30 C
Kolkata
Friday, June 18, 2021

সবুজের শুভ্রতায় সাজিয়ে তুলুন আপনার সাধের বারান্দাকে

আরও পড়ুন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বাড়ির ঝুলবারান্দা, আমাদের অনেকেরই খুব প্রিয় জায়গা। বেশ একটা মন ভালো করার জায়গা। যেখানে দাঁড়িয়ে খোলা আকাশটাকেও ছুঁয়ে ফেলা যায়। আবার যেখান থেকে দাঁড়িয়ে রাতের নিঃস্তব্ধতায় দেখা যায় ফাঁকা গলির শেষ বাঁকটাকেও। এক কথায় না বলা অনেক কথা লুকিয়ে থাকে এই বারান্দায়। আর মনে কাছের বারান্দাকে সাজিয়ে তুলুন সবুজের গালিচায়। সবুজের স্নিগ্ধতা আপনার সারা দিনের সব ক্লান্তি ধুইয়ে দেবে।

দীর্ঘমেয়াদী লকডাউনে সকলেই চার দেওয়ালের পিছনে বন্দি। নিজেকে কাজে ব্যস্ত রাখতে নিজের বাড়ির বারান্দাকে একটা অন্য রকমের লুক দিন। ইট-কাঠ-পাথরের দুনিয়ায় এখন জায়গার বড়োই অভাব। বিশেষ করে যাঁরা ফ্ল্যাটে থাকেন তাঁদের কাছে ঘরের সঙ্গের ব্যালকনিটাই ভরসা। দিনের শেষে মন চায় একটু আরাম করতে৷ আর সেই আরাম যদি হয় আপনার বারান্দার বাগান, তা হলে তো আর কথাই নেই। এখন আপনার ছোট্ট ব্যালকনিতেই গড়ে তুলতে পারবেন নিজের পছন্দমতো বাগান৷ সুন্দর করে সাজিয়ে নিতে পারেন ছোট্ট সেই প্রাঙ্গণকে৷ এক কাপ চায়ের সঙ্গে বিকেলে আড্ডা জমে গোলাপ, জুঁই, চন্দ্রমল্লিকা কিংবা নানা সবজি বা ফলের গাছের সঙ্গে। দিনের শেষটা বেশ ভালোই কাটবে আপনার। আপনার আশেপাশের পরিবেশকে আরও মুক্ত করে তুলবে। ফলে সকাল-বিকেল এখানেই ভিড় জমাতে পারে নানান প্রজাতির পাখিরা।

Loading videos...

সাজানোর পদ্ধতি

- Advertisement -

মরশুমি ফুল থেকে টুকটাক সবজি 

ব্যালকনিতে টবেই লাগিয়ে নিতে পারেন কিছু গাছ। মরশুমি ফুল থেকে টুকটাক সবজি – যত্ন নিলেই দেখবেন কেমন তরতর করে বেড়ে উঠছে। গোলাপ, বেলি, গাঁদা, হাসনুহানার মতো গাছগুলো খুব সহজেই টবে লাগাতে পারেন। শুধু বারান্দার এমন জায়গায় রাখবেন যাতে তা দিনে অন্তত ২ ঘণ্টা রোদ পায়। সকালে আর বিকেলে নিয়ম করে জল দিলেই দেখবেন কিছু দিনের মধ্যে আপনার বারান্দা কেমন রঙে ভরে উঠেছে।

রোদহীন বারান্দায় পাতাবাহার  

বারান্দা রয়েছে, কিন্তু রোদ আসে না? তা হলে পাতাবাহার সেই বারান্দার জন্য আদর্শ৷ বেশ কয়েক প্রজাতির পাতাবাহার পাবেন নার্সারিতে৷ লাগাতে পারেন মানিপ্ল্যান্ট, কয়েনপ্ল্যান্ট, লাকিব্যাম্বু, পামগাছ, ইঞ্চিপ্ল্যান্ট, স্পাইডারপ্ল্যান্ট-এর মতো কয়েক ধরনের গাছ। কয়েনপ্ল্যান্ট আর স্পাইডারপ্ল্যান্টের জন্য যদি সম্ভব হয় তবে সপ্তাহে ১-২ দিন রোদের একটু ব্যবস্থা করে দিতে পারলে ভালো।

ক্যাকটাসের লাগে না পরিচর্যা

সারা দিনের কর্মব্যস্ততায় গাছের পরিচর্যার সময় পাবেন না ভাবছেন, তা হলে আপনার জন্য পারফেক্ট ক্যাকটাস৷ এই গাছগুলিতে খুব একটা জল লাগে না৷

বারন্দা হতে পারে জলজ বাগান

আপনার শখের বারান্দা সাজাতে পারেন জলজ বাগান দিয়ে৷ বড়ো সাইজের কোনো গামলায় জল় নিয়ে তাতে টব বসান৷ টবের ভিতর শাপলা, পদ্ম, স্বর্ণকুমুদ, মেক্সিকান সোরড লিলি, জলগোলাপের মতো জলজ গাছগুলো লাগাতে পারলে বারান্দার ছবিই বদলে যাবে৷

চাই সঠিক যত্ন, সাজাতে হবে সুন্দর করে  

যে গাছই লাগানো হোক না কেন, তার সঠিক যত্ন প্রয়োজন এবং সুন্দর করে সাজানোর ওপরেই নির্ভর করে আপনার বারান্দা-বাগানটা কতটা নান্দনিক দেখাবে। বাজারে চমৎকার দেখতে টব পাওয়া যায়। সে সব টবে গাছ লাগিয়ে কিছু রঙিন পাথর দিয়ে টবের চারপাশ ঘিরে দিলে দেখতে ভালো লাগবে। এ ছাড়া মাটির চাড়িতে একটু আলপনা এঁকে তাতেও জলের গাছগুলো রাখা যেতে পারে। আলপনা আঁকা হাঁড়িতে লতানো কোনো গাছ ঝুলিয়ে দিলেও ভালো দেখাবে।

সাধের বারান্দায় শেষ বিকেলে কিংবা সকালে আপনার একটু বসে সময় কাটাতে ইচ্ছে করবে। নান্দনিক কিছু চেয়ার বা মোড়া দিয়ে সাজিয়ে তুলতে পারেন। বাঁশ, বেত, রড আয়রন, কাঠের টুল বা চেয়ার রাখতে পারেন। কোনোও শক্ত স্ট্যান্ডের ওপর গ্লাস বসিয়ে নিয়ে তৈরি করতে পারেন টেবিল। সকাল বা বিকেলে চায়ের কাপ হাতে পড়তে পারেন বই। শুনতে পারেন গান কিংবা কাছের মানুষকে নিয়ে দিতে পারেন আড্ডা। গাছে ভরা বারান্দায় কেটে যাবে আপনার সুন্দর মুহূর্ত।

আরও পড়ুন: ঘর সাজান বোহেমিয়ান স্টাইলে

- Advertisement -

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

- Advertisement -

আপডেট

ইউরো ২০২০ আপডেট: তৃতীয় দল হিসেবে শেষ ষোলোয় নেদারল্যান্ডস

ইউরো ২০২০-এর আপডেট দেখতে থাকুন খবরঅনলাইনকে।

পড়তে পারেন