবে বর্ষার দিনে রোদে দেওয়া অবশ্যই একটি বড়ো সমস্যা।

১০। পরিচ্ছন্ন রাখা

যে জায়গায় চাল রাখছেন, সেই জায়গাটি নিয়মিত পরিষ্কার করতে হবে। তাতে পোকামাকড়ের আক্রমণ অনেক কম হয়।।

১১। কীটনাশক

চালের বস্তা বা কৌটো যেখানে রাখা সেখান পরিচ্ছন্ন করার পর তার চার পাশে কীটনাশক স্প্রে করে রাখা যেতে পারে। তা হলে পোকা ধরার ভয় থাকে না। তবে খেয়াল রাখবেন যেন চালের গায়ে সরাসরি স্প্রে না লাগে।

শিখে নিন- বাজে খেতে খাবারে মুহূর্তে স্বাদ ফেরাতে পারে এই ৭টি টিপ

Continue Reading
Advertisement
দেশ13 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৫২৫০৯, সুস্থ ৫১৭০৬

গাড়ি ও বাইক6 hours ago

পেট্রোলচালিত গাড়ি ‘এস-ক্রস’ বাজারে নিয়ে এল মারুতি সুজুকি

দেশ11 hours ago

রুপোর ইট দিয়ে রামমন্দিরের শিলান্যাস করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

রাজ্য2 days ago

লকডাউনের সূচি ফের বদলাল রাজ্যে

ক্রিকেট1 day ago

বিতর্কের মধ্যেই আইপিএলের সঙ্গত্যাগ করল চিনা সংস্থা ভিভো

দেশ3 days ago

কমল নতুন আক্রান্তের সংখ্যা, বাড়ল সুস্থতার হার, রোগীবৃদ্ধির হারও সর্বনিম্ন স্তরে

ক্রিকেট11 hours ago

আইপিএলের নিয়মাবলি: গুচ্ছের টেস্টিং, চলা-ফেরায় নিয়ন্ত্রণ, একটি দলের জন্য একটি হোটেল

ক্রিকেট13 hours ago

অঘটন! ৩২৯ তাড়া করে বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের হারাল আয়ারল্যান্ড

রবিবারের খবর অনলাইন

কেনাকাটা

things things
কেনাকাটা5 days ago

করোনা আতঙ্ক? ঘরে বাইরে এই ১০টি জিনিস আপনাকে সুবিধে দেবেই দেবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : করোনা পরিস্থিতিতে ঘরে এবং বাইরে নানাবিধ সাবধানতা অবলম্বন করতেই হচ্ছে। আগামী বেশ কয়েক মাস এই নিয়মই অব্যাহত...

কেনাকাটা1 week ago

মশার জ্বালায় জেরবার? এই ১৪টি যন্ত্র রুখে দিতে পারে মশাকে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: একে করোনা তায় আবার ডেঙ্গুর প্রকোপ শুরু হয়েছে। এই সময় প্রতি বারই মশার উৎপাত খুবই বাড়ে। এই বারেও...

rakhi rakhi
কেনাকাটা2 weeks ago

লকডাউন! রাখির দারুণ এই উপহারগুলি কিন্তু বাড়ি বসেই কিনতে পারেন

সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে মনের মতো উপহার কেনা একটা বড়ো ঝক্কি। কিন্তু সেই সমস্যা সমাধান করতে পারে অ্যামাজন। অ্যামাজনের...

কেনাকাটা2 weeks ago

অনলাইনে পড়াশুনা চলছে? ল্যাপটপ কিনবেন? দেখে নিন ৪০ হাজার টাকার নীচে ৬টি ল্যাপটপ

ইনটেল প্রসেসর সহ কোন ল্যাপটপ আপনার অনলাইন পড়াশুনার কাজে লাগবে জেনে নিন।

কেনাকাটা2 weeks ago

করোনা-কালে ঘরে রাখতে পারেন ডিজিটাল অক্সিমিটার, এই ১০টির মধ্যে থেকে একটি বেছে নিতে পারেন

শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা বুঝতে সাহায্য করে এই অক্সিমিটার।

কেনাকাটা3 weeks ago

লকডাউনে সামনেই রাখি, কোথা থেকে কিনবেন? অ্যামাজন দিচ্ছে দারুণ গিফট কম্বো অফার

খবরঅনলাইন ডেস্ক : সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে দোকানে গিয়ে রাখি, উপহার কেনা খুবই সমস্যার কথা। কিন্তু তা হলে উপায়...

laptop laptop
কেনাকাটা3 weeks ago

ল্যাপটপ কিনবেন? দেখে নিন ২৫ হাজার টাকার মধ্যে এই ৫টি ল্যাপটপ

খবরঅনলাইন ডেস্ক : কোভিভ ১৯ অতিমারির প্রকোপে বিশ্ব জুড়ে চলছে লকডাউন ও ওয়ার্ক ফ্রম হোম। অনেকেই অফিস থেকে ল্যাপটপ পেয়েছেন।...

কেনাকাটা3 weeks ago

হ্যান্ডওয়াশ কিনবেন? নামী ব্র্যান্ডগুলিতে ৩৮% ছাড় দিচ্ছে অ্যামাজন

খবরঅনলাইন ডেস্ক : করোনাভাইরাস বা কোভিড ১৯ এর সঙ্গে লড়াই এখনও জারি আছে। তাই অবশ্যই চাই মাস্ক, স্যানিটাইজার ও হ্যান্ডওয়াশ।...

কেনাকাটা4 weeks ago

ঘরের একঘেয়েমি আর ভালো লাগছে না? ঘরে বসেই ঘরের দেওয়ালকে বানান অন্য রকম

খবরঅনলাইন ডেস্ক : একে লকডাউন তার ওপর ঘরে থাকার একঘেয়েমি। মনটাকে বিষাদে ভরিয়ে দিচ্ছে। ঘরের রদবদল করুন। জিনিসপত্র এ-দিক থেকে...

কেনাকাটা4 weeks ago

বাচ্চার জন্য মাস্ক খুঁজছেন? এগুলোর মধ্যে একটা আপনার পছন্দ হবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিউ নর্মালে মাস্ক পরাটাই দস্তুর। তা সে ছোটো হোক বা বড়ো। বিরক্ত লাগলেও বড়োরা নিজেরাই নিজেদেরকে বোঝায়।...

নজরে

Click To Expand