Connect with us

জীবন যেমন

বয়স তো বাড়বেই! কিন্তু বয়সের প্রতিটি ধাপে কী ভাবে নিজেকে রাখবেন জানেন কী?

ওয়েবডেস্ক: বয়স কখনও থেমে থাকে না। যদিও তা একটা সংখ্যা মাত্র! তবুও সেই সংখ্যাটাই যে অনেক সময় অনেক বড় সমস্যার কারণ হয়ে দাড়ায়।

বয়স যত বাড়তে থাকে ত্বকের মধ্যেও বিভিন্ন রকমের সমস্যা দেখা দেয়। কখনও মুখের মধ্যে ব্রণ, আবার কখনও ব্ল্যাকহেডসের সমস্যা তো আবার কপালে বলিরেখা কিছু না কিছু সমস্যা লেগেই থাকে।

এবার সেই সমস্যা ১৮ বছরের ক্ষেত্রে একরকম তো আবার ২০-২৫ বছরের মানুষ আর এক সমস্যা নিয়ে ভুগছেন। আবার ৩০-৩৫ বছরে সমস্যা অন্য।

প্রতিটি মানুষই নিজেকে ভালো রাখার জন্য বাজার চলতি অনেক প্রসাধনী ব্যবহার করে থাকেন। অথচ সেই সব প্রোডাক্ট মেখে আদৌ কী কোনো কাজ হয়েছে।

তা হলে বরং জেনে নেওয়া যাক-

১। ১৮-২০ বছর

ছবি সৌজন্যে: বেব্রা ইনফিট.কম

এই বয়সে ব্রণর সমস্যায় অনেকেই ভুগে থাকেন। কারণ এই সময়ে শরীরে হরমোনের পরিবর্তন হয়। এর ফলে ত্বকের মধ্যে  তৈলাক্ত ভাব দেখা দেয়। কিন্তু কী ভাবে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন জেনে নেওয়া যাক

উপকরণ-

১টি গ্রিন টি ব্যাগ, ১ কাপ গরম জল।

পদ্ধতি-

গ্রিন টি-র ব্যাগটি ১০ মিনিট ১ কাপ গরম জলে ভিজিয়ে রাখতে হবে। এর পরে গ্রিন টি-র ব্যাগটি জল থেকে তুলে জলটা ঠান্ডা করে নিতে হবে। এ বার তুলো দিয়ে জলটি মুখের মধ্যে ১০-১৫ লাগিয়ে রাখুন। সময় হয়ে গেলে ধুয়ে নিন।

২। ২০-২৫ বছর

ছবি সৌজন্যে: বিউটি হেলথ টিপস

২০-২৫ বছর মানেই কলেজের জীবন যাত্রা শুরু। আবার কলেজ শেষ হয়ে গেলে আর এক নতুন অধ্যায় শুরু। চাকরি জীবন! আর চাকরি মানেই কোনো রকমে নাকে-মুখে গুঁজে দৌড়াও ট্রেন বা বাস ধরতে। এ বার সারাদিন বাইরে থাকা মানেই কম-বেশি মুখের মধ্যে ধুলো-ময়লা লাগছেই। সেক্ষেত্রে মাঝে মাঝে ব্রণর সমস্যা দেখা দিতেই পারে। আবার নাকের মধ্যে ব্ল্যাকহেডসের সমস্যা প্রায় অনেক মানুষের মধ্যেই দেখা দেয়। মুখের মধ্যে ট্যান পড়ে মুখ কালো হয়ে গেলেও দেখতে খুবই বাজে লাগে।

আরও পড়ুন: ত্বককে টানটান রাখুন চারটি ঘরোয়া উপায়ে

উপকরণ-

১টি লেবু, ২ চামচ মধু, ১ চামচ হলুদ।

পদ্ধতি-

লেবুর রসের মধ্যে মধু, হলুদ গুঁড়ো মিশিয়ে প্যাকটি বানিয়ে নিন। এরপরে মুখের মধ্যে ১০-১৫ মিনিট লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে নিন।

৩। ৩০-৩৫ বছর

ছবি সৌজন্যে: ভি কুল

বয়স যখন পৌঁছায় ৩০-৩৫-এর কোটায় তখন ত্বকের মধ্যে অনেক সমস্যার সৃষ্টি হয়। এই সময়ে প্রতিদিন নিয়ম করে ত্বকের যত্ন নেওয়া উচিত। যাতে ত্বক থেকে মৃত কোষ দূর হয়ে যেতে পারে এবং ত্বকের মধ্যে কোনও কালো ছোপ বা বলিরেখা না পড়ে।

উপকরণ-

৭-৮টি কালো জাম, ২ চামচ ব্রাউন সুগার, ২ চামচ মধু।

পদ্ধতি-

আগে ব্রাউন সুগারটা বেটে গুঁড়ো করে নিন। ব্রাউন সুগারের গুঁড়োর মধ্যে কালো জাম ও মধুটা মিশিয়ে একটি ফেসপ্যাক বানিয়ে নিন। ১৫-২০ মিনিট মুখে লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে গেলে জল দিয়ে ধুয়ে নিন

কেনাকাটা

চুল ও ত্বকের বিশেষ যত্নের জন্য ১০০০ টাকার মধ্যে এই জিনিসগুলি ঘরে রাখা খুবই ভালো

care

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পার্লার গিয়ে ত্বকের যত্ন নেওয়ার সময় অনেকেরই নেই। সেই ক্ষেত্রে বাড়িতে ঘরোয়া পদ্ধতি অনেকেই অবলম্বন করেন। বাড়িতে বসে চুল ও ত্বককে ঝকঝকে করতে হলে এই প্রোডাক্টগুলি খুবই কাজে লাগবে। দেখুন আর আপনার দরকারেরটা অর্ডার করুন।

প্রতিবেদন লেখার সময় যে দাম ছিল তাই দেওয়া হল।

১। ইলেকট্রনিক পোর্টেবল ফেস ক্লিনসার অ্যান্ড ম্যাসাজার, সঙ্গে ৪টি আলাদা রকমের ব্রাশ, ব্রাশগুলি ডিপ ক্লেনসিং, স্ক্রাবিং, এক্সফোলিয়েটিং, ব্ল্যাকহেড রিমুভিং, ম্যাসাজিং-এর কাজে লাগবে। দাম ৬৯৯ টাকা।      

কিনতে হলে ক্লিক করুন এখানে

২। মাল্টি পার্পাস অ্যালোভেরা জেল, ত্বকের যত্নের পাশাপাশি ব্যবহার করা যাবে  চুলে মাথার ত্বকেও, দাম ২২৯ টাকা।

কিনতে হলে ক্লিক করুন।     

৩।  স্কিন পিউরিফাইং অ্যান্টি পলিউশান পিল অফ চারকোল মাস্ক। মুখের ত্বককে জেল্লা দেবে, স্বাস্থ্যোজ্জ্বল করবে। দাম ২১০ টাকা।

কিনতে হলে ক্লিক করুন।     

৪। অনিয়ন অয়েল মাস্ক, চুল ঝরা আটকানোর জন্য অর্গানিক বাম্বু ভিনিগার, ড্যামেজ চুল রিপেয়ার করতে ও চুলের স্বাস্থ্য ফেরাতে। দাম ৫৯৯ টাকা।  

কিনতে হলে ক্লিক করুন।   

  

৫। ইলেকট্রনিক অ্যাকনে রিমুভার, ৪টে আলাদা পদ্ধতি, ত্বকের সৌন্দর্য বাড়াতে ব্ল্যাকহেড রিমুভার। দাম ৪৯৯ টাকা।

কিনতে হলে ক্লিক করুন।     

৬। চারকোল নোস ট্রিপস, ব্ল্যাকহেড, হোয়াইট হেডস, তৈলাক্ততা ইত্যাদি থেকে মুক্তি দেবে। দাম ৩৩৫ টাকা।

কিনতে হলে ক্লিক করুন।     

৭। আল্ট্রাথিন পিম্পল প্যাচেস, ব্রন কমানোর খুব সহজ পদ্ধতি। ত্বকের কোনো রকম ক্ষতি না করে এটি ব্রন কমায়। দাম ২৯৯ টাকা।

কিনতে হলে ক্লিক করুন।     

৮। এয়ার টাইট অ্যাপলিকেটার বোতল, চুলের গোড়ায় তেল দেওয়ার জন্য খুবই ভালো, ২টি বোতল। দাম ১৯৯ টাকা।

কিনতে হলে ক্লিক করুন।     

Continue Reading

জীবন যেমন

দীর্ঘ বিচ্ছেদে উৎকণ্ঠায় ভুগছেন? কী ভাবে সামলাবেন এই পরিস্থিতি?

relation

খবরঅনলাইন ডেস্ক : দীর্ঘদিন অদর্শন যে কোনো সম্পর্কেই ব্যাঘাত ঘটায়। বিশেষ করে দাম্পত্য বা প্রেমের সম্পর্কে তো অনেক বেশি করে। মনে যেমন আতঙ্ক উদ্বেগে তৈরি করে। তেমনই শুরু হয়ে যায় কান্নাকাটি, ঝগড়াঝাঁটি। মনে আসে নিরাপত্তাহীনতার ভয়। এই সমস্তই প্রভাব ফেলে সম্পর্কে। ক্রমশ দুর্বল হতে শুরু করে বাঁধন। অশান্তি দেখা দেয়। তার জেরেই টালমাটাল হয়ে যায় সম্পর্কটাই।

এই পরিস্থিতিতে কী করণীয়?

লক্ষণগুলোকে চিনুন

প্রেম বা দাম্পত্যে নিরাপত্তাহীনতার অনুভূতি দেখা দিতই পারে। কিন্তু তাকে বাড়তে দেওয়া ঠিক নয়। কিন্তু কোনো একজন পার্টনার যদি অপরজনের অনুপস্থিতির কারণে সারাক্ষণ সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার ভয়ে ভুগতে থাকেন, তা হলে চিন্তার কারণ। এই মানসিক উদ্বেগের কারণে শারীরিক সমস্যাও শুরু হয়। বমি হওয়া, মাথাব্যথা, কিছু ভালো না লাগা, সবেতেই বিরক্তি ভাব – এ সবই মানসিক উৎকণ্ঠার লক্ষণ। তাই এগুলির কোনোটি একাধিক দিন ধরে চলতে থাকলেই নিজের মনের বিচলিত অবস্থাটি পার্টনারকে খুলে বলুন। সমাধানের উপায় বের করুন।

মনের ভাব শেয়ার করুন

উৎকণ্ঠা, ভয় এগুলোকে নিজের মধ্যে চেপে রাখবেন না। এই বিষয়ে পার্টনারের সঙ্গে কথা বলুন। মুখে ঠিক করে গুছিয়ে বলতে না পারলে চিঠি লিখে জানান। প্রতিটি আবেগের টানাপোড়েন সম্পর্কে যত্নবান হোন। একে অপরের প্রতি সচেতন হোন, খেয়াল রাখুন। এই উৎকণ্ঠাকে বিশেষজ্ঞরা এক ধরনের প্যানিক অ্যাটাক বলে থাকেন। সচেতন থাকলে প্যানিক অ্যাটাক রোধ করা সম্ভব।

মনোবিদের সাহায্য

বিচ্ছেদের উদ্বেগ, নিরাপত্তাহীনতা বোধ এই সবই অ্যাংজ়াইটি থেকে আসে। এর মোকাবিলা প্রথম থেকেই করা দরকার। তা না হলে পরে সমস্যা জটিল আকার নিতে পারে। তাই নিজেরা না পারলে মনোবিদের পরামর্শ নিন। কেন উৎকণ্ঠা হচ্ছে, তা কী ভাবে সম্পর্কে প্রভাব ফেলবে, তা থেকে কী ভাবে বেরিয়ে আসা যায়, এই সমস্ত ব্যাপারে একজন পেশাদার মনোবিদই ঠিক পরামর্শ দিতে পারবেন। সেই অনুযায়ী চললে সমস্যা থেকে দ্রুত বেরিয়ে আসতে পারবেন।

পড়ুন – স্কুল বন্ধ কিন্তু বড়োদের অফিস চালু, এই পরিস্থিতিতে ছোটোদের সামলাবেন কী ভাবে?

Continue Reading

ঘরদোর

টিকটিকির জ্বালায় জেরবার? অব্যর্থ এই টোটকাগুলি অবশ্যই করুন, ফল পাবেনই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : প্রায় সবার বাড়িতেই একটা ঝামেলা আছেই। তা হল বিদঘুটে টিকটিকির উৎপাত। ঘরের আনাচে কানাচে এদের অবাধ বিচরণ। অনেকেই বলবেন, নিরীহ প্রাণী। কিন্তু আসলে টিকটিকি মারাত্মক বিষাক্ত সে কথাও সবাই জানেন।  বাড়িকে টিকটিকি-মুক্ত করতে অনেকেই একাধিক পদ্ধতি ব্যবহার করে থাকেন। কিন্তু তা সত্ত্বেও টিকটিকির উপদ্রব বন্ধ করা যায় না। তা হলে উপায়? উপায় কয়েকটি আছে। দেখে নেওয়া যাক কী সেগুলি।

১। ন্যাপথালিন

ঘরের যেখানে টিকটিকির উপদ্রব বেশি, সেখানে ন্যাপথালিনের বল বা গুঁড়ো ছড়িয়ে দিন। এই গন্ধে টিকটিকি পালাবে।

২। রসুন

যেখান দিয়ে টিকটিকি যাতায়াত করে সেখানে কোনায় কোনায় কয়েক কোয়া রসুন রেখে দিন। রসুনের গন্ধে টিকটিকি ধারে কাছে আসবে না।

৩। ময়ূরের পালক

ঘরের যে জায়গায় টিকটিকির উপদ্রব বেশি, সেখানে ময়ূরের পালক রেখে দিলে টিকটিকি পালাবে।

৪। গোলমরিচ বা শুকনো লঙ্কা

গোলমরিচ বা শুকনো লঙ্কার গুঁড়ো ৩-৪ কাপ জলে ঘণ্টাখানেক ভিজিয়ে সেই জল ঘরের কোনায় কোনায় স্প্রে করে দিলে টিকটিকি ওই এলাকা ছেড়ে পালাবে।

৫। ডিমের খোসা

এটি খুবই প্রচলিত। ঘরের ডিমের খোসা রেখে দিন। ওই সমস্ত জায়গায় আর টিকটিকি আসবে না।

৬। তামাক কফি

খানিকটা তামাকের সঙ্গে সামান্য কফি মিশিয়ে ছোটো ছোট গুলি করে তা ঘরের আনাচে কানাচে রেখে দিন। দেখবেন টিকটিকির উপদ্রব কমে যাবে।

৭। পেঁয়াজ

রসুনের মতো পেঁয়াজের গন্ধ টিকটিকি মোটেই সহ্য করতে পারে না। তাই কয়েক টুকরো পেঁয়াজ ঘরের বিভিন্ন জায়গায় রেখে দিন। টিকটিকি পালাবে।

অবশ্যই দেখুন – বর্ষাকালে পোকার হাত থেকে চাল বাঁচাতে হলে অবশ্যই করুন

Continue Reading
Advertisement

বিশেষ প্রতিবেদন

Advertisement
রাজ্য18 mins ago

কলেজে ভরতির ফর্ম বাবদ সর্বোচ্চ খরচ বেঁধে দিল রাজ্য

দেশ1 hour ago

করোনা চিকিৎসায় ভারতে সব থেকে সস্তার রেমডেভিসির ওষুধ নিয়ে এল জাউডাস ক্যাডিলা

care
কেনাকাটা2 hours ago

চুল ও ত্বকের বিশেষ যত্নের জন্য ১০০০ টাকার মধ্যে এই জিনিসগুলি ঘরে রাখা খুবই ভালো

দেশ2 hours ago

রামজন্মভূমি ট্রাস্টের প্রধানের কোভিড, ভূমিপুজোর দিন প্রধানমন্ত্রীর পাশেই ছিলেন

দেশ2 hours ago

সৎ করদাতাদের সুবিধার্থে ‘স্বচ্ছ করব্যবস্থা’ চালু করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

representational pic.
দেশ3 hours ago

এ বার পঞ্জাবে কংগ্রেসের দ্বন্দ্ব চরমে, মুখ্যমন্ত্রীকে ‘মানসিক ভারসাম্যহীন’ বললেন দলীয় সাংসদ

রাজ্য4 hours ago

রাজ্য স্বাস্থ্য কমিশনের নির্দেশের পরেও কেন উদাসীন বেসরকারি হাসপাতাল?

দেশ4 hours ago

৮ লক্ষের বেশি টেস্টে আক্রান্ত ৬৭ হাজার, দৈনিক সংখ্যায় রেকর্ড হলেও সংক্রমণের হার কমল ভারতে

কেনাকাটা

care care
কেনাকাটা2 hours ago

চুল ও ত্বকের বিশেষ যত্নের জন্য ১০০০ টাকার মধ্যে এই জিনিসগুলি ঘরে রাখা খুবই ভালো

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পার্লার গিয়ে ত্বকের যত্ন নেওয়ার সময় অনেকেরই নেই। সেই ক্ষেত্রে বাড়িতে ঘরোয়া পদ্ধতি অনেকেই অবলম্বন করেন। বাড়িতে...

কেনাকাটা7 days ago

ঘর ও রান্নাঘরের সরঞ্জাম কিনতে চান? অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ৫০% পর্যন্ত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্ক : অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ঘর আর রান্না ঘরের একাধিক সামগ্রিতে প্রচুর ছাড়। এই সেলে পাওয়া যাচ্ছে ওয়াটার...

কেনাকাটা7 days ago

এই ১০টির মধ্যে আপনার প্রয়োজনীয় প্রোডাক্টটি প্রাইম ডে সেলে কিনতে পারেন

খবরঅনলাইন ডেস্ক : চলছে অ্যামাজনের প্রাইমডে সেল। প্রচুর সামগ্রীর ওপর রয়েছে অনেক ছাড়। ৬ ও ৭  তারিখ চলবে এই সেল।...

কেনাকাটা1 week ago

শুরু হল অ্যামাজন প্রাইম ডে সেল, জেনে নিন কোন জিনিসে কত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্: শুরু হল অ্যামাজন প্রাইম ডে সেল। চলবে ২ দিন। চলতি মাসের ৬ ও ৭ তারিখ থাকছে এই অফার।...

things things
কেনাকাটা2 weeks ago

করোনা আতঙ্ক? ঘরে বাইরে এই ১০টি জিনিস আপনাকে সুবিধে দেবেই দেবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : করোনা পরিস্থিতিতে ঘরে এবং বাইরে নানাবিধ সাবধানতা অবলম্বন করতেই হচ্ছে। আগামী বেশ কয়েক মাস এই নিয়মই অব্যাহত...

কেনাকাটা2 weeks ago

মশার জ্বালায় জেরবার? এই ১৪টি যন্ত্র রুখে দিতে পারে মশাকে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: একে করোনা তায় আবার ডেঙ্গুর প্রকোপ শুরু হয়েছে। এই সময় প্রতি বারই মশার উৎপাত খুবই বাড়ে। এই বারেও...

rakhi rakhi
কেনাকাটা3 weeks ago

লকডাউন! রাখির দারুণ এই উপহারগুলি কিন্তু বাড়ি বসেই কিনতে পারেন

সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে মনের মতো উপহার কেনা একটা বড়ো ঝক্কি। কিন্তু সেই সমস্যা সমাধান করতে পারে অ্যামাজন। অ্যামাজনের...

কেনাকাটা3 weeks ago

অনলাইনে পড়াশুনা চলছে? ল্যাপটপ কিনবেন? দেখে নিন ৪০ হাজার টাকার নীচে ৬টি ল্যাপটপ

ইনটেল প্রসেসর সহ কোন ল্যাপটপ আপনার অনলাইন পড়াশুনার কাজে লাগবে জেনে নিন।

কেনাকাটা3 weeks ago

করোনা-কালে ঘরে রাখতে পারেন ডিজিটাল অক্সিমিটার, এই ১০টির মধ্যে থেকে একটি বেছে নিতে পারেন

শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা বুঝতে সাহায্য করে এই অক্সিমিটার।

কেনাকাটা4 weeks ago

লকডাউনে সামনেই রাখি, কোথা থেকে কিনবেন? অ্যামাজন দিচ্ছে দারুণ গিফট কম্বো অফার

খবরঅনলাইন ডেস্ক : সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে দোকানে গিয়ে রাখি, উপহার কেনা খুবই সমস্যার কথা। কিন্তু তা হলে উপায়...

নজরে

Click To Expand